অনুগল্প

191
অনুগল্প 1

অনুগল্প 2🖊️কলমেঃ বিতস্তা ঘোষাল

হিমাংক রেখার নিচে

অনুগল্প 3

এখনো শীত সেভাবে শহরটা স্পর্শ করেনি। ঠান্ডা হাওয়া বইছে ঠিকই, কিন্তু কাঁপুনি ধরার মতো নয়।
মৌ শীতকাল একেবারেই পছন্দ করে না। ছোটবেলায় প্রিয় ঋতু নিয়ে রচনা লিখতে দিলে সে গ্রীষ্ম কালের কথা বলত।
শীতকাল মানেই কেমন একটা বিষন্নতা। রংহীন লাগে নিজেকে।
মেট্রো থেকে নেমে বাঁদিকে সবার আগে চোখ যায় তার। এটা তার দীর্ঘদিনের অভ্যাস। একনজরে দেখে নেয় আগের দিন যাদের দেখেছিল,তারা আছে কিনা!
এই চত্বরে বাচ্চা চুরি, ও নির্যাতন নিয়মিত বিষয়।তাই সর্বদাই সচেতন থাকে সে।
একটু দূরে একটা ভীড়। শীতের পোশাক দেওয়া হচ্ছে ফুটপাতের বাচ্চাদের। সে খানিকটা দূরত্ব রেখেই দেখছিল।অনেক সংস্থা এখন জনহিতকর কাজ করে।সেই জন্যই এখনো এরা টিকে আছে,ভাবতে ভাবতেই চোখ গেল বছর দশেকের ছেলেটির মুখের দিকে। একটা যন্ত্রণা যেন সেখানে। তার সামনে গোলাপি জ্যাকেট পরা এক স্টাইলিশ মেয়ে। সোয়েটারের মাপ নেওয়ার অছিলায় তার হাত বাচ্চাটার যৌনাঙ্গ ছুঁয়ে। ঠোঁটের কোণে হাসি।
মৌয়ের বুকের ভিতরটা মোচড় দিয়ে উঠল, পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ছেলেটি যখন বলল,এটাই তো মজা, উল্টোটা হলে এতক্ষণে… ।
মৌ এর হঠাৎ করে মনে হল সারা শহর বরফে ঢেকে যাচ্ছে। প্রচন্ড ঠান্ডায় যেন স্থবির হয়ে গেল তার পা দুটো।