মারাই গেলেন খড়গপুরের করোনা আক্রান্ত অবসর প্রাপ্ত রেল কর্মী, কোভিড সংক্রমন নিয়ে দ্বিতীয় মৃত্যু শহরে

3504
Advertisement

নিজস্ব সংবাদদাতা: ফের দুঃসংবাদ এসেছে খড়গপুরের জন্য। করোনায় আক্রান্ত কলকাতার আর.এন.টেগোর হাসপাতালে ভর্তি খড়গপুর শহরের এক ৬২ বছর বয়স্ক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে শুক্রবার রাতে। উল্লেখ্য গত ৩ জুন খড়গপুর রেল হাসপাতাল থেকে হৃদযন্ত্রেরসমস্যা নিয়ে আরএন টেগোর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল ওই ব্যক্তিকে। ওই দিনই আ্যঞ্জিওপ্ল্যাল্ষ্টি হয় তাঁর। অপারেশনের আগেই তাঁর নমুনা সংগ্ৰহ করা হলে করোনা পজিটিভ বলে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা স্বাস্থ্য দপ্তর জানিয়েছিল।

Advertisement

খড়গপুর পৌরসভার ২৮নম্বর ওয়ার্ড বা ঝুলি এলাকার এই মৃত ব্যক্তি রেলের অবসর প্রাপ্ত কর্মী। হৃদযন্ত্রের সমস্যা নিয়ে কয়েকদিন আগেই মালঞ্চর এক চিকিৎসকের কাছে গিয়েছিলেন। ওই চিকিৎসক হার্টের অবস্থা খুবই খারাপ বলে তাঁকে ততক্ষনাৎ হাসপাতালে ভর্তি হতে বলেন। ৩রা জুন রেলের হাসপাতালে ভর্তি হন। ওই দিনই রাতেই জরুরি ভিত্তিতে অপারেশন করার জন্য আর.এন.টেগোরে স্থানান্তরিত করা হয়। ৪ তারিখই আ্যঞ্জিওপ্লাস্টি করা হয়। অপারেশনের আগেই নমুনা সংগ্ৰহ করা হয়েছিল যা শুক্রবার পজিটিভ বলে জানা গেছে।

Advertisement
Advertisement

যেহেতু ওই ব্যক্তি মাত্র কয়েকঘন্টা কলকাতাতে থাকাকালীন নমুনা সংগ্ৰহ করা হয়েছিল তাই ধরে নেওয়া হয়েছিল খড়গপুর থেকেই সংক্রমন নিয়েই তিনি গেছিলেন। এখন প্রশ্ন হল যদি খড়গপুর থেকে সংক্রমন ছড়ায় তবে তা ছড়ালো কোথা থেকে? সে উত্তর পাওয়ার আগেই মৃত্যু হল ব্যক্তির।

উল্লেখ্য এই নিয়ে খড়গপুরের ২জন ব্যক্তির করোনা সংক্রমন নিয়ে মৃত্যু হল। এর আগে ২৭মে খড়্গপুরের দেবলপুরের ব্যক্তি শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজে গেলে তাঁকে গ্লোকাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ২৯ তারিখ মৃত্যু হয় তাঁর। পরে রেজাল্ট এলে দেখা যায় তিনিও করোনা পজিটিভ। করোনা সংক্রমন নিয়ে সেটাই ছিল জেলার প্রথম মৃত্যু।