দুরস্থ চাকরির প্রতিশ্রুতি , ফের বিশ্ব রেকর্ডের গড়ার পথে পাঁশকুড়ার মনোজ

264
দুরস্থ চাকরির প্রতিশ্রুতি , ফের বিশ্ব রেকর্ডের গড়ার পথে পাঁশকুড়ার মনোজ 1

নিজস্ব সংবাদদাতা : না, শেষ অবধি সরকারি চাকরি হয়নি ফুটবল জাগলিংয়ের বিশ্ব রেকর্ড ধারি মনোজ মিশ্রের। রূপনারায়নের জল গড়িয়ে গেছে বহু। ফের আরও একবার বিশ্ব রেকর্ডের প্রস্তুতি নিচ্ছেন পূর্ব মেদিনীপুরের ফুটবলার জাগলিং মাস্টার মনোজ৷দুরস্থ চাকরির প্রতিশ্রুতি , ফের বিশ্ব রেকর্ডের গড়ার পথে পাঁশকুড়ার মনোজ 2

ফুটবলার হওয়ার আশাতে কাঁটা হয়েছিল প্রবল দারিদ্র। জীবন কলকাতা লিগে মৌড়ি স্পোর্টিংয়ের হয়ে যে দৌড় শুরু করেছিলেন তা মাঝ পথে থামিয়ে যেতে হয়েছিল গুজরাট। একটা প্লাস্টিক কারখানায় দিন মজুরির কাজ নিয়ে।কারন বাংলা তাকে কাজ দিতে পারেনি। সেখান থেকে ফের মুম্বাইয়ের দাদারে পাড়ি। আর সেই দাদারেই পেয়ে গেছিলেন ছোটদের ফুটবল কোচিং করানোর কাজ কিন্তু বিধি বাম, খেলতে গিয়ে পায়ে চোট পেয়ে খেলার সখ ছেড়েই দিতে হল। খেলা ছাড়লেন বটে কিন্তু ফুটবল ছাড়লেন না। শুরু করলেন ফুটবল জাগলিং। আর এই জাগলিং তাঁকে এনে দিল দশ দশটি বিশ্বরেকর্ড!

দুরস্থ চাকরির প্রতিশ্রুতি , ফের বিশ্ব রেকর্ডের গড়ার পথে পাঁশকুড়ার মনোজ 3

মনোজ মিশ্রের সেই বিশ্বরেকর্ডগুলির মধ্যে আছে ইটালির ডেনিল কাটিংয়ের এক মিনিটে ৬৯ বার কাঁধের মধ্যে ফুটবল ঘোরানো। এই ফুটবল নিয়েই একাধিকবার লিমকা বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস, ইন্ডিয়া বুক, অলটারনেটিভ বুক এবং গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নিজের নাম ঝুলিতে পুরেছেন। মাথায় ফুটবল নিয়ে কলকাতার তালতলা মাঠে ৪৯.১৭ কিমি হেঁটে গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নাম তুলেছেন তিনি। সম্প্রতি এক মিনিটে ৭৯ বার ঘাড়ে বল ঘুরিয়েছেন গিনেস বুকে নাম তুলতে। তাঁর এই রেকর্ডটি হোলো “মোস্ট ফুটবল শোল্ডার রোল মোর দ‍্যান সেভেন্টি নাইন টাইমস্ ইন ওয়ান মিনিট”( Most Football Shoulder Roll More Than 79 Times In One Minute)।দুরস্থ চাকরির প্রতিশ্রুতি , ফের বিশ্ব রেকর্ডের গড়ার পথে পাঁশকুড়ার মনোজ 4

আরও পড়ুন -  পিংলায় বিজ্ঞান মঞ্চের উদ্যোগে কুসংস্কার বিরোধী ও স্বাস্থ্য সচেতনতা বিষয়ক আলোচনা সভা

অন্য সময় যাইহোক না কেন ভোটের সময় দাম বাড়ে মনোজের। আজকাল ভোটের বাজারে নেতা নেত্রীদের ভাষন বড় একটা কাটেনা বলে নানা ফন্দি ফিকিরে লোক জড়ো করতে হয়। তখন মনোজের মত লোকেদের দরকার হয়। বহুবার ভোটের প্রচারে তৃণমূলের নেতানেত্রীদের সাথে ফুটবল জাগলিং দেখিয়ে জনস্রোত টেনেছেন। স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীর সামনে নেতাজী ইণ্ডোর স্টেডিয়ামেও ফুটবল শো করেছেন। কিন্তু কেউই তাঁর পাশে দাঁড়ানোর ইচ্ছে করেননি। বারবার কালীঘাট, নবান্ন ও ক্রীড়াদপ্তর হয়ে ঘুরে ঘুরেও শিকে ছেঁড়েনি এই বিশ্বরেকর্ডের অধিকারীর।

আরও পড়ুন -  হেঁসেলিয়ানা : নবমীর মহাভোজ।। অদিতি রায় বর্মন পাঠক

পূর্ব মেদিনীপুরের পাঁশকুড়ার তিলাগেড়িয়া গ্রামের গরিব ব্রাহ্মণ সন্তান পুরোহিত মনোজ মিশ্র এরপর মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ হন একটা চাকরির জন্য। অনেক আশা প্রতিশ্রুতি পেলেও জোটেনি চাকরি তাঁর। এখন আবার মুখ্যমন্ত্রী পুরোহিতদের জন্য ভাতা দেওয়ার ঘোষনা করেছেন।

কিন্তু আজও তিনি বেকার। সংসার চালাতে হিমশিম অবস্থা। খুব দারিদ্রতা। বারবার মুখ্যমন্ত্রীর কাছে একটা চাকরির আবেদন নিবেদন করেও বিফল তিনি। মনোজ মিশ্র জানান, ২০১৬ সালে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসকে স্পোর্টস কোটায় চাকরি দিতে বলেন তাঁকে। তবে আজও জোটেনি চাকরি। বারবার প্রতিশ্রুতি আর মিথ্যে আশ্বাস দিয়ে তাঁর মন ভোলানোর চেষ্টা করেছে সবাই‌। তিনি শুধু নেতানেত্রীদের ভোট বৈতরণী পার হওয়ার একটা নিপাট মাধ্যম হয়েছেন বারবার।

আরও পড়ুন -  ভর সন্ধ্যায় পেট্রোল পাম্পে ডাকাতিতে বাধা দিতে গিয়ে গুলিতে নিহত যুবক, পূর্ব মেদিনীপুরে চাঞ্চল্য

আগামী ১১ ই অক্টোবর আবারও তিনি নামবেন আর‌ও একটি বিশ্বরেকর্ড গড়ার জন্য। এবারের জন্য  তাঁর বিষয় “মোস্ট ফুটবল আর্ম চেস্ট আর্ম মোর দ‍্যান ওয়ান হান্ড্রেড ফোর্টি ওয়ান টাইমস্”( ‘Most Football Arm Chest Arm More Than 141 Times)। আগের গিনেস রেকর্ড আছে বাংলাদেশের ঢাকার মাহমুদুল হাসানের। তিনি মিনিটে ১৩৪ বার করেছিলেন হাত থেকে ছাতি ছুঁয়ে করে অন্য হাত দিয়ে ফুটবল ঘোরানো। আর মনোজ করবেন ১৪১ বার। তারপরই ৮ ই নভেম্বর মাথায় ফুটবল নিয়ে সাইকেলে দীর্ঘতম দূরত্ব অতিক্রম করার রেকর্ডের জন্য নামতে চাইছেন মনোজ মিশ্র। মাথায় ফুটবল নিয়ে ৬১ কিমি সাইকেল চালাবেন তিনি। এখন এই রেকর্ডটি রয়েছে বাংলাদশের আব্দুল হালিমের। সেটি ভেঙে দিতে চান মনোজ। এবিষয়ে চলছে নিবিড় অনুশীলন। চাকরি না থাক দেশের হয়ে রেকর্ড আনা অব্যাহত আছে মনোজের।