লকডাউনের বেহাল দশা সামলাতে সরকারি কর্মচারীদের বেতননের ৫০% এবং পেনশনের ২৫% ছাঁটাই করছে তেলেঙ্গানা, সিঁদুরে মেঘ দেখছে অন্য রাজ্য

3188
লকডাউনের বেহাল দশা সামলাতে সরকারি কর্মচারীদের বেতননের ৫০% এবং পেনশনের ২৫% ছাঁটাই করছে তেলেঙ্গানা, সিঁদুরে মেঘ দেখছে অন্য রাজ্য 1
লকডাউনের বেহাল দশা সামলাতে সরকারি কর্মচারীদের বেতননের ৫০% এবং পেনশনের ২৫% ছাঁটাই করছে তেলেঙ্গানা, সিঁদুরে মেঘ দেখছে অন্য রাজ্য 2

নিজস্ব সংবাদদাতা: লকডাউনের কার্যত শুয়ে পড়েছে রাজস্ব আদায়। সমস্ত কলকারখানা ও ব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ থাকায় রাজ্যের আয় তলানিতে ঠেকেছে। এর জেরে প্রবলভাবে ধাক্কা খেয়েছে অর্থনৈতিক ব্যবস্থা। সরকারি হোক বা বেসরকারি কোন সংস্থাই এই দুই মাসে লাভের মুখ দেখেনি। ফলে তলানিতে রাজ্যের ভাঁড়ার। এই পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বেতনে কোপ পড়তে চলেছে তেলেঙ্গানায়। প্রবল আর্থিক সংকট সামাল দিতে চলতি মে মাসে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের অর্ধেক বেতন কেটে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও।

সরকারি সূত্র মারফৎ জানা যাচ্ছে, সাধারন সময়ে রাজ্যে প্রতি মাসে রাজস্ব বাবদ তেলেঙ্গানা সরকারের গড় আয় ছিল ন্যূনতম ১২,০০০ কোটি টাকা। কিন্তু লকডাউন পর্বে তা এসে দাঁড়িয়েছে এক চতুর্থাংশে। মে মাসের হিসাব বলছে রাজ্য সরকারি কোষাগারে ঢুকেছে মাত্র ৩,১০০ কোটি টাকা। এর মধ্যে আছে কেন্দ্রীয় করের রাজ্যের অংশীদারিত্বের ৯৮২ কোটি টাকা।

লকডাউনের বেহাল দশা সামলাতে সরকারি কর্মচারীদের বেতননের ৫০% এবং পেনশনের ২৫% ছাঁটাই করছে তেলেঙ্গানা, সিঁদুরে মেঘ দেখছে অন্য রাজ্য 3

মুখ্যমন্ত্রী জানাচ্ছেন রাজ্য কর্মচারীদের বেতন এবং পেনশন দিতে হয় মাসে ৩ হাজার কোটি টাকারও বেশি। এই অবস্থায় সম্পূর্ণ রাজ কোষাগার তো শূন্য হয়ে যাবে। তখন সরকারি উন্নয়নের সমস্ত কাজ বন্ধ হয়ে যাবে এবং আপৎকালীন পরিস্থিতি সামাল দেওয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে। ফলে আমাদের কিছু কার্যকরী পদক্ষেপ নিতেই হচ্ছে।
কী সেই কার্যকরী পদক্ষেপ জানার পরে মাথায় হাত পড়েছে তেলেঙ্গানার সরকারি কর্মচারীদের। এমনকি স্বস্তিতে নেই অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীরাও। তেলেঙ্গানা সরকার জানিয়েছেন, চলতি মে মাসে অর্ধেক বেতন কেটে নেওয়া হবে সরকারি কর্মচারীদের। ফলে বেতনের বাকি অর্ধেক টাকা হাতে পাবেন তাঁরা। একইভাবে এই মাসে অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীদের পেনশনের ২৫ শতাংশ কেটে নেবে সরকার। আউট সোর্সিং এবং ঠিকাকর্মীদের ক্ষেত্রে প্রাপ্য অর্থের ১০ শতাংশ কেটে নেওয়া হবে।

শুধু সরকারি কর্মচারী নন, জনপ্রতিনিধি এবং আইএএস, আইপিএস-এর মতো অল ইন্ডিয়া সার্ভিস অফিসারদের বেতনেও কোপ পড়তে চলেছে। জনপ্রতিনিধিদের মে মাসের বেতনের ৭৫ শতাংশ এবং অল ইন্ডিয়া সার্ভিস অফিসারদের বেতনের ৬০ শতাংশ কেটে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তেলেঙ্গানা সরকার। একইভাবে রাজ্যে দারিদ্রসীমার নীচে বা বিপিএল তালিকাভুক্ত পরিবারগুলিকে যে নগদ ১,৫০০ টাকা করে সহায়তা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তেলেঙ্গানা সরকার। মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর সিএমও থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, লকডাউন শিথিল হওয়ায় মজুর ও শ্রমিকদের জন্য দৈনিক কাজের সন্ধানের পথ খুলে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে বিপিএল ভুক্ত পরিবারগুলির জন্য বিশেষ সরকারি আর্থিক সহায়তা বন্ধ করা হচ্ছে। এই সমস্ত পরিবার চলতি মে মাসের আর্থিক সহায়তা পাবে না।

তবে মে মাস জুড়ে ১২ কিলো করে চাল দেওয়ার প্রকল্প অব্যহত থাকছে। সামাজিক সুরক্ষা পেনশন প্রকল্পেও কোনও পরিবর্তন আনা হচ্ছে না।
যদিও বিষয়টা তেলেঙ্গানা রাজ্যের বলে স্বস্তি পাওয়ার উপায় খুব একটা নেই অন্য রাজ্যগুলিরও। তেলেঙ্গানা সরকারের আধিকারিকরা জানাচ্ছেন, সরকারের এই অপ্রিয় সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে একশবার ভাবতে হয়েছে এবং এই পথেই যে অন্য রাজ্যগুলিকেও হাঁটতে হবে তাও নিশ্চিত কারন যদি খুশি করার রাজনীতি করতেই হয় তবে আপনাকে ভাবতে হবে আপনি সমাজের একাংশ নাকি অধিকাংশ মানুষকে খুশি করবেন। তেলেঙ্গানা দ্বিতীয় পথটাই বেছে নিয়েছে।