বাংলায় বহিরাগত আমদানি করছে তৃণমূলই, ডেবরায় বললেন লকেট চ্যাটার্জী

357
বাংলায় বহিরাগত আমদানি করছে তৃণমূলই, ডেবরায় বললেন লকেট চ্যাটার্জী 1

শশাঙ্ক প্রধান: ‘নিজেরা ভোটে জেতার বহিরাগতদের বাংলায় আমদানি করছে আর অন্যদের বলছে বহিরাগত!’ ২০২১ নির্বাচনে বাংলার মসনদ ফিরে পেতে প্রশান্ত কিশোরকে নিয়োগ করেছে তৃনমূল আর তাকেই কটাক্ষ করে লকেট চ্যাটার্জী বলেন, ‘ তৃনমূল আজকাল খুব বহিরাগত, বহিরাগত বলে চেঁচাচ্ছে। তৃনমূলই নাকি বাংলার সংস্কৃতি ধরে রেখেছে। যে দলটা ভোটে জেতার জন্য বাইরের রাজ্য থেকে লোক ভাড়া করে আনে, যাঁরা নিজেদের রাজ্যে নিজেদের কর্মীদের ওপরেই আর আস্থা রাখতে না পেরে বহিরাগতদের কৌশল ব্যবহার করছে তাঁরাই আবার অন্যদের বহিরাগত, বহিরাগত বলে চিৎকার করছে।’

আরও পড়ুন -  চলে গেলেন সবংয়ের মেজো বাবু, জেলার প্রথম করোনা শহিদের জন্য শোকের ছায়া পুলিশ লাইনে

পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরা থানার রাধামোহনপুর এলাকার রিমঝিম মার্কেটের সভায় এসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এমনটাই বললেন বিজেপি সাংসদ লকেট চ্যাটার্জী। বিজেপির রাজ্য নেত্রী বলেন, ‘ রবীন্দ্রনাথের শান্তিনিকেতনের বিশ্বভারতীতে যাঁরা দুষ্কৃতিদের সঙ্গে নিয়ে মিছিল করে বুলডেজার দিয়ে গেট ভাঙে তাঁদের কাছ থেকে কোন সংস্কৃতি আশা করবেন বাংলার মানুষ? এই কাজ করে তাঁরা যেমন রবীন্দ্রনাথের গায়ে আঁচড় দিয়েছে তেমনই এরাই বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে। তৃণমূলের বাঙালি প্রীতি শুধু মুখেই আর ভোট করার বেলায় তাঁরা নিয়ে আসে বহিরাগতদের।” নাম না করেই লকেট চ্যাটার্জী এভাবেই কটাক্ষ করেন তৃণমূলের ভোট বৈতরণী পের হওয়ার জন্য প্রশান্ত কিশোরের নিযোগকে।

এদিন বিজেপির উদ্যোগে লোকসভায় সদ্য পাশ হওয়া কৃষি বিলের সমর্থনে ডিঙ্গল গ্রামের রিমিঝিম বাজারে কৃষক সুরক্ষা কর্মসূচিতে এসে হুগলির সাংসদের দাবি, কংগ্রেস বিভিন্ন রাজ্যে কৃষকদের ভুল বুঝিয়ে কৃষি বিলের বিরুদ্ধে রাস্তায় নামাচ্ছে। আমরা তারই মোকাবিলায় সাংসদ থেকে বুথস্তর নেতা কর্মীরা তাঁরই মোকাবিলায় রাস্তায় নেমেছি। যে সিপিএম, যে তৃনমূল এতদিন বাংলার জন্য কিছুই করেনি শুধু ভোটের বাক্স হিসাবে ব্যবহার করেছে তাঁদের মুখে কৃষি বিল নিয়ে আলোচনা মানায়না।”

আরও পড়ুন -  দাঁতনে উড়ল অস্থায়ী আবাস, মোহনপুরে আহত কিশোর, রক্ষা পেল খড়গপুর মেদিনীপুর, দিঘা এড়িয়ে আমফান সাগরদ্বীপে

সম্প্রতি দলের নেতা অনুপম হাজরা মূখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে যে মন্তব্য করেছেন তাঁকে তিনি সমর্থন করেননা বলে জানিয়ে দিয়ে বলেন, ‘ওটা অনুপমের ব্যক্তিগত মন্তব্য হলেও ওই মন্তব্যকে আমি সমর্থন করিনা। এমন কথা বলা উচিত হয়নি বলে জানিয়েদেন। লকেট আরও জানান,’ রাজ্যপাল সম্পর্কে দিনের পর দিন তৃনমূল যে আচরন করে যাচ্ছে তা শিষ্টাচারের নীতি নৈতিকতাকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে। একজন সাংবিধানিক প্রধান সম্পর্কে তৃনমূল যে মন্তব্য করে চলেছে তা রুচি বহির্ভূত। এদিন সভায় অন্যান্যদের সাথে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি র ঘাটাল সাংগঠনিক জেলার সভানেত্রী অন্তরা ভট্টাচার্য।

বাংলায় বহিরাগত আমদানি করছে তৃণমূলই, ডেবরায় বললেন লকেট চ্যাটার্জী 2