নিয়োগ তালিকায় ১৩ টি পদে মন্ত্রীর বৌমা! অথচ ব্রাত্য ডিগ্রীধারীরা

542
নিয়োগ তালিকায় ১৩ টি পদে মন্ত্রীর বৌমা! অথচ ব্রাত্য ডিগ্রীধারীরা 1
নিয়োগ তালিকায় ১৩ টি পদে মন্ত্রীর বৌমা! অথচ ব্রাত্য ডিগ্রীধারীরা 2

নিউজ ডেস্ক: একটা বা দুটো নয়, একেবারে ১৩ টি পদে নিয়োগের তালিকায় নাম উঠে এসেছে শাসক দলের মন্ত্রীর বৌমার, অথচ ব্রাত্য ডিগ্রীধারীরাই। আর এতেই চাকরি ক্ষেত্রে বড়সড় দুর্নীতিতে নাম জড়িয়ে গেল রাজ্যের শ্রম প্রতিমন্ত্রী তথা তৃণমূলের ডাক্তার নেতা নির্মল মাঝির বিরুদ্ধে।

 

নিয়োগ তালিকায় ১৩ টি পদে মন্ত্রীর বৌমা! অথচ ব্রাত্য ডিগ্রীধারীরা 3

দুদিন আগে অর্থাৎ ১৫ ফেব্রুয়ারি শিক্ষক-চিকিৎসক পদে মোট ৬৪৭ জন প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ করেছিল রাজ্যের হেলথ রিক্রুমেন্ট বোর্ড। তালিকা প্রকাশ্যে আসতে দেখা যায় রাজ্যের মন্ত্রী নির্মল মাঝির ছেলে অমৃতেশ মাঝি MBBS পাশ হয়ে বাঙুরের RMO হয়েছেন, কিন্তু ডিগ্রি থাকার পরেও অনেকে সেই তালিকায় জায়গা পাননি। এছাড়াও নির্মল মাঝির পুত্রবধূ মেডিক্যাল কলেজের ১৩ টি বিভাগে নিয়োগপত্র পেয়েছেন। সেখানেও বঞ্চিত হয়েছেন ডিগ্রিধারীরা।

নির্মল মাঝির পরিবার ছাড়া তৃণমূল ঘনিষ্ঠ ডাক্তার দীপাঞ্জন হালদার একসঙ্গে ছয়টি এবং সঞ্চারী চক্রবর্তী একসঙ্গে তিনটি বিভাগের নিয়োগপত্র পেয়েছে। এছাড়াও MD, MS পাশ করা ডাক্তারদের চ্যান্স না দিয়ে তৃণমূল ঘনিষ্ঠ স্টাফদের অনেক সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে।

এই ঘটনায় হেলথ রিক্রুমেন্ট বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রদীপ কুমার সুর জানিয়েছেন, MBBS পাশ করলেই শিক্ষক-চিকিৎসক পদে আবেদন করা যায়। কেউ যদি চায়, তাহলে সে আলাদা আলদা বিভাগে আবেদন করতেই পারে। তিনি আরও জানান, প্রত্যেকটি বিভাগের জন্যই আলাদা আলাদা করে ইন্টারভিউ নেওয়া হয়ে থাকে।
সেইসাথেই প্রদীপ কুমার সুর জানান, ‘নো অবজেকশন সার্টিফিকেট জমা দিতে না পারায় অনেক পোস্ট ডক্টরাল ডিগ্রিধারীদের আবেদন বাতিল করা হয়েছে। আমরা শুধু ইন্টারভিউ নিয়ে তালিকা তৈরি করে দিয়েছি। এরপর স্বাস্থ্য দফতর ঠিক করেছে কাকে কোথায় নিয়োগ করতে হবে।‘ তবে, স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা এই বিষয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া দিতে রাজি হন নি।

কিন্তু বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যের মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ওঠা এমন অভিযোগের পর শাসক শিবির যে বেশ কিছুটা বিপাকে পড়েছে, তা বলাবাহুল্য।