ষষ্টির খড়গপুর, পঞ্চমীর করোনা রিপোর্ট

1074
Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা: ষষ্টির সকালে মাইকে ঢিমে তালে বাজছে আধুনিক কিংবা পুরানো দিনের গান। আবার ফিরে এসেছেন লতা, আশা, মান্না, রফি, কিশোর, আরতি, বনশ্রীরা। ছিমছাম মন্ডপ। ষষ্টির সাত সকালে এদিন কচিকাঁচাদের উপচে পড়া ভিড় নজরে পড়েনি। বরং খড়গপুরের বহু মন্ডপকেই দেখা গেছে শেষ মুহূর্তের ফিনিশিং টাচ দিতে ব্যস্ত। এবার করোনা আবহে পুজো তাই বোধহয় বাবা-মা রা সতর্ক ছেলে মেয়েদের একা একা ছাড়তে।

Advertisement

পঞ্চমীর করোনা রিপোর্টে যথারীতি খড়গপুর অব্যাহত খড়গপুর শহর ও শহরতলিতে করোনা সংক্রমণ। ২১শে অক্টোবরের আরটি/পিসিআর রিপোর্টে খড়গপুর শহরে ২১জন করোনা আক্রান্ত পাওয়া গেছে। এলাকাগত বিভাজন করলে আইআইটি খড়গপুর ক্যাম্পাসে ৩ ও রেল আবাসনে ৪ জন করে আক্রান্ত। খরিদা এবং ইন্দা বামুন পাড়ায় ২ জন করে আক্রান্ত হয়েছেন। বাকিরা শহরের উত্তর থেকে দক্ষিণ সর্বত্র ছড়িয়ে।

Advertisement
Advertisement

আইআইটি ক্যাম্পাসে ৩৯ বছরের মা এবং ৭ বছরের শিশুপুত্র ছাড়াও ৬৪বছরের এক বৃদ্ধা আক্রান্ত। রেল এলাকায় ৩৫, ৪০ ও ৫২ বছরের তিন পুরুষ এবং ২৭ বছরের যুবতী আক্রান্ত। খরিদায় পৃথক ভাবে আক্রান্ত ৫৯ বছরের মহিলা এবং ৪৮ বছরের পুরুষ। ইন্দা বামুন পাড়াতেও আলাদা দুটি পরিবারে ২৬ বছরের যুবক ও ২৭বছরের যুবতী আক্রান্ত।

এদিন মালঞ্চ এলাকাতে ৫২ বছরের এক ব্যক্তি আক্রান্ত হয়েছেন। সুভাষপল্লীতে ২৮ বছরের যুবতী, গোলবাজারে ২৫ বছরের রেল কর্মচারী যুবক আক্রান্ত হয়েছেন। মধ্য খড়গপুরের কৌশল্যা, তলঝুলি ও গোপালনগরে যথাক্রমে দুজন ২৭ বছরের ও একজন ৩২ বছরের যুবক আক্রান্ত। বাবুলাইনে আক্রান্ত ৪০ বছরের রেল কর্মচারী এক ব্যক্তি।
শহরের দক্ষিনে বড় আয়মাতে ৪৪ বছরের পুরুষ, হিজলি কো অপারেটিভ এলাকায় ৩৩ ও রবীন্দ্রপল্লীতে ৩৫ বছরের দুই যুবক আক্রান্ত।