নলেন গুড়ের স্পেশাল চা-

182
নলেন গুড়ের স্পেশাল চা- 1
নলেন গুড়ের স্পেশাল চা- 2

নিজস্ব প্রতিবেদন: নলেন গুড়ের স্পেশাল চা। দাম মাত্র ৫ টাকা থেকে শুরু। আর শীতের সকালে সেই চায়েই চুমুক দিতেই উপচে পড়ছে চা প্রেমীদের ভিড়।

হ্যাঁ নলেন গুড়ের চা। নানা ধরণের চায়ের নাম শুনলেও নলেন গুড়ের চায়ের নাম শুনলে একটু অবাক হতেই হয়। তবে অবাক হলেও সত্যি। এমনই চা পাওয়া যাচ্ছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বুনিয়াদপুর বাসস্ট্যান্ডে। সাধারণ লিকার কিংবা দুধ চায়ের দামেই মিলছে নলেন গুড়ের সেই স্পেশাল চা। মাটির ভাঁড়ে বিক্রি হচ্ছে এই স্পেশাল চা। ছোট ভাঁড় ৫ টাকা ও বড় ভাঁড় ১০ টাকা।

নলেন গুড়ের স্পেশাল চা- 3

প্রায় মাস খানেক আগে থেকেই সঞ্জিত বাবু নলেন গুড়ের চা বিক্রি করছেন। প্রথম দিকে এই চা বিক্রি করা নিয়ে একটু সংশয় থাকলেও পরে এর চাহিদা অত্যন্ত বেড়ে যাওয়ায় খুশি তিনি। শীতের সকালে এই স্পেশাল চায়ের স্বাদ নিতে প্রত্যহ লম্বা লাইন পড়ে যায় সঞ্জিত বাবুর চায়ের দোকানের সামনে। স্থানীয়রা তো বটেই, জেলার বহু দূর-দূরান্ত থেকে চা-পিপাসুরা আসছেন বুনিয়াদপুর বাসস্ট্যান্ডে সঞ্জিত শীলের চায়ের দোকানে। আর দিনদিন নলেন গুড়ের চায়ের চাহিদা বেড়েই চলেছে।

চা বিক্রেতা সঞ্জিত শীলের বাড়ী বুনিয়াদপুর পৌরসভার বুনিয়াদপুর স্টেশন এলাকায়। দীর্ঘদিন ধরে তিনি বুনিয়াদপুর বাসস্ট্যান্ডে চা বিক্রি করে আসছেন। বয়ঃজ্যেষ্ঠ এই মানুষটি বরাবরই একটু নতুনত্বে বিশ্বাসী ছিলেন। নলেন গুড়ের মিষ্টি, সন্দেশ সহ অন্যান্য খাবার তো পাওয়াই যায় সর্বত্র, কিন্তু নলেন গুড় নিয়ে অন্য কিছু চিন্তা কাজ করছিল সঞ্জিত বাবুর মনে। তাই তিনি ভেবে চিন্তে ঠিক করেছিলেন নলেন গুড়ের চা তৈরি করলে কেমন হবে! যেমন চিন্তা, তেমন কাজ। ঠিক মাসখানেক আগে তিনি নলেন গুড়ের চা তৈরি করেন।

এরপর তার হাতে তৈরি এই নলেন গুড়ের চা সম্প্রতি পান করেন বঙ্গ বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার। আর তারপর থেকেই যেন সঞ্জিত বাবুর হাতে তৈরি নলেন গুড়ের চায়ের প্রচার বাড়তে থাকে। বুনিয়াদপুর বাসস্ট্যান্ডে এখন শুধু বুনিয়াদপুর নয় বিভিন্ন জায়গা থেকে সঞ্জিত শীলের দোকানে এই নলেন গুড়ের চায়ে চুমুক দিতে ভিড় জমাতে শুরু করেন চা-প্রেমীরা।

এই বিষয়ে সঞ্জিত বাবুর সাথে কথা বললে তিনি জানান, গ্রাহকরা নতুন স্বাদের চা পান করতে চাইছেন, সেই জায়গা থেকে তার এই ভাবনা এবং এতে সফলতাও এসেছে।