তবুও থেকে গেল

288
তবুও থেকে গেল 1

তবুও থেকে গেল 2✒️কলমে: স্বপন রায়

তবুও থেকে গেল 3
নদীর মতো চির বিরহী দু’কূলজীবন,
ও-পারে তুমি, আমি এ-পারে;
বহুবার ভেবেছি একটা সেতুর কথা,
দ্বিধার ভিতে গড়তে পারিনি তারে।
একদিকে বিভেদের খর স্রোত,
অন্যদিকে বিশ্বাসের নড়বড়ে তল;
আমাদের ভালোবাসা, প্রেম যেন
বালুচরে খেলাঘর, মরীচিকা-ছল!
কত ফোটা ফুল, না-ফোটা কোরক
ঝরে গেছে বিষণ্ন, বিরুদ্ধ হাওয়ায়,
ভেসে গেছে সর্বনাশা অন্ধ স্রোতে,
সে হিসেব কেউ কখনো রাখেনি হায়!
কতবার দ্রোহের আগুন জ্বেলেছি
বুকের মাঝে, কত-যে ক’রেছি পণ
শেকল ভাঙার, তবুও পারিনি;

তবুও থেকে গেল 4

বরং ক’রেছি করুণ আত্মসমর্পণ!
হৃদয়ের সীমানায় জ্বলে থাকে
নিদ্রাহীন প্রহরীর রক্তপদ্ম চোখ,
দোলে ভয়াল মৃত্যুর কালো ছায়া,
চেতনায় জাগে হাহাকার, জাগে শোক।
গুহার আঁধার পেরিয়ে আলোকে
এসেছি; হেঁটেছি আমরা বহুদূর;
তবুও থেকে গেল আদিম অন্ধকার,
মগজের অসুখ হ’ল না দূর!                                                   ———-

Previous articleরাগ
Next articleবিরূপাক্ষ পণ্ডা’র গুচ্ছ কবিতা