করোনা কালের রেকর্ড ভাঙল পশ্চিম মেদিনীপুর, দৈনিক সংক্রমন ৫৯৫! খড়গপুর-মেদিনীপুর ২৯০, ডেবরা-বেলদা-গড়বেতা-দাঁতনে বহাল সংক্রমন, ঘাটাল মহকুমায় প্রকোপ বাড়ল

On dated 13/5/2021 total positive case 595( RTPCR : 292, Antigen 273, Trunat 30) At least 150 people were found infected in Kharagpur City and 140 in Midnapur town on the day. In Kharagpur 28 were railway workers and their families, while 13 were affected by the samples sent from IIT Kharagpur, of which 7 were campus residents. Inda and its adjoining areas are most affected in Kharagpur city. 24 persons are found newly positive in Inda including Ramkrishnapalli, Kamala Cabin, Vidyasagarpur, Anandnagar, Sarada Palli and Malibagan. 13 people affected in Kharida areas including Kumarpara, Rajgram and Chunpara. Talbagicha, Malancha found 10 people each.10 people were also affected in Bhabanipur. In Mathurakati, Kaushalya and Sonamukhi Jhuli areas, 6 people were affected. 5 people were attacked by covid in Nimpura, Subhash Palli. Mirpur, Bhagwanpur and boath bara and chhota a Aymas have been affected by 4 people each erea. Hijli, Debalpur, Sukantapalli, Mayapur and Power House were affected by 3 people in DVC area. Three railway security officers were attacked. Two were affected in Sukantanagar (Talbagicha), Sanjowal, Barobetia, Puratanbazar, Srikrishnapur, Jhapetapur, Rabindrapalli, Gandhinagar and Old Settlement areas. At least one person has been infected from Bulbulchati, Chhota Tangra, South Inda, Traffic, Panchberia. The exact address of the 6 victims was not mentioned. Apart from this, there are some victims in different railway residences of the city

207
Advertisement

নিজস্ব সংবাদ: জেলার এযাবৎকালের রেকর্ড ভেঙেই দিল ১৩ই মে। গত ১৪মাসের করোনাকালে ১৩ই মের আগে অবধি দৈনিক সংক্রমনের সর্বোচ্চ রেকর্ড ছিল ৫৮৮জন। ৫ই মের এই রেকর্ড বহাল ছিল টানা ৮দিন। ৯দিনের মাথায় আরও ৭জন বেশি আক্রান্ত নিয়ে ৫৯৫ জনে গিয়ে দাঁড়ালো দৈনিক সংক্রমন। জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের রিপোর্ট মোতাবেক আরটি/পিসিআর পরীক্ষায় ২৯২, আ্যন্টিজেন ২৭৩ এবং ট্রুনাট পরীক্ষায় ৩০জনের পজেটিভ পাওয়া গেছে।
যদিও আনুপাতিক হারে এদিন মেদিনীপুর শহরের সংক্রমন কিছুটা কমেছে। শহরে কমপক্ষে ১৪০ জন আক্রান্ত হয়েছেন যা জেলার মোট সংক্রমনের প্রায় ২৩.৫ শতাংশ। অন্যদিকে খড়গপুর শহরে ন্যূনতম ১৫০ জন আক্রান্ত। জেলার আক্রান্তের হারে যা কিনা ২৫.২১ শতাংশ। অর্থাৎ দুই শহর মিলিয়ে আক্রান্ত ৪৮.৭১ শতাংশ যা কিনা গতকাল অবধি ৫২% ছিল। এই তথ্য প্রমাণ করছে যে জেলার গ্রামীন অংশে সংক্রমন বাড়ছে। যেমন ১১ই মে জেলার গ্রামীণ অংশে সংক্রমনের হার ছিল ৪৮% । ১২ই মে সেটা দাঁড়িয়েছে প্রায় ৫২শতাংশের কাছাকাছি।

Advertisement

খড়গপুর শহরে এদিন ন্যূনতম ১৫০ জন আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গেছে। এর মধ্যে রেলকর্মী এবং তাঁদের পরিবার আক্রান্ত ২৮, অন্যদিকে আইআইটি খড়গপুর প্রেরিত নমুনা থেকে আক্রান্ত ১৩ জন যার মধ্যে ৭জন ক্যাম্পাসের বাসিন্দা। খড়গপুর শহরের সর্বোচ্চ আক্রান্ত ইন্দা এবং তার সংলগ্ন এলাকায়। ইন্দার ৯জন আক্রান্তের সাথে রামকৃষ্ণপল্লীর ৩জন, কমলা কেবিন, বিদ্যাসাগরপুর, আনন্দনগর , সারদা পল্লী এবং মালিবাগানের ২জন করে আক্রান্ত যোগ করে সুকান্ত কলোনী,সাউথপল্লী সহ ২৪ জন এই এলাকাতেই আক্রান্ত। কুমারপাড়া, রাজগ্রাম (৩) এবং চুনপাড়া (২) সহ খরিদায় আক্রান্ত ১৩জন। তালবাগিচা,ঢেকিয়ার একজন সহ মালঞ্চ এলাকা এবং তালবাগিচায় ১০জন করে আক্রান্ত। ভবানীপুরেও আক্রান্ত ১০জন। মথুরাকাটি, কৌশল্যা এবং সোনামুখী ঝুলি এলাকায় ৬জন করে আক্রান্ত। নিমপুরা, সুভাষপল্লীতে ৫জন করে আক্রান্ত। ৪ জন করে আক্রান্ত হয়েছেন মিরপুর, ভগবানপুর ও ছোট বড় দুই আয়মা মিলিয়ে। হিজলী, দেবলপুর সুকান্তপল্লী, মায়াপুর ও পাওয়ার হাউস সহ ডিভিসি এলাকায় ৩জন করে আক্রান্ত। আক্রান্ত হয়েছেন রেল সুরক্ষাবাহিনীর ৩ আধিকারিক। ২জন করে আক্রান্ত সুকান্তনগর (তালবাগিচা), সাঁজোয়াল, বারোবেটিয়া, পুরাতনবাজার, শ্রীকৃষ্ণপুর, ঝাপেটাপুর, রবীন্দ্রপল্লী, গান্ধীনগর ও ওল্ড সেটেলমেন্ট এলাকায়। নূন্যতম ১জন আক্রান্ত হয়েছেন বুলবুলচটি, ছোট ট্যাংরা, সাউথ ইন্দা, ট্রাফিক, পাঁচবেড়িয়া থেকে। ৬জন আক্রান্তের নির্দিষ্ট ঠিকানা উল্লেখ করা হয়নি। এর বাইরে কিছু আক্রান্ত রয়েছেন শহরের বিভিন্ন রেল আবাসনে।

Advertisement
Advertisement

খড়গপুর গ্রামীনের মুকসুদপুর ও গোকুলপুর শ্যামরাইপুরে ৩জন করে আক্রান্ত। গোকুলপুর, গোপালী, পপরআাড়া , পাঁচতাড়া চাঙ্গুয়াল, সালুয়া,পাঁচপোতায় ২জন করে আক্রান্ত। ন্যূনতম ১জন করে নতুন আক্রান্ত হয়েছেন
রিশা শ্যামরাইপুর, সুফিয়াবাদ, চামরুসাই, রূপনারায়নপুর, নো শ্যুটিং, বড়াডিহা, ইসমাইলচক, দক্ষিণ সিমলা, বলরামপুর, দিগড়া, হরিপুর কিসমৎ গ্রামে।

মেদিনীপুর শহরে নির্দিষ্ট বসবাসের ঠিকানা উল্লেখ করা হয়নি এমন ২০ জন আক্রান্ত রয়েছেন জেলা স্বাস্থ্যদপ্তরের ১২ই মের আক্রান্তের তালিকায়। সর্বোচ্চ ১৫জন আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেছে আবাস এলাকা থেকে। কুইকোটা ও মির্জাবাজার এলাকায় ৮জন করে আক্রান্ত। সঙ্গতবাজারে একই পরিবারের ৬জন আক্রান্ত। সুকান্তপল্লীতে ৫ আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গেছে। চিড়িমারসাই, পুলিশলাইন, তলকুই, তোড়াপাড়া, রাঙামাটি প্রতিটি এলাকায় ৪জন করে আক্রান্ত। বিদ্যাসাগর বালিকা ভবন বা মহিলা হোমে ৩ আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গেছে। নূন্যতম ২জন করে আক্রান্ত শেখপুরা, জগন্নাথমন্দির, রামকৃষ্ণনগর, তাঁতিগেড়িয়া, রাজা রামমোহননগর, নানুরচক, সিপাহীবাজার, বৈশাখীপল্লী ও অশোকনগরে। মহকুমা শাসকের দপ্তর থেকে ২জন পজিটিভ হয়েছেন।

অন্ততঃ ১জন করে নতুন আক্রান্ত পাওয়া গেছে জজ কোর্ট, সেনপাড়া, পাটনা বাজার, ধর্মা, মহাতাবপুর, দেওয়াননগর, বটতলা, বল্লভপুর, হবিবপুর, নবিনাবাগ, পানপাড়া, রাজারপুকুর, বার্জটাউন, শরৎপল্লী, অরবিন্দনগর, মেডিকেল কলেজ, হোমিওপ্যাথি কলেজ রোড, কেরানিতলা, নেতাজিনগর, খাপরেল বাজার, বাড়মানিকপুর, মানিকপুর থেকে।
মেদিনীপুর সদরের গ্রামীন অংশের গোয়ালডাঙ্গা ও খয়েরুল্লাচকে ২জন করে নতুন আক্রান্ত পাওয়া গেছে। ১জন করে আক্রান্ত কোলসনডা, গোপগড়, উপরডাঙ্গা, বেড়াপাল, ভুঁইয়াটা, শিবপুর, গাজীপাতিয়া, বিরবিরা, গুড়গুড়িপাল, নেপুরা ও ভাঙ্গাবাঁধ এলাকায়।

মেদিনীপুর মহকুমার গড়বেতা থানা এলাকার গড়বেতা সদরেই আক্রান্ত ৮জন। দূর্লভগঞ্জ এলাকায় আক্রান্ত ৪, খাস্তগুড়ায় ২ জন আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গেছে। বাকি আক্রান্তরা ভোমরা ডাঙা, লক্ষণপুর আকছড়াা, সালুয়া পানিকোটর, ঝাড়বনি আমলাগোড়া, জঙ্গলবাঁধি, আসরগ্রাম , লাপুরিয়া, বিলা, সাতবাঁকুড়া, আমজোড়া, চন্দ্রকোনা রোড, কদমডিহা কিয়াবনি, অপর্নাপল্লী, ওড়গাঁজা, বিহারিশোল, মঙ্গল বাঁধি এলাকার।

গোয়ালতোড় সদরে ও মেটালডোবা হুমগড় এলাকায় ২জন করে আক্রান্ত। ১জন করে আক্রান্ত রাজাদলি, ওমরপোতা, বাগপিছলা, জিরাপাড়া়, কদমডিহি, মেটালডোবা, দিয়াপাড়ায়। শালবনীর শালবনী সদরে ৫জন এবং , কুতুরিয়ায় ২জন ও ভাদুতলায় ১জন আক্রান্ত।
কেশপুর সদরে ১জন আক্রান্ত ছাড়াও, খড়িকা আনন্দপুরে আক্রান্ত ১। বিশ্বনাথপুর পাটনা ২ জন আক্রান্ত। কেশপুরে হাসপাতালের একজন নার্স আক্রান্ত। চইলা থেকেও ১ আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেছে।

খড়গপুর মহকুমার ডেবরায় ৩৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে  ডেবরা সদরেই আক্রান্ত ৯ জন। ২জন করে আক্রান্ত বালিচক ,চন্ডিয়া, কাঁকরায়। রাধামোহনপুর, আষাঢ়িবাধঁ, হামিরপুর, চককুমার, ধামতোড়
চকশ্যামপুর, শ্যামসুন্দরপুর, ঝালিয়া, গোপীনাথপুর, , ধুলিয়াগড়, ডুঁয়া, বলরামপুর চক নরসিংহ, চন্দনপুর, অসরবপুর আকালপৌষ, টেবাগেবড়িয়া, বাকলসা, দোগেড়িয়া, অসনপুরে ১জন করে আক্রান্ত।

এরপরই রয়েছে বেলদা থানা যেখানে ২১জন আক্রান্ত। বেলদার পাতপুর সাউরিতে আক্রান্ত ৩জন। ২জন করে আক্রান্ত বেলদা সদর, সুজানগর ও দেউলিতে। ১জন করে নতুন আক্রান্ত বনমালীপুর ঠাকুরচক, বাখরাবাদ, কেশিয়াড়িমোড় ,আসদা, হাতিগোদা, নবোদয়পল্লী, গাঙ্গুটিয়া, নয়াবসান তুতরাঙা, আম্বিডাঙর, গনুয়া, ভালুকাড় এলাকায়।দাঁতন থানার দহরদা তুরকায় ৫জন, দক্ষিণআড়বানা ৪ জন, জামুয়া ২জন সহ, ধনেশ্বরপুর খাকুড়দা, দুর্গাপুর, উত্তর রায়বাড়, মির্জাপুর, খন্ডরুই নিয়ে ১৬জন আক্রান্ত।

কেশিয়াড়ি ও পিংলা থানা এলাকায় ১২জন করে আক্রান্ত পাওয়া গেছে। কেশিয়াড়ির হাশিমপুর ২জন , রানীবাঁধ, সিঙ্গাই যমুনা, তেঁতুলমুড়ি. দুধেবুধে, এলাসাই, সিঞাকুল, সুকরোল, নছিপুর, মামুদপুরে ১”জন করে আক্রান্ত।
পিংলা সদরে ৩ আক্রান্ত ছাড়া বাকি আক্রান্তরা আগরআড়া, গঙ্গাদাসচক, রাগপুর, জামনা, খিরাই, পশ্চিমচক, বাজেগেড়িয়া, রাজমা, পদিমার।
নারায়নগড়ের ১১ আক্রান্ত পাওয়া গেছে, নারায়নগড়, নাড়মা, গোপীনাথপুর, চকমুকুন্দ, পারিজাতপুর, কাশীপুর, পটশিলায়। হাঁদলা রাজগড় এলাকায় আক্রান্ত ৩জন।
সবং থানার মাসুরিয়া, খাউখান্ডা, বেনেদীঘি বাটিটকি , চক বাদলপুর, সনছড়া, লুটুনিয়া, পশ্চিমবাড় মিলিয়ে আক্রান্ত ৭ জন।

ঘাটাল মহকুমায় ৩ থানা এলাকায় আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৮৫জন। এরমধ্যে ৪১জনই চন্দ্রকোনার। ক্ষীরপাই পৌর এলাকায় আক্রান্ত ৪জন। গাজীপুরে আক্রান্ত ৩। চন্দ্রকোনা, হেমতপুর, বাঁকা ও রঘুনাথপুরে ২জন করে আক্রান্ত। বাকি আক্রান্তরা দারবস্তিবালা, ঠাকুরবাড়ি, বাবুরবেড়, বলরামপুর, সাতবেড়িয়া. , কামারগেড়িয়া দ্বারিগেড়িয়া, বামারিয়া, যাদবপুর, পালংপুর. বিরভানপুর, বাদুলিয়া, কইগেড়িয়া, ২, ধরমপুর হোসেনপুর ,গাছশীতলা ,মহেশপুর, মিত্রসেনপুর, ধান্যগাছি, জাড়া, শশাগেড়িয়া, শ্রীনগর, মাড়, বিরসিংপুর, চাঁদা, বড়বাজার এলাকার।
দাসপুরের দাসপুর নবীনমনুয়া, মামুদপুর, কলমিজোড়, গোছাতি, সোনাখালি , শ্যামচক, পলাশপাই, ডোঙাভাঙ্গা . জোত জীবন থেকে আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গেছে।

ঘাটাল থানার বীরসিংহে ৫, কুশপাতায় ৪ ও ঘাটাল সদরে ৩ আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেছে। ২জন করে নতুন আক্রান্ত কোন্নগর ও ঘাটাল মহকুমা হাসপাতালে। বাকি আক্রান্তরা নতুক, বালিতোড়া, কুসমান, পাথরা, খড়ার, রাধানগর. শীতলপুর, দেউলগ্রাম, সাহাপুর, মনুচক, গোবিন্দপুর, সুলতানপুর, শ্যামসুন্দরপুর, কৃষ্ণনগর, আড়গোড়া, শিমুলিয়ার।