আয়ুশ স্বাস্থ্য আধিকারিক ও স্বাস্থ্য কর্মীদের দ্বিতীয় শ্রেণীর মর্যাদা ভুক্ত করায় ক্ষুব্ধ চিকিৎসক আধিকারিকদের প্রতিবাদ

15
আয়ুশ স্বাস্থ্য আধিকারিক ও স্বাস্থ্য কর্মীদের দ্বিতীয় শ্রেণীর মর্যাদা ভুক্ত করায় ক্ষুব্ধ চিকিৎসক আধিকারিকদের  প্রতিবাদ 1

নিজস্ব সংবাদদাতা: জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের(NHM) আওতায় কর্মরত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের রাজ্য সরকারের আওতাধীন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের তুলনায় কম মর্যাদাভুক্ত করা হয়েছে এই অভিযোগ তুলে বুধবার স্বাস্থ্যভবনে প্রতিবাদ স্বরূপ স্মারকলিপি প্রদান করলেন আরবিএসকে আয়ুশ মেডিক্যাল আধিকারিকরা (RBSK AYUSH MEDICAL OFFICERS)।

বুধবার সরকারের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ১৪৬৬ জন চিকিৎসক আধিকারিক স্বাস্থ্য ভবনের আধিকারিকদের কাছে স্মারকলিপি জমা দেন। তাঁরা জানিয়েছেন সম্প্রতি স্বাস্থ্যভবন প্রকাশিত জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের (NHM) চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের শ্রেণী বিভাজন করা হয়েছে যেখানে আয়ুশ চিকিৎসকদের দ্বিতীয় শ্রেণীতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তারই প্রতিবাদে এই প্রতিবাদ বলে জানালেন তাঁরা।

আয়ুশ স্বাস্থ্য আধিকারিক ও স্বাস্থ্য কর্মীদের দ্বিতীয় শ্রেণীর মর্যাদা ভুক্ত করায় ক্ষুব্ধ চিকিৎসক আধিকারিকদের  প্রতিবাদ 2

প্রতিবাদরত চিকিৎসকরা জানালেন, যেখানে করোণার আগের এবং বর্তমান করোণা পরিস্থিতিতে তাঁরা নিজের জীবন তুচ্ছ করে মানুষকে চিকিৎসা পরিষেবা ও অন্যান্য পরিষেবা প্রদান করেছেন, সেখানে তাঁদের দ্বিতীয় শ্রেণীভুক্ত করাটা অত্যন্ত লজ্জাজনক, অপমানজনক এবং বৈমাত্রিসুলভ আচরণ বলেই আমরা মনে করেছি। এক প্রতিনিধি জানালেন, ‘এই অপমান শুধুমাত্র RBSK MEDICAL OFFICER বলে নয়, একজন আয়ুশ চিকিৎসক হিসেবে সমগ্র আয়ুশ চিকিৎসক সমাজের অপমান।’

চিকিৎসকদের বক্তব্য দেশের বিভিন্ন রাজ্যে আমাদেরই পর্যায়ভুক্ত আরবিএসকে চিকিৎসক আধিকারিক, স্বাস্থ্যকর্মীরা আমাদের চাইতে কয়েক গুন বেশি বেতন এবং মর্যাদা পেয়ে থাকেন। আমরা এই রাজ্যের আয়ুশ চিকিৎসক বা চিকিৎসকর্মীরা রাজ্যের আওতাধীন চিকিৎসক বা চিকিৎসক কর্মীদের সঙ্গে সমান তালে, সমান দায়িত্ব নিয়ে কাজ করে থাকলেও বেতন এবং মর্যাদার দিক থেকে পেছনে পড়ে রয়েছি রাজ্য সরকারের দুর্ভাগ্যজনক মনোভাবের জন্য। একটা হীনমন্যতার দিকে ঠেলে দেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে স্বাস্থ্য ভবনের এই নির্দেশিকা সরকারের বৈমাত্র সুলভ দৃষ্টি ভঙ্গিকে স্পষ্ট করে দিয়েছে।

স্বাস্থ্য ভবনের আধিকারিকরা অবশ্য অভিযোগপত্র গ্রহণ করার পর উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন। বিভিন্ন জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিক ও সংশ্লিষ্ট কাউন্সিল প্রতিবাদ রত আয়ুশ চিকিৎসকদের পাশে দাঁড়িয়েছেন বলে জানা গেছে।