বাচ্চা মেয়ের তত্ত্ব মুখ্যমন্ত্রীর! বললেন, আমাদের ঘরের মা-বোনেরা কয়লা চোর? হুগলিতে তারকাদের তৃনমূল যোগ

94
বাচ্চা মেয়ের তত্ত্ব মুখ্যমন্ত্রীর! বললেন, আমাদের ঘরের মা-বোনেরা কয়লা চোর? হুগলিতে তারকাদের তৃনমূল যোগ 1

অশ্লেষা চৌধুরী: “বাড়ীতে ঢুকে বাচ্চা মেয়ে, বউ, তাকে কয়লাচোর বলছেন? কয়লাচোরদের নিয়ে নিজে কোলে তুলে বেড়াচ্ছেন। আমাদের ঘরের মা-বোনেরা কয়লা চোর? হুগলির ডানলপের জনসভায় গর্জে উঠলেন মমতা। সেইসাথেই প্রকাশ্য জনসভায় মুখ্যমন্ত্রীর আহ্বান এসো খেলা হবে খেলে দেখো। পাশাপাশি এদিন নাম না করে দেশের প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে হোঁদল কুতকুত ও কিম্ভুত কিমাকার বলেও কটাক্ষ করেন তিনি।

বাচ্চা মেয়ের তত্ত্ব মুখ্যমন্ত্রীর! বললেন, আমাদের ঘরের মা-বোনেরা কয়লা চোর? হুগলিতে তারকাদের তৃনমূল যোগ 2

হুগলির ডানলপ ময়দানে ১২ টা নাগাদ জনসভা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সোমবার প্রধানমন্ত্রীর জনসভার পাল্টা এই জনসভা করেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনের জনসভার ক্রিকেটার মনোজ তিওয়ারি সহ এক ঝাঁক টলি তারকা যোগ দিলেন শাসক শিবিরে। তাঁর মধ্যে রাজ চক্রবর্তী, কাঞ্চন মিত্র, সায়নী ঘোষ সহ অনেকেই রয়েছেন।

বাচ্চা মেয়ের তত্ত্ব মুখ্যমন্ত্রীর! বললেন, আমাদের ঘরের মা-বোনেরা কয়লা চোর? হুগলিতে তারকাদের তৃনমূল যোগ 3

এদিনের জনসভা থেকে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সহ বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ শানান নেত্রী। সোমবার ডানলপেই ছিল প্রধানমন্ত্রীর সভা। এখানে সেদিন একাধিক রেল ও মেট্রো প্রকল্পের সূচনা করেন নরেন্দ্র মোদী। সেই প্রসঙ্গ তুলে এদিন মমতা বলেন, “বলছে হামনে সব কর দিয়া। তারকেশ্বর লাইন কে করেছিল? বুকের পাটা থাকলে বলুন কে করেছিল। আমি রেলমন্ত্রী থাকাকালীন করে দিয়েছি। দক্ষিণেশ্বর-নোয়াপাড়া মেট্রো আমি করেছি। তুমি ফিতে কেটেছো। লজ্জাও করে না। করল কে? দিল কে? লড়ল কে?”

এদিন নাম না করেই তিনি প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে দৈত্য ও দানব বলে কটাক্ষ করেন। তিনি বলেন, “একটা পার্টি। একজন দানব, আরেকজন দৈত্য। একজন রাবণ, আরেকজন দানব। গায়ের জোর। আর খুচরো চুনো পুঁটির দল। বড্ড বেশি কথা বলছে। দুটো মাস সহ্য করতে হবে। তারপর দেখব কার কত জোর। পেশিবল নয়, গণতন্ত্রের জোর। ” আরও বলেন, “দেশের প্রধানমন্ত্রী মিথ্যে বলছে। আমি প্রধানমন্ত্রী পদটাকে সম্মান করি। আজ আছেন, কাল থাকবেন না। এই দেশে দু’টো নেতা। একটা হচ্ছে হোঁদল কুতকুত। এর ইংরেজি, হিন্দি কী জানি না। ক্লাসিকাল বাংলা শব্দ। আরেকটা কিম্ভূত কিমাকার।”

শুধু তাই নয়, বিজেপিকে দাঙ্গাবাজের দল বলেও আখ্যা দেন মমতা। বলেন, “কথায় কথায় বলেন, তৃণমূল তোলাবাজ। আপনি সবথেকে বড় দাঙ্গাবাজ। ধান্দাবাজ। ৫-১০ টাকা তুললে তাকে তোলাবাজ বলে। যাঁরা কোটি কোটি টাকা তোলেন? দেশ কে দেশ বিক্রি করে দেন। কাটমানি খান। তাঁরা কি ক্যাটমানি খান না র‍্যাটমানি? নেংটি ইঁদুরের দল সব। বড় বড় কথা।” “ আমাদের ডানলপ অধিগ্রহণ করতে দেওয়া হয়নি। নিজেও কিছু করেননি, আমাদেরও করতে দেননি। আর ডানলপে এসে বড়বড় কথা বলে যাচ্ছেন?‘ ধিন তাক ধিন তাক ধা- হুগলি নিয়ে যা।“ মমতা যোগ করেন।

কয়লাকাণ্ডে অভিষেক পত্নীকে সিবিআই নোটিশ প্রসঙ্গেও সরব হন মমতা। তীব্র ক্ষোভ উগরে মমতা বলেন, “বাড়ীতে ঢুকে বাচ্চা মেয়ে, বউ, তাকে কয়লাচোর বলছেন? কয়লাচোরদের নিয়ে নিজে কোলে তুলে বেড়াচ্ছেন। আমাদের ঘরের মা-বোনেরা কয়লা চোর? এত বড় সাহস, মা-বোনেদের কয়লা চোর বলছেন। কয়লা চোরদের হোটেলে থাকছেন। আপনার সারা গায়ে ময়লা লেগে আছে। আপনাদের চরিত্র সোনা-রুপোয় বাঁধিয়ে দিতে হয়। কী ভাবেন, কেস জানি না? সব জানি। খারাপ কথাটা খারাপ ভাষায় বলতে জানি না। লাগাম রাখতে হয়। ”

এদিনের সভা থেকে মমতা বিজেপিকে পুরো সাফ করার হুঁশিয়ারিও দিয়ে বসেন একপ্রকার। তিনি আওয়াজ তোলেন, “মায়েদের উলুধ্বনি ভাইয়েদের হাততালি, এবার বিজেপিকে আমরা করব খালি।“ সেইসাথেই মমতা এদিন বিরোধীদের উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে বলেন, ”খেলা একটাই হবে একুশের সাধারণ নির্বাচনে। একদিকে সিপিএম-কংগ্রেস-বিজেপি, একদিকে তৃণমূল। আমি গোলরক্ষক। আমি দেখতে চাই কটা গোল মারতে পারেন। একটাও মারতে পারবেন না।। বারপোস্টের ওপর দিয়ে বেরিয়ে যাবে।”

Previous articleমহড়া চলাকালীন বন্দুকের নল ফেটে বিস্ফোরণ,প্রাণ খোয়ালেন বঙ্গের সেনা জওয়ান
Next articleঘটনাস্থলে ছিলেন না,ফাঁসানো হয়েছে-দাবী স্থলবন্দর ভাঙচুর কান্ডে ধৃত প্রসেনজিৎ রায়ের