‘মেদিনীপুর’ই সেরা, জয়জয়কার জেলার, মেধাতালিকায় নেই কলকাতা, দেখুন মেধাতালিকা

141
'মেদিনীপুর'ই সেরা, জয়জয়কার জেলার, মেধাতালিকায় নেই কলকাতা, দেখুন মেধাতালিকা 1

নিজস্ব সংবাদদাতা: ফের সেরার ছিনিয়ে নিল সেই মেদিনীপুরই। বুধবার প্রকাশিত হওয়া এ বছরের মাধ্যমিকের ফল বের হওয়ার পর দেখা গেল পাশের হারে এগিয়ে আছে পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর। আগের কয়েকবারের মতই নজির সৃষ্টি করে পাশের হারে প্রথম হয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর পাশাপাশি এবার দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের নামও।
বুধবার সাংবাদিক বৈঠকে পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করেছেন মধ্যশিক্ষা পর্ষদের চেয়ারম্যান কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়। পাসের হারে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হল এ বছর। পাসের হার আগের বছরের তুলনায় সামান্য বেড়ে হয়েছে ৮৬.৩৪ শতাংশ। ছাত্রদের মধ্যে পাশের হার ৮৯.৮৭%। ছাত্রীদের মধ্যে পাশের হার ৮৩.৪৭ শতাংশ।

এ বছর মোট পরীক্ষার্থী ১০ লক্ষ ৩ হাজার ৬৬৬ জন। তার মধ্যে পাস করেছে আট লক্ষ ৪৩ হাজার ৩০৫ জন।  পাশের হার সবচেয়ে বেশি পূর্ব মেদিনীপুরে, ৯৬.৫৯ শতাংশ। পাশের হারে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে যথাক্রমে পশ্চিম মেদিনীপুর (৯২.১৬ শতাংশ) ও কলকাতা (৯১.০৭ শতাংশ)। কলকাতার পরেই রয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা ৯০.৬০ শতাংশ এবং হাওড়া ৮৭.৬৩ শতাংশ।

একনজরে দেখে নিন মেধাতালিকা:
প্রথম: মেমারি বিদ্যাসাগর মেমোরিয়াল হাইস্কুলের ছাত্র অরিত্র পাল। প্রাপ্ত নম্বর: ৬৯৪।
দ্বিতীয়: মোট ২জন দ্বিতীয় স্থানাধিকারী। বাঁকুড়ার ওন্দা হাইস্কুলের ছাত্র সায়ন্তন গড়াই, কাটোয়ার কাশীরাম দাস ইনস্টিটিউশনের পড়ুয়া অভীক দাস। প্রাপ্ত নম্বর: ৬৯৩।
তৃতীয়: কেন্দুয়াডিহি হাইস্কুলের ছাত্র সৌম্য পাঠক। দেবস্মিতা মহাপাত্র এবং রহড়া রামকৃষ্ণ মিশন হোমের ছাত্র অরিত্র মাইতি। প্রাপ্ত নম্বর: ৬৯০।

আরও পড়ুন -  ক্রান্তিকালের মনীষা-৭|| অনিন্দিতা মাইতি নন্দী

চতুর্থ: বীরভূম জেলা স্কুলের পড়ুয়া অগ্নিভ সাহা। প্রাপ্ত নম্বর: ৬৮৯।
পঞ্চম: পঞ্চম হয়েছে ৪ জন। বংশীহারি হাইস্কুলের ছাত্র অঙ্কিত সরকার, স্বস্তিক সরকার, রশ্মিতা সিনহা মহাপাত্র, বিভা বসু মণ্ডল।
ষষ্ঠ: ষষ্ঠ হয়েছে ১২ জন।শিলিগুড়ি গার্লস হাইস্কুলের রিঙ্কিনি ঘটক। রায়গঞ্জ করোনেশন হাইস্কুলের অর্চিস্মান সাহা রাজিবুল ইসলাম, বাঁকুড়া খ্রিস্টান কলেজিয়েট স্কুলের সৃজন সাহা, দক্ষিণচক হাইস্কুলের অরিজিৎ গুহ রায়, সপ্তর্ষি জানা, অশোকনগর বাণীপীঠ গার্লস হাইস্কুলের অস্মি চৌধুরি। হাওড়ার সৌহার্দ পাত্র। তাদের প্রাপ্ত নম্বর: ৬৮৭।

আরও পড়ুন -  দলের ভাবমূর্তি রক্ষার্থে দুর্নীতিগ্রস্তদের শোকজ তৃণমূলের

সপ্তম: সপ্তম হয়েছে ১৭ জন। করণ দত্ত, ঋতম বর্মন, সোহম তামাং, অরণী চট্টোপাধ্যায়, অরিত্র মাঝি, সাগ্নিক মিত্র কেন্দুয়া, বর্ধমান সিএমএইচ হাইস্কুলের শৌভিক সরকার, দিব্যকান্তি ঘোড়ই, সম্প্রীতি কুণ্ডু, পিয়াস প্রামাণিক, সাহিত্য মণ্ডল, শহিদ মহম্মদ শামিম।
অষ্টম: অষ্টম হয়েছেন ১১ জন। তাদের প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৫। তালিকায় রয়েছে নাসমিন আজাদ, মহম্মদ তাহিনুজ্জামান, সুপ্রতীক পণ্ডিত, অঙ্কিতা ঘোষ, শুভঙ্কর মাইতি-সহ আরও অনেকে।
নবম: নবম স্থানাধিকারী অনেকেই। তাদের প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৪।                                                   দশম: মাধ্যমিকে দশম স্থানাধিকারীরা পেয়েছেন ৬৮৩ নম্বর।
মেধাতালিকায় মোট ৮৪ জনের নাম প্রকাশ করা হয়েছে। তবে এই তালিকায় নেই কলকাতার কোনও পড়ুয়া। ২২ জুলাই রাজ্যের ৪৯টি কেন্দ্র থেকে মার্কশিট বিলি করা হবে।

আরও পড়ুন -  প্রয়াত প্রখ্যাত গায়ক-অভিনেতা শক্তি ঠাকুর, বাবার মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ দুই মেয়ে মেহুলি-মোনালি

 

'মেদিনীপুর'ই সেরা, জয়জয়কার জেলার, মেধাতালিকায় নেই কলকাতা, দেখুন মেধাতালিকা 2