ফের সাঁওতালি মাধ্যম বিদ্যালয়গুলিতে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করল পশ্চিমবঙ্গ স্কুল সার্ভিস কমিশন

276
ফের সাঁওতালি মাধ্যম বিদ্যালয়গুলিতে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করল পশ্চিমবঙ্গ স্কুল সার্ভিস কমিশন 1

নিজস্ব সংবাদদাতা: অলিচিকি হরফে পঠন পাঠন এবং তার জন্য উপযুক্ত পরিকাঠামো গঠনে সরকারের টালবাহানা নিয়ে বারংবার উত্তাল হয়েছে রাজ্য। সাঁওতালি জনজাতিদের সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন ভারত জাকাত মাঝি মাড়ওয়া কিংবা ভারত জাকাত পারগাণা মহালের বিক্ষোভ আছড়ে পড়েছে শহর, নগর থেকে মহানগরে। তাঁদের বিভিন্ন দাবিগুলির অন্যতম দ্রুত সমস্ত জায়গাতেই সাঁওতালি ভাষায় পাঠক্রম চালু করতে হবে এবং সাঁওতালি জনজাতির শিক্ষিত বেকার যুবক যুবতীদের দিয়েই তা করাতে হবে। বছর শেষ হলেই নির্বাচনের বছর। তাই চাপ বাড়ছিল সরকারর। সেই চাপের মুখেই দাবি পূরণে কিছুটা হলেও সচেষ্ট হল সরকার।

২০২১ শের প্রথমার্ধেই রাজ্যের সাঁওতালি মাধ্যমের বিদ্যালয় গুলিতে নিয়োগ করার লক্ষ্যেই নিয়োগ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করলেন পশ্চিমবঙ্গ স্কুল সার্ভিস কমিশন। রাজ্যের সাঁওতালি মাধ্যমের বিদ্যালয়গুলিতর চাকরি প্রার্থীদের জন্য এই সুখবর এসেছে, আ্যসিস্ট্যান্ট টিচার পদে নিয়োগের জন্য। সোমবার, ২১ ডিসেম্বর, পশ্চিমবঙ্গ স্কুল সার্ভিস কমিশন এই নিয়োগ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে।

ফের সাঁওতালি মাধ্যম বিদ্যালয়গুলিতে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করল পশ্চিমবঙ্গ স্কুল সার্ভিস কমিশন 2

কমিশনের চেয়ারম্যানের স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে যে, সমস্ত সরকার পোষিত বা সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত সাঁওতালি মাধ্যম জুনিয়র হাই, মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক স্কুলে আ্যসিস্ট্যান্ট টিচার পদে নিয়োগের উদ্দেশ্যে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হল। বিজ্ঞপ্তির মেমো নম্বর: 679/6928 /CSSC/ESTT/2020) । তবে আপাতত এই নিয়োগ পর্বে বাইরে থাকছে পার্বত্য অঞ্চলের অন্তর্গত সাঁওতালি মাধ্যম স্কুলগুলি। এই সংক্রান্ত বিশদ তথ্য কমিশনের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট westbengalssc.com-এ পাওয়া যাচ্ছে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য এর আগে গত ২০১৯ সালের মার্চ মাসে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে সরকার পোষিত বা সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত সাঁওতালি মাধ্যম স্কুলে নবম-দশম এবং একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণীতে আ্যসিস্ট্যান্ট টিচার পদে নিয়োগের জন্য আগ্রহী প্রার্থীদের থেকে SSC আবেদনপত্র আবেদন করেছিল। যদিও ওই বছরের১৮ ডিসেম্বর এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে সেই নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিল করা হয়।

কারন হিসাবে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছিল, পর্যাপ্ত আবেদনপত্র জমা না পড়ায় এবং নিয়োগের নয়া বিধি জারি করার ফলে এই পদক্ষেপ করা হয়েছে। অবশ্য যাঁরা সে সময় আবেদন করেছিলেন এবং ফি জমা দিয়েছিলেন তাঁদের টাকা ফেরৎ দেওয়ার কথা জানিয়েছিল কমিশন। সম্প্রতি কলকাতা হাইকোর্ট বাতিল হয়েছে আপার প্রাইমারির চলতি প্যানেলটি। তার পরই স্কুল সার্ভিস কমিশনের (এসএসসি) চেয়ারম্যান বদল করে রাজ্য সরকার।

কমিশনের নতুন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পেয়েছেন নেতাজি সুভাষ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য শুভশঙ্কর সরকার। হাইকোর্টের নিয়ম মেনেই নতুন করে আপার প্রাইমারির নিয়োগ প্রক্রিয়া চালু করতে চলেছে সরকার। সরকার জানিয়েছেন আগামী বছরের গোড়াতেই সেই প্রক্রিয়া শেষ করার চেষ্টা করেছেন সরকার। তারই মধ্যে সাঁওতালি মাধ্যম বিদ্যালয়গুলিতে নিয়োগের জন্য এই বিজ্ঞপ্তি জারি করা হল।