পিংলায় খরস্রোতা চন্ডিয়া, ইট বোঝাই ডোঙা উল্টে মৃত্যু হল এক ব্যক্তির

243

শশাঙ্ক প্রধান : কয়েকদিনের অতি বৃষ্টিতে ফুঁসে ওঠা চন্ডিয়া নদী কেড়ে নিল একটি প্রান। বাড়ি নির্মাণের জন্য ইট নিয়ে যাওয়ার সময় ডোঙা উল্টে মৃত্যু হল ওই ব্যক্তির। মঙ্গলবার এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে পিংলা থানার অন্তর্গত বাগনাবাড় এলাকার নুনগোদা গ্রামের। পুলিশ জানিয়েছে মৃত ব্যক্তির নাম বাদল কুমার মাইতি(৫৫)। স্থানীয় বাসিন্দা সুত্রে জানা গেছে নতুন বাড়ি নির্মান করার জন্য ইট নিয়ে ডোঙায় করে নিয়ে যাওয়ার সময় এই বিপত্তি। নদীতে জল বেশি থাকায় তিনি সাঁতারে প্রান রক্ষা করতে পারে নি।বাঁচার আপ্রান চেষ্টা করলেও খরস্রোতা নদীর টানের কাছে হেরে যান ওই ব্যক্তি। তলিয়ে যান নদীর গভীরে।

আরও পড়ুন -  ঝা কে নিয়ে বিজেপিতে কোন্দল তুঙ্গে, মনোনয়ন দিতে পারেন সমিতও

নদীর পাড়ের উপর থেকে কিছু মানুষ ওই মর্মান্তিক দৃশ্য দেখতে পায় এবং ওই ব্যক্তির দেহ তুলে আনে ততক্ষণে মৃত্যু হয়েছে ওই ব্যক্তির। এরপর পিংলা থানার পুলিশ এসে মৃত ব্যক্তির দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে নিয়ে যায়। পুলিশের কাছেও এলাকার মানুষ তাঁদের দুর্দশার কথা প্রকাশ করেন এবং জানান, প্রতিবছর নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় ওই নদীর কারণে। নদীতে পলি পড়ে আগাছা ও কচুরিপানায় ভরে গেছে ফলে মানুষের যাতায়াতের নানা সমস্যা হয়।

স্থানীয় গ্রাম বাসীদের অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরে ওই চন্ডিয়া নদীটির সংস্কার হয়নি,তাই নদী গর্ভ ফুলে ফেঁপে উঠে একাকার। সামান্য বৃষ্টিতেই জল বহন করার মত ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছে নদী। জল উপচে জল ঢুকে কয়েকটি গ্রাম ও প্লাবিত হয়েছে।স্থানীয় প্রশাসন কে জানিয়ে কোনো সুরাহা হয়নি,ভোট এলে অনেক নেতা আসে যায় প্রতিশ্রুতি দিয়ে যায় কিন্তু প্রতিশ্রুতি পূরন আর হয়নি।

আরও পড়ুন -  ২৮ বছরের ছেলের কবর সাজালেন ৬২ বছরের বাবা, মা ছড়ালেন খই, ভাইয়ের কোদালেই সমাধি হল জঙ্গলমহলের সিলিকোসিস যৌবনের

উল্লেখ্য গতকালই সবংয়ের বন্যা কবলিত স্থানগুলি পরিদর্শন করার সময় পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা শাসকের কাছে খোদ তৃনমূল সাংসদ মানস ভূঁইয়া অভিযোগ করে বলেছিলেন গত আট বছর এই এলাকার নদী ও খাল সংস্কার করেনি রাজ্যের সেচ দপ্তর। তাই নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে জেলা জুড়ে। ক্ষুব্ধ হয়েছেন সেচ দপ্তরের আধিকারিকরা। ওই এলাকায় সেচদপ্তর কী কী কাজ করেছে তার তালিকা পাঠাচ্ছেন জেলা শাসকের কাছে। তাঁদের অভিযোগ আসন্ন নির্বাচনের মুখে দাঁড়িয়ে সস্তা রাজনীতি করছেন সাংসদ। এই বিতর্কের মধ্যেই ঘটে গেল পিংলার মৃত্যু।

আরও পড়ুন -  চায়না আলোর সাথে পাঞ্জা লড়তে মাটির প্রদীপ নিয়েই তৈরি মালোপাড়া , গুপ্তিপাড়া , কালনা

পাশাপাশি এদিন পিংলাতে এক অজ্ঞ্যত পরিচয় মহিলার মৃত্যু হয়।কয়েক দিন ধরে ওই মহিলা পিংলার জামনা বাজারে ঘুরাঘুরি করছিল দুদিন আগে অসুস্থ হয়ে পড়ে তারপর পিংলা থানার ওসি ও সিভিক পুলিশ ওই মহিলাটিকে পিংলা হাসপাতালে ভর্তি করে আজ ভোরে তার মৃত্যু হয়।

পিংলায় খরস্রোতা চন্ডিয়া, ইট বোঝাই ডোঙা উল্টে মৃত্যু হল এক ব্যক্তির 1