রান্নার স্বাদ ও গন্ধ বাড়াতেই নয়, তেজপাতা কাজে লাগাতে পারেন এইভাবেও

68
রান্নার স্বাদ ও গন্ধ বাড়াতেই নয়, তেজপাতা কাজে লাগাতে পারেন এইভাবেও 1

নিউজ ডেস্ক: মসলা হিসেবে তেজপাতার ব্যাপক পরিচিতি ও জনপ্রিয়তার কথা সকলেরই জানা। যে কোন ভালো মসলাদার রান্নায় তেজপাতার ভালো ভূমিকা রয়েছে। সেইসাথে প্রাচীন আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে সৌন্দর্য চর্চাতেও এর গুরুত্ব অনস্বীকার্য। শুধু তাই নয়, আধুনিক বিজ্ঞানও তেজপাতার গুণ স্বীকার করে। তেজপাতা থেকে পাওয়া তেল বিভিন্ন দামি পারফিউম তৈরিতে ব্যবহার করা হয়। এ ছাড়া এর বাকল বা ছাল থেকে পাওয়া তেল সাবান তৈরিতে ব্যবহার করা হয়। কিন্তু হাতের কাছে থাকা আস্ত তেজপাতা আপনার সৌন্দর্য চর্চায় দারুণ ভূমিকা রাখে। জেনে নিন সে বিষয়ে কিছু টিপস-

 

রান্নার স্বাদ ও গন্ধ বাড়াতেই নয়, তেজপাতা কাজে লাগাতে পারেন এইভাবেও 2

শরীরের দুর্গন্ধ কমাতে
শরীর থেকে দুর্গন্ধ তাড়াতে কত কিছুই তো আমরা ব্যবহার করি। সেইসব ছড়ে ব্যবহার করুন তেজপাতা। রান্নার জন্য কেনা শুকনো তেজপাতা গুঁড়ো করে নিন। পরিষ্কার এক টুকরো কাপড়ে গুঁড়ো তেজপাতা দিয়ে পুঁটলি বাঁধুন। গুঁড়ো তেজপাতার সেই পুঁটলি কিছুক্ষণ ডুবিয়ে রাখুন কুসুম গরম জলে। তারপর সেই জল দিয়ে স্নান সেরে নিন। শীতে গরম জলে স্নান করার অভ্যাস আমাদের আছে। এ সময় এই টিপসটি কাজে লাগিয়ে দেখতে পারেন। তবে একদিন তেজপাতা গুঁড়ো দিয়ে স্নান করলেই হবে না। এটা চালিয়ে যেতে হবে এক নাগাড়ে কিছুদিন।

খুশকি দূর করতে
মাঝে মাঝে শ্যাম্পুর জায়গায় তেজপাতা সেদ্ধ করা ঠান্ডা জল দিয়ে মাথা ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। এতে খুশকি দূর হওয়ার পাশাপাশি চুল পড়াও কমে যাবে। চুল পড়ে যাওয়া জায়গাগুলোতে তেজপাতার এসেনশিয়াল ওয়েল ব্যবহার করুন। তাতে চুল আর উঠবে না।

 

দাঁত উজ্জ্বল করতে
ব্রাশ তো প্রতিদিন করেনই। তবে, নিয়ম করে মাঝে মাঝে দাঁতে কাচা তেজপাতা ঘষে নিন। এটি মাউথ ওয়াশ হিসেবেও কাজ করবে আপনার মুখে।

ত্বক উজ্জ্বল করতে ও ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখতে
ত্বকের তারুণ্য ধরে রাশতে ভীষন সহায়ক তেজপাতা। এর জন্য মুখে তেজপাতা সেদ্ধ করা জলের ভাপ নিন। তেজপাতা সেদ্ধ করা জলের ভাপ অ্যান্টি এইজিং সলিউশন হিসেবে কাজ করে। এছাড়াও তেজপাতা সেদ্ধ করা জল ঠান্ডা করে সেটি দিয়ে নিয়মিত মুখ ধুলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ে। পাশাপাশি এটি ব্রণের যম হিসেবেও কাজ করে।