নির্বাচনী প্রচারের শেষ দিনে জঙ্গলমহলে প্রতিশ্রুতির ঝাঁপি খুললেন অমিত; জল সমস্যা থেকে নতুন এইমস, সেইসঙ্গেই বিকাশ বোর্ড

196
নির্বাচনী প্রচারের শেষ দিনে জঙ্গলমহলে প্রতিশ্রুতির ঝাঁপি খুললেন অমিত; জল সমস্যা থেকে নতুন এইমস, সেইসঙ্গেই বিকাশ বোর্ড 1

নিউজ ডেস্ক: ‘পুরুলিয়ায় শুদ্ধ পানীয় জল পায় না সাধারণ মানুষ। ‘বিজেপি ক্ষমতায় এলে পাঁচ বছরের মধ্যে ঘরে ঘরে শুদ্ধ পানীয় জলের ব্যবস্থা করা হবে। নির্বাচনী প্রচারে জঙ্গলমহলে এসে প্রতিশ্রুতি অমিতের। এদিন পুরুলিয়ার বাঘমুণ্ডি, ঝাড়গ্রামের সাঁকরাইল, পূর্ব মেদিনীপুরের তমলুক ও বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরে সভা করেন অমিত শাহ।

গোটা জঙ্গলমহল জলের সমস্যায় ধুঁকছে, সেই সমস্যাকেই মূলত হাতিয়ার করে এদিন অমিত শাহ বলেন, ‘পুরুলিয়ায় শুদ্ধ পানীয় জল পায় না সাধারণ মানুষ। ‘বিজেপি ক্ষমতায় এলে পাঁচ বছরের মধ্যে ঘরে ঘরে শুদ্ধ পানীয় জলের ব্যবস্থা করা হবে। এর জন্য সুবর্ণরেখা নদীর ওপর বাঁধ তৈরি করবে বিজেপি সরকার।’ পাশাপাশি জঙ্গলমহলে নতুন এইমস তৈরি করবে বিজেপি বলেও আশ্বাস দেন অমিত।

নির্বাচনী প্রচারের শেষ দিনে জঙ্গলমহলে প্রতিশ্রুতির ঝাঁপি খুললেন অমিত; জল সমস্যা থেকে নতুন এইমস, সেইসঙ্গেই বিকাশ বোর্ড 2

বিজেপি ক্ষমতায় এলে জঙ্গলমহলের উন্নয়নে পৃথক বোর্ড গঠন করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিনি বলেন, ‘জঙ্গলমহল বিকাশ বোর্ড তৈরি করবে বিজেপি। পরিবারের একজনকে চাকরি দেওয়ার ব্যবস্থা করবে বিজেপি। ঝাড়গ্রামে সংগ্রহশালা তৈরি করবে বিজেপি, যেখানে বীরসা মুন্ডার মূর্তি থাকবে। পুরুলিয়াকে রেলের সঙ্গে যুক্ত করার জন্য বিজেপি বদ্ধপরিকর।’

সেইসঙ্গে মমতার সরকারকে তোপ দেগে বলেন, ‘দিদি যতদিন আছেন ততদিন ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু যাবে না। বাংলা থেকে ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়া তখনই যাবে, যখন দিদি যাবে। ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু নির্মুল করতে দিদিকে হারানো প্রয়োজন। বিজেপি ক্ষমতায় এলে দেড় বছরের মধ্যে ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু নির্মুল হবে।’ সেইসঙ্গেই বলেন, ‘মা-মাটি-মানুষের স্লোগান দিয়ে ক্ষমতায় এসে মমতা সরকার কিছুই করেনি। ‘লালমাটির জন্য কিছুই করেনি তৃণমূল সরকার। দিদি খেলা হবে বলে আদিবাসীদের ভয় দেখাচ্ছেন। দিদির গুণ্ডাদের ভয় পাবেন না। বিজেপি ক্ষমতায় এলে দিদির একজন গুণ্ডাও ভয় দেখাতে পারবে না।’

এদিন অমিত অভিযোগ করে বলেন, ‘বাংলায় শুধু হিংসার রাজনীতি। ১৩০ জন বিজেপি নেতা-কর্মী খুন হয়েছেন। বাংলা হিংসামুক্ত করবে বিজেপি। দিদির সন্ত্রাসে বিরক্ত মানুষ। বাংলায় বাড়ছে বেকারত্ব। প্রথমে বামেদের আমলে শিল্প বন্ধ হয়েছে। তৃণমূল বিনিযোগকারীদের বাংলা থেকে ভাগিয়ে দিয়েছে।’ তিনি প্রতিশ্রুতি দেন, ‘বিজেপি ক্ষমতায় এলে ১ বছরে ১৮ হাজার টাকা কৃষকের অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করবে। তিনি বলেন, ‘স্ক্যাম চাইলে দিদিকে ভোট দিন। স্কিম চাইলে নরেন্দ্র মোদিকে ভোট দিন।’

উল্লেখ্য, ২৭ তারিখ রাজ্যে প্রথম দফা নির্বাচন। সেই মোতাবেক বৃহস্পতিবারই নির্বাচনী প্রচারের শেষ দিন। আর এই শেষ দিনে জঙ্গলমহলে নির্বাচনী প্রচারে এসে মমতাকে তুলোধনা করার পাশাপাশি জঙ্গলমহলবাসীদের জন্য প্রতিশ্রুতির বন্যা বইয়ে দিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।