নিট জিইই পরীক্ষার্থীদের বিনামূল্যে পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছানোর সিদ্ধান্ত ওড়িশা সরকারের, পরীক্ষার নিয়মবিধি বেঁধে দিল কেন্দ্র

157

ওয়েব ডেস্ক : করোনা আবহে চলতি বছরে নিট জেইই পরীক্ষা নিয়ে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের পর রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছিল গোটা দেশে। কিন্তু কেন্দ্রের নির্দেশ মেনে শেষমেশ অবশ্য সেপ্টেম্বরেই দেশজুড়ে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে এই দুই প্রবেশিকা পরীক্ষা। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের পর পরই ওড়িশা সরকারের তরফে জানানো হয়, পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারী প্রার্থীদের বিনামূল্যে যাতায়াত এবং থাকার-খাওয়ার ব্যবস্থা করবে সরকার। সে অনুযায়ী ইতিমধ্যেই তোড়জোড়ও শুরু হয়ে গিয়েছে। এবিষয়ে ওড়িশার আইএ্যান্ডপিআর বিভাগ জানিয়েছেন, “জেলা সদর থেকে প্রত্যেক পরীক্ষার্থীকে বিনামূল্যে পরীক্ষা কেন্দ্র পর্যন্ত পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রার্থীরা জেলা বিশেষে নোডাল কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করলে এই সুবিধা পাবেন।”

কয়েকদিন আগেই ওড়িশার মুখ্যসচিব এ কে. ত্রিপাঠি সাংবাদিক বৈঠকে বলেছিলেন ভুবনেশ্বর ও কটকসহ সাতটি শহরে ছড়িয়ে থাকা ২৬ কেন্দ্রে জেইই (মেইন) পরীক্ষায় প্রায় অংশগ্রহণকারী প্রায় ৩৭০০০ পরীক্ষার্থী উপস্থিত হতে পারেন। এবিষয়ে মুখ্যসচিব বলেন, “জেলা প্রশাসক, পুলিশ প্রশাসনকে সমস্ত প্রার্থী এবং তাদের অভিভাবককে পরীক্ষাকেন্দ্রে যাতায়াত ও থাকার ব্যবস্থা করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। কোনও পরীক্ষার্থীর যাতে অসুবিধায় পড়তে না হয় সেদিকে নজর রাখা হবে।” পাশাপাশি তিনি জেইই পরীক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে জানান, পরীক্ষার্থীদের যাতে যাতায়াত ও থাকার ব্যবস্থার ক্ষেত্রে কোনোরকম অসুবিধা না হয়, সেকারণে ৩১ শে আগষ্টের মধ্যে সকল পরীক্ষার্থীকে নোডাল অফিসারের সাথে যোগাযোগ করার পরামর্শ দিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি বলেন, মহামারী সংঘর্ষের কারণে সরকার জনগণের চলাচলে নিষেধাজ্ঞাগুলি শিথিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে প্রার্থীরা তাদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য ছাড়পত্র হিসেবে অ্যাডমিটকার্ড দেখাতে পারবেন।

মুখ্যসচিব আরও জানিয়েছেন, ” ওড়িশা সরকারের তরফে বেসরকারী ও সরকারী উভয় আইটিআই, পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের হোস্টেলগুলিতে পরীক্ষার্থীদের জন্য বাসের সরবরাহ করা হবে কিন্তু যেহেতু দুটি শিডিউলে পরীক্ষা নেওয়া হবে, সেহেতু পরীক্ষার্থীদের তাদের শিডিউল সম্পর্কে তথ্য আগেই সরকারকে জানাতে হবে।”
এবিষয়ে স্কিল ডেভেলপমেন্ট সেক্রেটারী সঞ্জয় সিংহ জানিয়েছিলেন, যে প্রতিটি জেলায় একটি করে আইটিআইয়ের অধ্যক্ষকে নোডাল অফিসার নির্বাচিত করা হয়েছে। তার কাছেই পরীক্ষার্থীরা জেইইর উদ্দেশ্যে পরিবহন ও আবাসনের সুযোগ সুবিধা গ্রহণের জন্য যোগাযোগ করতে পারবেন। এবিষয়ে সঞ্জয় সিং বলেন, “নিট পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী পরীক্ষার্থীদের জন্যও একই ব্যবস্থা করা হবে। ১৩ ই সেপ্টেম্বর নিট অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও ইঞ্জিনিয়ারিং প্রবেশিকা পরীক্ষা জেইই-মেইন ১-৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।”

আরও পড়ুন -  সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করা যাবেনা দুঃস্থ মানুষদের ত্রান দেওয়ার ছবি

এদিকে করোনা পরিস্থিতিতে কিভাবে পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রার্থীদের বসানো হবে তা ইতিমধ্যেই জানিয়েছেন মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী। তিনি জানান, নিট পরীক্ষার ক্ষেত্রে প্রতিবছর প্রতিটি ক্লাসরুমে ২৪ জন করে প্রার্থী বসানো হলেও এবছর বসবে ১২ জন পরীক্ষার্থী। অন্যদিকে জিইই এর ক্ষেত্রে মানা হবে জোড় বিজোড় নীতি।
প্রত্যেক পরীক্ষার্থীদের একটি করে সিট ছেড়ে বসতে হবে। যেহেতু জিইই পরীক্ষা কম্পিউটারে হয় সেক্ষেত্রে প্রতিটি কম্পিউটারের দূরত্ব কমপক্ষে ১ মিটার থাকবে। পাশাপাশি এই পরীক্ষার ক্ষেত্রে মানা হবে জোড় বিজোড় নীতি। ফলে দুটি শিফট এ হবে পরীক্ষা। সকালের শিফট এ জোড় সংখ্যার পরীক্ষার্থীদের ও বিকেলের শিফট এ বিজোড় সংখ্যার পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা দিতে হবে।

আরও পড়ুন -  পাঁচ বছরেই ডিউসের মিডিয়ায় পেস সামলে তাক লাগাচ্ছে খড়গপুরের শুভজিৎ

পাশাপাশি প্রত্যেক পরীক্ষার্থীকে বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক, গ্লাভস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও জলের বোতল নিয়ে পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢুকতে হবে। প্রবেশ পত্র ও অন্যান্য নথি সাথে রাখতে হবে। করতে পারবে পরীক্ষার্থীরা। পরীক্ষার্থীদের চেক করার ক্ষেত্রে লম্বা হাতলযুক্ত মেটাল ডিটেক্টর ব্যবহার করতে হবে। পরীক্ষা করার সময় খেয়াল রাখতে হবে কোনো ভাবেই যেন মেটাল ডিটেক্টর পরীক্ষার্থীর শরীরের স্পর্শ না করে। তিন ফুটের একটি টেবলে না ছুঁয়ে পরীক্ষার্থীদের নথিপত্র পরীক্ষা করা হবে। পরীক্ষার্থীদের গ্লাভস পরে স্বাক্ষর করতে হবে।

নিট জিইই পরীক্ষার্থীদের বিনামূল্যে পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছানোর সিদ্ধান্ত ওড়িশা সরকারের, পরীক্ষার নিয়মবিধি বেঁধে দিল কেন্দ্র 1