কবিতা- মাতৃভূমি

124

কবিতা- মাতৃভূমি 1✍️কলমে: সিকতা কাজল

ঈশ্বর কী অন্ধকার! রাতের শরীরে জেগে ওঠা বিবেকের সংঘাত! বোধিকল্প অন্ধকার অাঁকড়ে ধরা ইতিহাস! ভাষা মানচিত্র স্বদেশ শূন্যতা! অবিরাম ছুটে যাওয়া বিদীর্ণ অনুভূতি অথবা ভিটেমাটি…

পৃথিবীর বিন্দু দৃশ্যপট অতিক্রম করলেই মেঠোসুর জীবন। জীয়ল শরীরে অন্ধকার জেঁকে বসে। পৃথিবীর পৃষ্ঠা জুড়ে অালো- অাঁধার।

আরও পড়ুন -  অনুগল্প

মেঘের ভিতর মিষ্টি সুরেলা কথামালা। বজ্রপাত তা বুঝতে দেয় না। ঝিরি ঝিরি বৃষ্টিতে চোখের জল। হাতের মুঠোয় হাহাকার, হতাশা নিয়ে দিন বদলের মঞ্চে উঠি ; দিনগুলি এখন মেঘ ও অাকাশের দখলে।

তারার ভিতর প্রিয়মুখ ভেসে ওঠে। নীরবতা অনুভব করি অথচ শব্দের ঝংকারে শবদাহে জ্বলে ওঠা অাগুন পৃথিবীকে গিলে খেতে অাসে। অাগুন কিংবা মেঘের বর্ষণে জীবনকে রোজ উপড়ে পড়া দেখি। লাশ ও ফুল হাতে সারি সারি দাঁড়িয়ে থাকে মানুষ। কিছু জীবন লবনমিশ্রিত ভালবাসা নিয়ে জন্মায়। টিপ টিপ বৃষ্টি ঝরা গান কণ্ঠকে জাগায়।

আরও পড়ুন -  অন্ধকারের আলোর সন্ধান-৩

বৃষ্টি ও অাগুনের দুটি পথ একাকার হয়ে যায়।
সে -পথ পেরোনো মানবরা জোৎস্নায় স্নান করে চুম্বন করে মাতৃভূমিকে।

কবিতা- মাতৃভূমি 2