মাহমুদ কামালের চারটি কবিতা

131

মাহমুদ কামালের চারটি কবিতা 1✍️কলমে: মাহমুদ কামাল

একুশের মন্ত্র

একুশ বছর বয়সে মনে হয়েছিল
সংখ্যাটি বিদ্রোহের
বায়ান্ন বছর বয়সে মনে হয়েছিল
সংখ্যাটি বিপ্লবের
বাষট্টি বছর বয়সে মনে হচ্ছে
সংখ্যাটি যৌবনের।
কারণ, বাষট্টির আগেই
৫২ ও ২১ আমাকে
মন্ত্র শিখিয়েছে।

এই তিন অর্থময়তা

সাত-সতের নয়
শুধুমাত্র ছাব্বিশও নয়
উপর্যুক্ত সংখ্যগুলো
আমাদের যাপিত জীবনে
আমাদের স্বত্ব-পুরুষ
আমাদের বিদ্যমানতা…

আরও পড়ুন -  ফাটা স্মৃতি

৭ই মার্চ তাই পথের নিশানা
সেই পথ নির্দেশক ১৭ই মার্চ
২৬শে মার্চ আমাদের প্রাপ্তিসমূহ
এই যে ধারাবাহিক সংখ্যাতত্ত্ব
এই তিন অর্থময়তায়
আমাদের প্রকৃত ঠিকানা।

যদি তুমি তোতাপাখি হও

চাবিটি আমার হাতে
তুমি খুলবে কী করে!
তুমি তো ময়না নও তোতাপাখি নও
বাজপাখি বানিয়ে তোমাকে
খাঁচায় ভরেছি।
খাঁচার বাইরে যতো তোতাপাখি ময়না ও টিয়া
হা বলতেই তারা হামিদপুর বলে
হারামজাদাও…
এই সব তোতাপাখি কখনো কখনো
আমাকে বিপদে ফেলে।

আরও পড়ুন -  অপেক্ষার অন্ধকার

চাবিটি আমার কাছে
আঁচলে রেখেছি বেঁধে
তালা খুলে দিতে পারি যে কোনও সময়
যদি তুমি তোতাপাখি হও।

নবনীতাকে নবীন ভেবে

নবনীতাকে নবীন ভেবেছি তাই
ভুল ভেঙে গেল মনের জীর্ণতায়
বোশেখ শুধু বৈশাখ নয়, রাখী
বন্ধনে ওই মোহনীয় বৈশাখী
দুজন যখন একীভূত হয় ঝড়ে
প্রকৃতি তখন তৃপ্ত পঞ্চস্বরে
নবনীতা তাই শুধুই নবীনা হলে
বিমুখ বোশেখ আড় ভাঙে বল্কলে।

মাহমুদ কামালের চারটি কবিতা 2