মারাঠি ভাষায় বিবৃতি লিখে জোর করে সই করিয়েছে মুম্বাই পুলিশ, বিস্ফোরক দাবি সুশান্ত পরিবারের

152

ওয়েব ডেস্ক : সুশান্ত মৃত্যু ঘটনায় প্রতিদিনই নতুন নতুন তথ্য উঠে আসছে। ঘটনায় এবার মুম্বাই পুলিশের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মন্তব্য করলো সুশান্তের পরিবার। তাদের দাবি, সুশান্তের মৃত্যুর পর মুম্বই পুলিশ পরিবারের কাছ থেকে যে বিবৃতি নিয়েছিল, তা আদতে মারাঠি ভাষায় লেখা হয়েছিল। ফলে তাতে কী লেখা ছিল, তা বুঝে ওঠার আগেই মুম্বাই পুলিশ একপ্রকার জোর করেই তাতে সুশান্তের পরিবারের কাছ থেকে সই করিয়ে নেওয়া হয়েছিল। বুধবার সাংবাদিক বৈঠকে সেকথাই স্পষ্টভাবে জানালেন সুশান্তের পারিবারিক আইনজীবী বিকাশ সিং।

এবিষয়ে এদিন আইনজীবী বিকাশ সিং জানান, ”সুশান্তের পরিবার কোনওদিনই বিবৃতিতে বলেনি, যে অভিনেতা আত্মহত্যা করেছেন। এমনকি তাঁর পরিবারের বিবৃতি যখন মারাঠিতে লেখা হচ্ছিল, সুশান্তের পরিবার তাতে বাধা দেয়। তবে সেটা মুম্বই পুলিস গ্রাহ্য করেনি। উল্টো একপ্রকার জোর করে তাতে সই করিয়ে নেয়।” পাশাপাশি তিনি আরও বলেন ”বিবৃতি মুখে বলা হলেও তা লেখা হয়েছিল মারাঠিতে। ফলে মারাঠি ভাষা না জানার কারণে সেটা সুশান্তের পরিবারের কারোর পক্ষেই পড়া সম্ভব ছিল না। ফলে মুম্বাই পুলিশ যেটা মুখে পড়ে শুনিয়েছেন, সেটাই লেখা রয়েছে কিনা, তা মারাঠি পড়তে না জানলে কীভাবে বোঝা সম্ভব? এটা তো সাধারণ বিষয়।”

এদিনের বৈঠকে আইনজীবী বিকাশ সিং আরও জানান, মুম্বই পুলিশ মারাঠিতে বিবৃতি লেখার পর সুশান্তের পরিবারের মনে সন্দেহ আগেই ছিল। সেকারণেই পরিবারের তরফে মুম্বাই পুলিশ এবিষয়ে কোনও নেয় কিনা সেবিষয়ে নজর রাখছিল। কিন্তু আদতে কোনও পদক্ষেপ না নেওয়ায়, মাস খানেক পর অর্থাৎ ২৫ শে জুলাই পাটনা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন সুশান্তের বাবা কে কে সিং রাজপুত। এদিকে ইতিমধ্যেই সুশান্তের বিমা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি খবর ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে। সুশান্তের বিমার নমিনি হিসেবে সুশান্তের দিদি প্রিয়াঙ্কা সিংয়ের নাম রয়েছে। বুধবারের বৈঠকে একথাও স্পষ্ট করেন আইনজীবী বিকাশ সিং। তিনি জানান সুশান্তের কোনও বিমা নেই। সুতরাং সুশান্ত সিং ও তাঁর পরিবারকে নিয়ে গুজব ছড়ানো হলে, তার বিরুদ্ধে যথাযোগ্য আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন -  চরম অমানবিক! করোনা আক্রান্ত পরিবারকে বাড়ি থেকে বের করে তালা লাগালো স্থানীয়রা, রাস্তায় ঘুরছে অসহায় পরিবার

প্রসঙ্গত, দিন দুয়েক আগেই একটি খবর প্রকাশ্যে আসে, তাতে জানা যায় ২০২০ সালে সুশান্ত একটি বিমা করেছিলেন, তাতে নমিনি হিসেবে নাম রয়েছে সুশান্তের দিদি প্রিয়াঙ্কা সিংয়ের। এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই স্বাভাবিকভাবেই শোরগোল পড়ে যায়। কেন দিদির নামে বিমার নমিনি এই নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেন সাধারণ। এরপরই বুধবার সন্ধ্যায় বিষয়টি নিয়ে মুখ খোলেন সুশান্তের পরিবারের আইনজীবী বিকাশ সিং। সেখানেই তিনি জানান, সুশান্তের ঘটনা প্রসঙ্গে কোনও প্রকার গুজব রটানো হলে সুশান্তের পরিবারের তরফে তাদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ধারায় মামলা করে তাদের শান্তির ব্যবস্থা করা হবে।

মারাঠি ভাষায় বিবৃতি লিখে জোর করে সই করিয়েছে মুম্বাই পুলিশ, বিস্ফোরক দাবি সুশান্ত পরিবারের 1