নারায়নগড়ে সাইকেলে ধাক্কা মেশিন ট্রলির ! মেয়ের বাড়ি বেড়াতে যাওয়ার পথে মৃত বৃদ্ধা, মৃত ট্রলি চালকও

1049
নারায়নগড়ে সাইকেলে ধাক্কা মেশিন ট্রলির ! মেয়ের বাড়ি বেড়াতে যাওয়ার পথে মৃত বৃদ্ধা, মৃত ট্রলি চালকও 1

নিজস্ব সংবাদদাতা: শনিবার মর্মান্তিক পথ দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল এক বৃদ্ধা এবং মেশিন ট্রলি চালকের। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার নারায়নগড় থানার অন্তর্গত মকরামপুর-তেমাথানি রাজ্য সড়কের বড়পোল নামক স্থানে। পুলিশ জানিয়েছে ঘটনাটি ঘটেছে দুপুর ১২ টা নাগাদ যখন একটি সাইকেলের পেছন দিকে ধাক্কা মেরে ওই মেশিন ট্রলিটি উল্টে পড়ে রাস্তার ওপর।

নারায়নগড়ে সাইকেলে ধাক্কা মেশিন ট্রলির ! মেয়ের বাড়ি বেড়াতে যাওয়ার পথে মৃত বৃদ্ধা, মৃত ট্রলি চালকও 2

সাইকেলে দু’জন ছিলেন। সাইকেলের পেছনে বসে থাকা ৬১ বছরের বেলারানি সিং ও মেশিন ট্রলির চালক সেক মোমেনুর আলিকে গুরুতর আহত অবস্থায় মকরামপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে গেলে দুজনকেই মৃত বলে ঘোষণা করেন ওই স্বাস্থ্য কেন্দ্রের কর্তব্যরত চিকিৎসক। সাইকেলের চালক ১৮ বছরের কিশোরীকে খড়গপুর মহকুমা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

নারায়নগড়ে সাইকেলে ধাক্কা মেশিন ট্রলির ! মেয়ের বাড়ি বেড়াতে যাওয়ার পথে মৃত বৃদ্ধা, মৃত ট্রলি চালকও 3

প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে মৃতা বেলারানি নিজের অষ্টাদশী নাতনির সাইকেলে করে তাঁর বাড়ি নারায়নগড় থানার কোতাইগড় থেকে মেয়ের বাড়ি অলঙ্কার পুরের পথে রওনা দিয়েছিলেন। অলঙ্কার পুরের থেকে দিদিমাকে সাইকেলে করে নিয়ে যেতে এসেছিলেন নাতনি ইতি সিং। প্রচন্ড রোদে মা যাতে হেঁটে আসে তাই মাকে নিয়ে যেতে মেয়ে ইতি কে পাঠিয়েছিলেন ইতির মা বা বেলারানির মেয়ে। এরপর সাড়ে ১১টা নাগাদ রওনা দেয় দুজন।

অন্য দিকে পিংলা থানার দ্বারখোলা এলাকার বাসিন্দা সেক মোমেনুর তাঁর মেশিন ট্রলিতে কিছু মালপত্র সরবরাহ করতে নারায়নগড় এলাকায় আসছিল বলেই জানা গেছে। তেমাথানি হয়ে মকরামপুর যাচ্ছিলেন তিনি। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তিনি সরাসরি ধাক্কা মারেন সাইকেলের পেছনে।
প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে সাইকেলে ধাক্কা মারার পরই বেলারানি পড়ে যান রাস্তার ওপর আর তারওপর দিয়ে গড়িয়ে যায় ট্রলিটি।

অন্যদিকে ট্রলিটি গড়িয়ে গিয়ে মোমেনুর সহ উল্টে যায়। ট্রলির তলায় চাপা পড়ে যান মোমেনুর। পথ চলতি মানুষ এবং স্থানীয় বাসিন্দারা দৌড়ে এসে উদ্ধার কার্যে হাত লাগান। খবর পেয়ে আসে পুলিশ। তিনজন কেই উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় স্বাস্থ্য কেন্দ্রে কিন্তু দুজনের পথেই মৃত্যু হয়। পুলিশ মৃতদেহগুলি ময়নাতদন্তের জন্য নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে। আগামীকাল খড়গপুর মহকুমা হাসপাতালে ময়নাতদন্ত হওয়ার কথা আছে।

Previous articleহেঁসেলিয়ানা : আচারি পনির- সুমিতা গোস্বামী
Next articleশালবনি করোনা হাসপাতালের জানলা গলে পালাতে গিয়ে চারতলা থেকে পড়ে মৃত্যু কোভিড রোগীর