খড়গপুরে আ্যন্টিজেন পরীক্ষা তলানিতে, আক্রান্ত ১ ! করোনা মানচিত্রে শহরের কোন এলাকায় কেমন অবস্থা করোনার জেনে নিন

1397
খড়গপুরে আ্যন্টিজেন পরীক্ষা তলানিতে, আক্রান্ত ১ ! করোনা মানচিত্রে শহরের কোন এলাকায় কেমন অবস্থা করোনার জেনে নিন 1

নিজস্ব সংবাদদাতা : আরটি/পিসিআর পরীক্ষা কমানো হবে বলাই হয়েছিল কিন্তু তার সঙ্গে কমে যাচ্ছে আ্যন্টিজেন পরীক্ষাও। মঙ্গলবার মাত্র ৫টি আ্যন্টিজেন পরীক্ষা করা হয়েছে যার মধ্যে থেকে পজিটিভ বেরিয়ে এসেছে ১জন! করোনা কালে এটাই নূন্যতম আক্রান্তের দিন যদিও এ বিষয়ে এর চেয়ে বিশদ কিছুই জানা যায়নি। খড়গপুর মহকুমা হাসপাতালের সুপার কৃষ্ণেন্দু মুখার্জী জানিয়েছেন, ‘ মঙ্গলবার শুধুমাত্র ৫জনেরই র‍্যাপিড আ্যন্টিজেন পরীক্ষা করা হয়েছে যার মধ্যে একজনেরই পজিটিভ পাওয়া গেছে।” কেন মাত্র ৫ জনের আ্যন্টিজেন পরীক্ষা করা হল তা জানা যায়নি।

আরও পড়ুন -  ১০৫ বছর ধরে পোড়া শোল আর কাঁচা মাংসেই মায়ের নৈবেদ্য সাজান গোয়ালতোড়ের চক্রবর্তী পরিবার

যদিও প্রশাসনের  তরফে আগেই ঘোষণা করা হয়েছিল যে আরটি/পিসিআর পরীক্ষা এবার কমিয়ে দেওয়া হবে। শুধুমাত্র জরুরি ভিত্তিতে করোনা পরীক্ষার জন্য হাসপাতালগুলিতে কিছু নির্দিষ্ট পরিমাণ কিটস দেওয়া হবে আর খড়গপুর মহকুমা হাসপাতালের জন্য বরাদ্দ থাকবে দৈনিক ১০টি কিট। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে আ্যন্টিজেন পরীক্ষাই একমাত্র ভরসা ছিল কিন্তু সেখানেও কেন পরীক্ষার পরিমান কমানো হল সেটাই বোধগম্য হচ্ছেনা অনেকের।

খড়গপুরে আ্যন্টিজেন পরীক্ষা তলানিতে, আক্রান্ত ১ ! করোনা মানচিত্রে শহরের কোন এলাকায় কেমন অবস্থা করোনার জেনে নিন 2

উল্লেখ্য রবিবার খড়গপুর শহরে আরটি/পিসিআর এবং আ্যন্টিজেন মিলিয়ে মোট ৫৭ জনের পজিটিভ রিপোর্ট এসেছিল কিন্তু পরের দিন অর্থাৎ সোমবার মাত্র ১৭ জনের পজিটিভ আসে। মঙ্গলবার গভীর রাত অবধি শহরে আরটি/পিসিআর রিপোর্টের তত্ত্ব তল্লাশ মেলেনি ফলে শহরে আরও নতুন কোনও আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে কিনা জানা যায়নি। তবে রবি এবং সোমবার মিলিয়ে যে জিনিসটা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে যে শহরের ইন্দা , ঝাপেটাপুর, কৌশল্যা, ভবানীপুর, ভগবানপুর, খরিদা কুমোরপাড়া, ওল্ড মালঞ্চ এবং আইআইটি এলাকায় করোনার প্রভাব এবং বাড়বাড়ন্ত দুই-ই আছে।

আরও পড়ুন -  খড়গপুরের জন্য পরিছন্ন বিধায়ক চাই ! মাস্টারমশাইয়ের রাস্তায় নামছে ছাত্র ব্রিগেড

তালবাগিচা, আরামবাটি, ডিভিসি,পুরিগেট, প্রেমবাজার এলাকায় নতুন করে পকেট তৈরি করে ফেলেছে করোনা যে কারনে ওই সব এলাকা থেকে একটি দুটি মামলা আসছে প্রায়। অন্যদিকে সুভাসপল্লী, ছোট ট্যাংরা, ঝুলি সোনামুখী, নিমপুরা, ছোট এবং বড় আয়মায় করোনা সীমিত আকারে হলেও থেকে যাচ্ছে। তবে উল্লেখ যোগ্য এটাই যে পাঁচবেড়িয়া এলাকার ৩ টি ওয়ার্ড তিন, চার ও পাঁচনম্বর ওয়ার্ড থেকে বেশ কিছুদিন যাবৎ আক্রান্তের তেমন কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। এর বাইরে রয়েছে খড়গপুর শহরের বিস্তৃত স্থপতি এলাকা। এই এলাকার ২৬নম্বর ওয়ার্ডের ধোপিঘাট, নিউ সেটেলমেন্ট এলাকা সব চেয়ে বেশি সংক্রমক হয়ে রয়েছে। বাকি এলাকা গুলিতে সংক্রমনের হার মোটামুটি সমান্তরাল।