নিখোঁজ বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া, থানায় মিসিং ডায়েরি তৃণমূলের

565
নিখোঁজ বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া, থানায় মিসিং ডায়েরি তৃণমূলের 1

ওয়েব ডেস্ক : দোরগোড়ায় বিধানসভা নির্বাচন। এদিকে খোঁজ নেই বর্ধমান দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়ার। কোথায় গেলেন সাংসদ? তিনি নিখোঁজ কিনা এই প্রশ্নেই এই মূহুর্তে শোরগোল পড়ে গিয়েছে গোটা রাজ্য–রাজনীতিতে। কিন্তু অবাক কান্ড! বিজেপি সাংসদ নিখোঁজ, অথচ দুর্গাপুরের কোকওভেন থানায় গিয়ে বিজেপি সাংসদের নামে নিখোঁজের অভিযোগে মিসিং ডায়েরি করলেন তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা। বিজেপি সাংসদকে খুঁজতে আচমকা তৃণমূল কর্মীদেরই বা এত তোড়জোড় কেন? এই ঘটনা দেখে স্বাভাবিকভাবেই শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

স্থানীয়দের তরফে জানা গিয়েছে, আসলে নির্বাচনের আগে হাজার প্রতিশ্রুতি দিলেও আদতে বেশ কয়েকমাস যাবৎ এলাকায় দেখা নেই বিজেপি সাংসদ সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়ার।এর জেরে স্বাভাবিকভাবেই অসুবিধার মধ্যে রয়েছে স্থানীয়রা। পরিস্থিতি দেখে ওই লোকসভা কেন্দ্রের প্রাক্তন সাংসদ তথক তৃণমূল কংগ্রেসের মমতাজ সংঘমিত্রা চৌধুরী দলীয় কর্মীদের থানায় গিয়ে বিজেপি সাংসদ সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া নিখোঁজের বিষয়ে মিসিং ডায়েরি করার পরামর্শ দেন। দলীয় নেত্রীর কথা মতো বিজেপি সাংসদকে খুঁজে পেতে থানায় মিসিং ডায়েরিও করেন শাসকদলের কর্মীরা। এমনকি থানাও সেই মিসিং ডায়েরি নিয়েছে বলেই জানা গিয়েছে। আর এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই স্বাভাবিকভাবেই গোটা এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

এদিকে সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। তার ওপর একেই বিজেপি সাংসদের দেখা মেলেনা এলাকায়, তারওপর তৃণমূলের এই পদক্ষেপ স্বাভাবিকভাবেই আসন্ন নির্বাচনে যে গেরুয়া শিবিরের চাপ অবেকটাই বাড়বে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। এবিষয়ে তৃণমূলের পশ্চিম বর্ধমান জেলা সাধারণ সম্পাদক চন্দ্রশেখর বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “একের পর এক কারখানা ধুঁকছে, বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। এলাকার মানুষ অসহায় হয়ে পড়ছে। অথচ কোনও খোঁজই নেই সাংসদের। এলাকায় শেষ কবে তাঁর দেখা মিলেছে, কেউ বলতে পারছেন না। আমরা তাই বাধ্য হয়ে পুলিশকে তাঁর নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার কথা জানালাম।”

আরও পড়ুন -  মোদির লক আউট ভেঙেই যোগীর রাম পুজো, অবাক সারা দেশ

ঘটনায় এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, ভোটের আগে এলাকার উন্নতির জন্য একাধিক প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন বিজেপি সাংসদ সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া। সে অনুযায়ী সাধারণ মানুষ তাকে ভোট দিয়েছিলেন। কিন্তু ভোট শেষ হতেই দু-একবার দেখা গেলেও কয়েকমাস যাবৎ একেবারেই বেপাত্তা বিজেপি সাংসদ। এমনকি সম্প্রতি বর্ধমান স্টেশন ভেঙে পড়ার পর তাতে একজনের মৃত্যু হয়েছিল। কিন্তু সেই ঘটনার পরও দেখা মেলেনি সাংসদের। যদিও এই অভিযোগ একেবারেই উড়িয়ে দিয়েছে জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। গেরুয়া শিবিরের তরফে পাল্টা তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ মমতাজ সংঘমিত্রা চৌধুরীকে কাঠগড়ায় তুলে পালটা অভিযোগ করেন, মানুষের জন্যে কোনও কাজ করেননি বলেই লোকসভা নির্বাচনে হেরে গিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ। বিজেপি সাংসদ অনেক কাজ করছেন। কিন্তু সেগুলি না দেখে অপপ্রচার করছে রাজ্যের শাসকদল।

নিখোঁজ বর্ধমান-দুর্গাপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া, থানায় মিসিং ডায়েরি তৃণমূলের 2