ঘরোয়া পদ্ধতিতেই ধামাকা মুকেশ আম্বানির, আগামী বছরই ভারতে আসছে 5-G

182
Advertisement

বিশেষ সংবাদদাতা: প্রযুক্তির দুনিয়ায় ফের বড়সড় ধামাকার ঘোষনা করলেন রিলায়েন্সের কর্ণধার মুকেশ অম্বানি। বুধবার সংস্থার বার্ষিক সভায় মুকেশ ঘোষণা করেছেন যে ২০২১ বাজারে আসতে চলেছে 5-G পরিষেবা। মুকেশ বলেছেন ‘আত্মনির্ভর ভারত’-এর বার্তা দিয়ে ভারতেই 5G সলিউশন তৈরি করেছে ফেলেছে জিও।
বুধবার রিলায়েন্সের ৪৩ তম বার্ষিকী সভায় মুকেশ অম্বানি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ‘আত্মনির্ভর ভারত’-এর যে লক্ষ্য, তার উপর ভিত্তি করেই দেশেই এই পরিষেবা দেওয়ার সবরকম প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

Advertisement

এদিন তিনি বলেন, জিও বর্তমানে সাধারণ মানুষের ডিজিটাল লাইফলাইন হয়ে উঠেছে। সম্প্রতি জিও-তে যেসব বিনিয়োগ এসেছে, তাতে সংস্থার অবস্থান আরও পোক্ত হয়েছে। বর্তমানের জিও-র কোনও ঋণ নেই বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।প্রযুক্তি ক্ষেত্রে আরও উন্নতি করার জন্য ইনটেল ও টেলিকমের সঙ্গে কাজ করবে জিও।
তিনি আরও জানিয়েছেন, গুগল রিলায়েন্স জিও প্ল্যাটফর্মে ৩৩,৭৩৭ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে।

Advertisement
Advertisement

বিজ্ঞানীরা বলছেন, আমাদের স্মার্টফোন দিয়ে যাই করি না কেন, ফাইভ জি হলে তা আরো দ্রুত গতিতে এবং ভালোভাবে করতে পারব কিন্তু এটাই বড় কথা নয়,
অগমেন্টেড রিয়েলিটি, মোবাইল ভার্চুয়াল রিয়েলিটি, উন্নত মানের ভিডিও- যেসব ইন্টারনেট এখনকার শহুরে জীবনকে আরো স্মার্ট করে তুলছে। কিন্তু 5-G এমন অনেক নতুন সেবা আসবে, যা আমরা এখনো ভাবতে পারছি না।
যেমন ড্রোনের মাধ্যমে গবেষণা এবং উদ্ধার কার্যক্রম পরিচালনা হবে, অগ্নি নির্বাপণে সহায়তা করবে। আর সেসবের জন্যই ফাইভ জি প্রযুক্তি সহায়ক হবে।
অনেকে মনে করেন, চালক বিহীন গাড়ি, লাইভ ম্যাপ এবং ট্রাফিক তথ্য পড়ার জন্যও ফাইভ জি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে।
মোবাইল গেমাররা আরো বেশি সুবিধা পাবেন। ভিডিও কল আরো পরিষ্কার হবে। সহজেই ও কোনরকম বাধা ছাড়াই মোবাইলে ভিডিও দেখা যাবে। শরীরে লাগানো ফিটনেস ডিভাইসগুলো নিখুঁত সময়ে সংকেত দিতে পারবে, জরুরী চিকিৎসা বার্তাও পাঠাতে পারবে।
অম্বানি আরও জানিয়েছেন যে জিও এমন প্রযুক্তির কথা ভাবছে, যাতে শুধু ভারত নয় সারা বিশ্বের মানুষ উপকৃত হবেন।