এখন ভিডিও কলিং হবে আরও মজাদার, জুম নিয়ে এল এক বিশেষ ফিচার

342
Advertisement

নিউজ ডেস্ক: করোনা কালে আমাদের জীবনে ইন্টারনেটের ব্যবহার বেরেছে। বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমগুলির সাহায্যে নিত্য দিনের অনেক কাজ এখন সহজ হয়ে গিয়েছে। এই সময় অফিসের কাজ হোক বা পড়াশোনা, সবটাই হচ্ছে ভার্চুয়াল। তবে ভিডিও কলে মিটিং বা ক্লাসে নেটওয়ার্ক ভালো না থাকলে অনেক সময় কথা শুনতে সমস্যা হয়। এই সমস্যার সমাধানের জন্য অনলাইন ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপ জুম (Zoom) এবার নিয়ে এল একটি নতুন ফিচার । জুম কলগুলিতে এবার দেখা যাবে লাইভ ক্যাপশন। এর ফলে অনলাইন মিটিংয়ে অডিও শোনা বা বোঝা না গেলে ক্যাপশনে তা দেখে নেওয়া যাবে। স্পিচ-টু-টেক্সট ট্রানস্ক্রিপশন কোম্পানি Otter.ai, Zoom কে এই প্রযুক্তি সরবরাহ করছে।

Advertisement

কীভাবে পাবেন এই সুবিধা-

Advertisement
Advertisement

লাইভ ক্যাপশনগুলি সরাসরি কলের মধ্যেই দেখা যাবে মাত্র কয়েক সেকেন্ড পর পরই। এমনিতে অন্যান্য ভিডিও কলিং প্ল্যাটফর্মেও এই সুবিধা পাওয়া যেত। কিন্তু বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই এই ক্যাপশনগুলি ঠিকমতো আসত না। তবে জুম-এর এই নতুন লাইভ ক্যাপশন প্রযুক্তি অনেকটা যথাযথ হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

আপাতত জুম-এর লাইভ ক্যাপশনে শুধু ইংরাজি ভাষাই সাপোর্ট করবে। এর ফলে বিশেষত ইংরেজি যাদের মাতৃভাষা নয়, তাদের ক্ষেত্রে বক্তা কি বলছেন তা ক্যাপশনে পড়ে বুঝে নিতে সুবিধা হবে। ইংরেজির বিভিন্ন অ্যাকসেন্ট, যেমন আমেরিকান, ভারতীয়, ব্রিটিশ, এমনকি স্কটিশ, চাইনিজ এবং অন্যান্য ইউরোপীয় অ্যাকসেন্টও এতে সাপোর্ট করবে।

স্পিচ-টু-টেক্সট মার্কেটে বেশ বিখ্যাত একটি নাম Otter.ai। বছর ২ আগে থেকেই তারা এই প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। তাদের এই প্রযুক্তির মোবাইল অ্যাপ এবং ওয়েব বেসড টুল হিসাবেও পাওয়া যায়। এর মাধ্যমে অনলাইন মিটিংয়ের ট্রান্সক্রিপ্ট তৈরি করা সম্ভব। তারা Live Notes নামে একটি ফিচার লঞ্চ করেছে, যার ফলে ভিডিও কনফারেন্সিং-এর সময় শ্রোতারা, বক্তা কি বলছেন তার ট্রান্সক্রিপ্ট দেখতে পাবেন। এই প্রযুক্তি এতটাই উন্নত যে, বিভিন্ন মানুষের গলার স্বর চিনে আলাদা আলাদা নামে তাদের বক্তব্যগুলি রেজিস্টার করতে পারে। Live Notes-এর পর তাদের এই নতুন ফিচার জুমের মধ্যে লাইভ ক্যাপশনের ব্যবস্থা করছে। এর ফলে আলাদা করে Live Notes-এ যাওয়ার দরকার নেই। জুমের মিটিং চলাকালীন মিটিং-এর মধ্যেই লাইভ ক্যাপশন দেখা যাবে।

Otter.ai-এর প্রতিষ্ঠাতা স্যাং লিয়ন জানিয়েছেন, “শ্রুতি প্রতিবন্ধকতা যুক্ত মানুষদের জন্য এটি অত্যন্ত সুবিধাজনক, তাছাড়া আন্তর্জাতিক কাজকর্মের ক্ষেত্রে ইংরেজি যাদের মাতৃভাষা নয়, তাদের ক্ষেত্রেও এটি সুবিধাজনক। শিক্ষাক্ষেত্রেও অনলাইন ক্লাসে এই ক্যাপশনের ফলে অনেক সুবিধা হবে।”

তবে এই ট্রানস্ক্রিপশন একদম সঠিক তা বলা যায় না। কিছু বাক্য এবং শব্দ ভুলে চলে আসে এতে। তবে সব মিলিয়ে বলা যায় এই লাইভ ক্যাপশন অনেকটাই যথাযথ। লিয়নের মত, যত বেশি ইউজার এই টুল ব্যবহার করবেন, তাদের টুলের উন্নতি করতে আরও সুবিধা হবে। মহামারীর কারণে সবার অনলাইন সক্রিয়তা বেড়ে যাওয়ার ফলে তারা উন্নতিসাধনের অনেকটাই সুযোগ পেয়েছে। ইতিমধ্যেই তারা ৩০ মিলিয়ন মিটিংয়ের জন্য মোট ১ বিলিয়ন মিনিট অডিও ট্রান্সক্রিপ্ট করেছেন।