ফেসবুক প্রেমিকার সাথে দেখা করতে গিয়ে পাক সীমান্তে ধৃত ইঞ্জিনিয়ার যুবক

67
ফেসবুক প্রেমিকার সাথে দেখা করতে গিয়ে পাক সীমান্তে ধৃত ইঞ্জিনিয়ার যুবক 1

নিজস্ব সংবাদদাতা: প্রেম কোনও সীমান্ত মানেনা বোধহয়, প্রেম কোনও মানেনা রাষ্ট্র। সে ঘটনাই আবার প্রমানিত হল গুজরাটের পাক সীমান্তে। যেখানে পাকিস্তান প্রেমিকার সাথে দেখা করতে গিয়ে করতে গিয়ে আন্তর্জাতিক সীমানা পেরুতে গিয়ে গ্রেপ্তার হলেন মহারাষ্ট্রের ২০ বছর বয়সী এক ইঞ্জিনিয়ারিং যুবক। পুলিশ জানিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায় পরিচয় হওয়া পাকিস্তানের এক যুবতীর সঙ্গে দেখা করতে কচ্ছের রান মরুভূমির মধ্যে দিয়ে সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তানে প্রবেশের চেষ্টা করছিল ওই যুবক। পায়ে হেঁটে সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তান প্রবেশ করার সময় বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স বা বিএসএফের হাতে ধরা পড়ে যায় সে।

পুলিশ জানিয়েছে, যুবকের নাম জিসান মহম্মদ সিদ্দিকী। বাড়ি মহারাষ্ট্রর ওসমানাবাদ শহরের খাজনগড় এলাকায়। পূর্ব কচ্ছ এলাকার পুলিশ সুপার পরীক্ষিত রাঠোর জানিয়েছেন, ‘ বৃহস্পতিবার রাতে টহলরত বিএসএফ জওয়ানদের হাতে ধরা পড়ে ওই যুবক পরে তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।’
রাঠোর জানিয়েছেন, “বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা বেলাতেই রানের কচ্ছ এলাকার ধোলাবীরা গ্রামের কাছ থেকে পাওয়া মহারাষ্ট্রর রেজিস্ট্রেশন করা বাইক উদ্ধার করার পরই সতর্কতা জারি করেছিল পুলিশ। তার কয়েকঘন্টা পরেই বিএসএফ ওই যুবককে ধরে। যুবক হেঁটেই পাকিস্তান সীমান্তের পথে এগিয়ে ছিল। ”

মহারাষ্ট্র পুলিশ সূত্রে জানা গেছে গত ১১ই জুলাই ওই যুবক প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করার উদ্দেশ্য বাড়ি থেকে বের হয়। যেহেতু লকডাউন চলছে তাই অন্য কোনও পরিবহন না পেয়ে বাইকে করেই কচ্ছের মধ্যে দিয়ে পাকিস্তানে প্রবেশের চেষ্টা করেছিল।
সূত্র মারফৎ জানা গেছে, কচ্ছের মরুভূমি এলাকার বালির মধ্যে ওই যুবকের বাইক বসে যাচ্ছিল বলে বাইক ফেলেই সে হাঁটতে শুরু করে কয়েকমাস আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় আলাপ হওয়া প্রেমিকার সাথে দেখা করার উদ্দেশ্যে। ওসামানাবাদের পুলিশ সুপার রাজতিলক রোশন জানিয়েছেন, ‘যুবক বাড়ি থেকে বেরুনোর পর কয়েক ঘন্টা পেরিয়ে যাওয়ার পরও ফিরে না আসায় তার পরিবারের লোকেরা ওসমানাবাদ শহর পুলিশে একটি নিখোঁজ অভিযোগ দায়ের করে।’

আরও পড়ুন -  দিঘায় পর্যটক পরিবারের সর্বস্ব খোয়ানোর ঘটনায় দায় হোটেল কর্তৃপক্ষেরই , জানালো পুলিশ

” পুলিশ ওই যুবকের সোশ্যাল মিডিয়ার আ্যকাউন্ট ঘেঁটে দেখেছে যে ওই যুবতীর জন্যই বাড়ি ছেড়ে ছিল সে।” রোশন জানান। ওই মোবাইলটি বর্তমানে ওসমানাবাদ সাইবার ক্রাইমের জিম্মায় রয়েছে। তাঁরা পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। গুজরাট পুলিশকেও যুবক তাই বলেছে। বিএসএফের কাছে আটক হওয়ার পর সীমান্ত বাহিনীর আধিকারিকদের জিজ্ঞাসাবাদের সময়ও যুবক ওই কথাই বলেছে বলে অন্য একটি সূত্রে জানা গেছে।
ওসামানাবাদের পুলিশ জানিয়েছে, পাকিস্তানের যুবতীর সাথে ওই যুবকের বিনিময় হওয়া কিছু ম্যাসেজ কথোপকথন উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই যুবককে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে বাড়ি আনার জন্য মহারাষ্ট্র পুলিশের একটি দল কচ্ছের উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে গেছে।

আরও পড়ুন -  উচ্চমাধ্যমিককে স্টার না পেলেও ভর্তি হওয়া যাবে আইআইটিতে

একটি লিখিত বিবৃতিতে বিএসএফ জানিয়েছে, ” সিদ্দিকীকে গ্রেপ্তারের পর সে জানিয়েছে যে পাকিস্তানের করাচি শহরে অবস্থিত প্রেমিকার সঙ্গে মিলিত হওয়ার জন্যই সে সীমান্ত অতিক্রম করতে চাইছিল সে। কিন্তু ভারত-পাকিস্তান আন্তর্জাতিক সীমান্ত থেকে দেড় কিলোমিটার আগে শরীরে জলশুন্য হয়ে পড়ায় সংজ্ঞা হারিয়ে রানের মরুভূমিতে পড়ে যায় সে। ওই অবস্থায় প্রায় ২ ঘন্টা পড়েছিল যুবক।”

ফেসবুক প্রেমিকার সাথে দেখা করতে গিয়ে পাক সীমান্তে ধৃত ইঞ্জিনিয়ার যুবক 2