Homeএখন খবরহাতিকে উত্যক্ত করার ভাইরাল ভিডিও দেখেই গ্রেপ্তার অভিযুক্ত যুবককে! হাতির আক্রমনে মৃত...

হাতিকে উত্যক্ত করার ভাইরাল ভিডিও দেখেই গ্রেপ্তার অভিযুক্ত যুবককে! হাতির আক্রমনে মৃত ১

Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা: হাতিকে উত্যক্ত করা নতুন কিছু নয়! জঙ্গলমহলে আকছার দেখা যায় একলা কোনও হাতিকে পেলে কয়েকজন মিলে অথবা কয়েকজনকে রেখে একজন হাতিকে বিরক্ত করে চলেছে। সাধারণভাবে অচেনা জায়গায় অনেকের তাড়া খেয়ে কিংবা পটকা ইত্যাদির আওয়াজে প্রাণভয়ে ভীত হাতি পালাতে গেলে কিছু বিরপুঙ্গব কিংবা মদ্যপ এধরনের ঘটনা ঘটিয়ে থাকে। অনেক সময় হিতে বিপরীত হয়। পাল্টা ঘুরে দাঁড়িয়ে সেই সব মানুষের ভবলীলা সাঙ্গ করে দেয় কিন্তু তা স্বত্ত্বেও এই ধরনের ঘটনা নতুন কিছু নয়। নতুন হল যে এবার এই ঘটনায় কড়া অবস্থান নিল পুুুলিশ। হাতিকে উত্যক্ত করার একটি ভাইরাল হওয়া ভিডিও দেখে গ্রেপ্তার করা হল এক যুবককে।

সূত্র মারফৎ জানা গেছে ওই ভাইরাল হওয়া ভিডিওটির ভিত্তিতে রীতিমত খতিয়ে দেখে ও তদন্ত করে ওই যুবককে খুঁজে বের করে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পুলিশের এই ভূমিকায় খুশি পশুপ্রেমী মানুষ থেকে বনদপ্তরের কর্মী ও আধিকারিকরা। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পশু সুরক্ষা আইন বা পশুক্লেশ নিবারণ আইনে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ওই যুবককে। ঝাড়গ্রামের আস্থাশুলি গ্রামের বাসিন্দা ওই যুবকের নাম কল্যাণ মাহাত।

উল্লেখ্য রবিবারই প্রকাশ্যে আসে ভিডিওটি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরতে থাকে শেয়ার হওয়া ওই ভিডিওটি যা মুহুর্তে ভাইরাল হয়ে পড়ে। আধ মিনিটের ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে গড় শালবনী এলাকায় জঙ্গলের মধ্যে একটি মাঠে এক যুবক লাঠি হাতে খোঁচাচ্ছে ওই পুরুষ হাতিটিকে। কখনও তার ল্যাজে আবার কখনও পায়ু দ্বারে লাঠি লাগছে। হাতিটি পালানোর চেষ্টা করছে, কখনও অত্যাচার থেকে রেহাই পেতে ফিরে তাড়া করছে যুবককে কিন্তু আবার যেই হাতি পালাতে যাচ্ছে পিছু ধরছে ওই যুবক। বেশ কয়েকবার ঘটনাটি ঘটেছে। এই ভাইরাল ভিডিও ছড়িয়ে পড়তেই প্রচন্ড সমালোচনা শুরু হয়। পশুপ্রেমী ব্যক্তি ও সংগঠনগুলি উষ্মা প্রকাশ করে। এরপরই নড়ে চড়ে বসে পুলিশ। যদিও এই ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করেনি দ্য খড়গপুর পোষ্ট।

এদিকে সোমবারই জামবনী থানার পোড়াডিহা গ্রামে হাতির আক্রমনে মৃত্যু হয়েছে বছর পঁয়তাল্লিশের এক ব্যক্তির। জানা গেছে বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে আচমকাই একটি দাঁতালের মুখোমুখি পড়ে গেলে দাঁতালটি তাঁকে শুঁড়ে তুলে আছাড় মারলে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার। গ্রামবাসীদের কাছ থেকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছান বনদপ্তরের কর্মীরা। পরে পুলিশ গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী ওই ব্যক্তির পরিবার সরকারের ক্ষতিপূরনের পাশাপাশি কোনও চাকরিও পেতেও পারেন বলে জানা গিয়েছে বনদপ্তর সূত্রে।

Advertisement

Advertisement

RELATED ARTICLES

Most Popular