Homeএখন খবরবিতর্কের মুখে পড়ে তড়িঘড়ি সিদ্ধান্তে বদল, করোনা যোদ্ধাদের বিমা প্রকল্প পুনরায় চালুর...

বিতর্কের মুখে পড়ে তড়িঘড়ি সিদ্ধান্তে বদল, করোনা যোদ্ধাদের বিমা প্রকল্প পুনরায় চালুর নির্দেশ কেন্দ্রের

Advertisement

নিউজ ডেস্ক: ২৪ ঘন্টা না পেরোতেই সিদ্ধান্তে বদল; পুনরায় চালু হয়ে গেল করোনা যোদ্ধাদের জন্য বন্ধ হয়ে যাওয়া বিমা পরিষেবা। অবিলম্বে মেয়াদ উত্তীর্ণ বিমা পুনরায় চালু করার নির্দেশ দিল কেন্দ্রীয় সরকার। মঙ্গলবারই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ প্যাকেজের মেয়াদ বাড়ানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। এক বছর মেয়াদের এই প্রকল্প শুরু হওয়ার ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের জারি করা নতুন নির্দেশিকায় বিমা সংস্থাকে অবিলম্বে পুনরায় চালু করার নির্দেশ দেওয়া হয়। তার জন্য যাবতীয় অর্থ শীঘ্রই বরাদ্দ করা হবে বলেও স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। এবিষয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের জারি করা ওই চিঠিটি নিজের ট্যুইটার পেজে পোস্ট করেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘করোনা আবহে যে সমস্ত করোনা যোদ্ধার মৃত্যু হবে, তাঁদের পরিবারকে আর্থিক সাহায্য জন্যই প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ প্যাকেজ রয়েছে।’ তিনি আরও লেখেন, ‘ আমি আনন্দের সঙ্গে ঘোষণা করছি যে, ১ বছর মেয়াদি এই পরিকল্পনা আজ থেকেই পুনরায় চালু করা হল।’

সম্প্রতি প্রথম সারির করোনা যোদ্ধাদের জন্য করা ৫০ লাখ টাকা এই বিমার মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গিয়েছিল। ফলে রাতারাতি তা বন্ধ হয়ে যায়। সেই কারণে চরম অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদীর সরকারকে। করোনা যোদ্ধাদের জন্য বিমা বন্ধ হওয়ায়, কটাক্ষ করতে ছাড়েননি বিরোধীরা। ঘরে-বাইরে চাপে পড়ে অবশেষে ওই বিমার পুনর্নবীকরণের সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্রীয় সরকার। এক বছর মেয়াদের ওই বিমা আজ থেকেই পুনর্নবীকরণ করে দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গতবছর মার্চ মাস থেকে শুরু হয়েছিল লকডাউন।সেই বছরই কেন্দ্রীয় সরকার প্রথম করোনা অতিমারীর সম্মুখীন হওয়ার পর, হাসপাতালের চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের ‘করোনা যোদ্ধা’ আখ্যা দেয়। এমনকি হেলিকপ্টার থেকে পুষ্প বৃষ্টি করে তাঁদের সম্মান জানায়। এই করোনাকালে চিকিৎসা পরিষেবা দিতে গিয়ে তাঁরা নিজেরাও আক্রান্ত হয়েছেন। এমনকি প্রাণ হারিয়েছেন অনেকেই। তাই তাঁদের ও তাঁদের পরিবারের কথা ভেবে, ৫০ লক্ষ টাকার জীবনবিমা প্রকল্পের ব্যবস্থা করে কেন্দ্র। এই তালিকায় ছিলেন, সাফাই কর্মী ও আশা কর্মীরাও ছিলেন। তবে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে যখন দেশ বিপর্যস্ত, সেই সময় চুপিসারে ঐ বিমা প্রকল্প বন্ধ করে দিতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যসচিব রাজেশ ভূষণ রাজ্যগুলিকে চিঠি দিয়েছেন বলে জানা যায়, গত ১৯ তারিখ। সেখানে বলা হয়, করোনা যোদ্ধাদের জন্য ঘোষিত জীবনবিমা প্রকল্পের মেয়াদ আর বাড়ানো হবে না। তবে পরিস্থিতি বিবেচনায় ও বিরোধীদের কটাক্ষের মুখে পড়ে তড়িঘড়ি সেই সিদ্ধান্তে বদল এনে, বাড়ানো হল বিমা প্রকল্পের মেয়াদ।

Advertisement

Advertisement

RELATED ARTICLES

Most Popular