ফের ডুয়ার্সে লেপার্ডের রহস্য মৃত্যু, মৃত লেপার্ডের লেজ উধাও

173
ফের ডুয়ার্সে লেপার্ডের রহস্য মৃত্যু, মৃত লেপার্ডের লেজ উধাও 1

অশ্লেষা চৌধুরী: লরির ধাক্কায় বুনো হাতির মৃত্যুর রেশ কাটতে না কাটতেই ফের এক পূর্ণবয়স্ক মাদি লেপার্ডের রহস্যজনক মৃত্যু ডুয়ার্সে। বুধবার দুপুরে আলিপুরদুয়ারের কালচিনির রাজাভাত খাওয়া চা বাগানের দুই নম্বর সেকশনের নালায় মৃত লেপার্ডের(যা স্থানীয় ভাবে চিতাবাঘ বলেই পরিচিত) দেহ দেখতে পান চা বাগান শ্রমিকরা। খবর দেওয়া হয় রাজাভাত খাওয়া রেঞ্জে। বন দপ্তরের কর্মীরা এসে পৌঁছান ঘটনাস্থলে।

অভিযোগ, রহস্যজনক ভাবে ওই লেপার্ডের লেজের বেশির ভাগ অংশ কেউ বা কারা কেটে নিয়ে গিয়েছে। তবে কী লেপার্ডটিকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে? তাই নিয়েই তদন্ত শুরু করেছে বন দপ্তর। ঘটনায় যথেষ্ঠ চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে ডুয়ার্সের রাজাভাত চা বাগানে।

ফের ডুয়ার্সে লেপার্ডের রহস্য মৃত্যু, মৃত লেপার্ডের লেজ উধাও 2

তবে শুধু যে এবারেই লেপার্ডের রহস্যময় মৃত্যু হল তা কিন্তু নয়, চলতি মাসের ১০ তারিখ বৃহস্পতিবার সকালে আলিপুরদুয়ার জেলার ৪৮ নম্বর এশিয়ান হাইওয়ের মাদারিহাট ও হাসিমারার মাঝখানে গাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হয় একটি লেপার্ড ক্যাটের। ঘটনার পর স্থানীয়রা এসে ভিড় জমান সেখানে, খবর দেওয়া হয় বন দপ্তরে। কিন্তু জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যান সংলগ্ন ওই এলাকায় বনকর্মীরা পৌঁছানোর আগেই রহস্যজনক ভাবে উধাও হয়ে যায় মৃত শাবকটির দেহ।

ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই তোলপাড় শুরু হয় বনদপ্তরের অন্দরে। ঘটনাস্থলে জলদাপাড়া বন দপ্তরের অতিরিক্ত বন‍্যপ্রাণ আধিকারিক সহ বনদপ্তরের একাধিক কর্তারা পৌঁছে যান। সেই সাথে পৌঁছে যায় টফি ও রাণীও। উধাও হয়ে যাওয়া ওই বন্য প্রাণীটির মৃতদেহ খুঁজে বের করার জন্য ময়দানে নামে বন দপ্তরের অভিজ্ঞ এই দুই গোয়েন্দা কুকুর রাণী ও টফি (জার্মান শেফার্ড)। দুর্ঘটনাস্থলের কাছে হলং বাজারের লোকালয়ে চলে চিরুনি তল্লাশি,। তারপরেও রহস্যজনক ভাবে উধাও হয়ে যাওয়া লেপার্ড ক্যাটটির কোন হদিস করতে পারেননি বনদপ্তরের জলদাপাড়া জাতীয় উদ‍্যানের বনকর্মীরা । এই ঘটনায় এলাকায় রীতিমতো চ‍াঞ্চল‍্য ছড়ায়।

এছাড়াও প্রায় দিন হাতির মৃত্যু তো যেন নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে ডুয়ার্স এলাকায়। করোনা আবহে ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকার পরেও নিস্তার পাচ্ছে না হাতিরা। দুদিন আগেই রাতে ৪৮ নম্বর এশিয়ান হাইওয়েতে দ্রুতগতিতে ছুটে চলা লরির ধাক্কায় মৃত্যু হয় একটি বুনো মাকনা হাতির। হাতিটির বয়স পনেরো। সোমবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ আলিপুরদুয়ারের মাদারিহাটের জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যান লাগোয়া এশিয়ান হাইওয়েতে এই মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনাটি ঘটে।

জানা গিয়েছে সেই সময় হাতিটি রাস্তা পার করছিল। লরিটির ধাক্কায় প্রকান্ড হাতিটি প্রায় পনেরো ফুট দূরে ছেঁচড়ে যায়। প্রাথমিক পরীক্ষার পর বনকর্তাদের অনুমান কোমড়ের হাড় ভেঙে গিয়েছে হাতিটির। বন দপ্তরের জলদাপাড়া বনবিভাগের পক্ষ থেকে হাতিটিকে চিকিৎসা করার ও সেখান থেকে উদ্ধার করে প্রাণে বাঁচানোর চেষ্টা চালানো হয় রাতভর। কিন্তু বন দপ্তরের শত চেষ্টা ব্যর্থ করে অবশেষে মঙ্গলবার সকাল সাতটা নাগাদ দুর্ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় হাতিটির।

হাতি মৃত্যু ও লেপার্ড ক্যাটের মৃতদেহ উধাওয়ের কারণ অনুসন্ধান করার আগেই ফের আজ পূর্ণবয়স্ক মাদি লেপার্ডের রহস্য মৃত্যু ও নির্মম ভাবে সেটির লেজ কেটে নিয়ে যাওয়ায় যথেষ্ট উদ্বিগ্ন বন দপ্তর।