বাইক প্রেমীদের জন্য ধামাকাদার উপহার নিয়ে আসছে Royal Enfield, জেনে নিন কোম্পানির নতুন এই বাইকটি সম্পর্কে

320
বাইক প্রেমীদের জন্য ধামাকাদার উপহার নিয়ে আসছে Royal Enfield, জেনে নিন কোম্পানির নতুন এই বাইকটি সম্পর্কে 1

টেক ডেস্ক: বাইক প্রেমীদের জন্য দারুণ সুখবর। এবার ক্লাসিক বাইকের বাজারে জনপ্রিয়তা কাড়তে ভারতীয় বাজারে লঞ্চ হতে চলেছে ৩৫০ সিসির Hunter 350। খুব সম্প্রতি এই বাইকটিকে রোড টেস্ট করতে দেখা গিয়েছে। সেই অনুযায়ী ধরে নেওয়া যায় খুব তাড়াতাড়ি এই বাইকটি ভারতের বাজারে লঞ্চ করবে।

এমনিতেই বাজারে ক্লাসিক বাইকের কথা বললে প্রথমেই মাথায় আসে জনপ্রিয় Royal Enfield- এর নাম। এই কোম্পানি ২৫০ থেকে ৫০০ সিসি অব্দি নানাবিধ ক্লাসিক বাইক ভারতের বাজারে এনেছে। এই কোম্পানির গর্বের বাইক Royal Enfield Classic 350- এর জনপ্রিয়তাকে টেক্কা দিতে অক্ষম অন্য ক্লাসিক সেগমেন্টের বাইক। আর এবার এটি Hunter 350 লঞ্চ করে ধামাকা দিতে চলেছে।

বাইক প্রেমীদের জন্য ধামাকাদার উপহার নিয়ে আসছে Royal Enfield, জেনে নিন কোম্পানির নতুন এই বাইকটি সম্পর্কে 2

বাইকটির স্পেসিফিকেশন
Hunter 350 বাইকে ক্লাসিক লুক দেওয়ার জন্য সেমি ডিজিটাল ইনস্ট্রুমেন্টাল ক্লাস্টার ও অ্যানালগ স্পিডোমিটার ব্যবহার করা হয়েছে। এছাড়া সেই স্পিডোমিটার একটি ছোট এলসিডি স্ক্রীন দেওয়া হয়েছে যাতে অন্যান্য তথ্য দেখা যাবে। তবে এই বাইকে টিপার নেভিগেশন পড পাওয়া যাবে না।

ইঞ্জিন সংক্রান্ত তথ্য

বাইকের ইঞ্জিন সম্বন্ধে সূত্র মারফত যা জানা গিয়েছে, তা হল- এই বাইকে সম্প্রতি জনপ্রিয় Meteor 350- এর ইঞ্জিন ব্যবহার করা হয়েছে। অর্থাৎ বাইকে ৩৪৯ সিসির এয়ার কুল, সিঙ্গেল সিলিন্ডার ইঞ্জিন আছে। এই ইঞ্জিন ২০.৪ PS পাওয়ার ও ২৭ Nm টর্ক উৎপন্ন করতে পারে। বাইকে ৫ স্পিড মানুয়াল ট্রানস্মিশন গিয়ারবক্স দেখা যাবে। এছাড়া রোড টেস্ট করার সময় যে বাইক দেখা গিয়েছে তাতে সাসপেনশন হিসাবে অন্যান্য বাইকের মত সামনের চাকায় টেলিস্কোপিক ফন্ট ফর্ক ও পিছনের চাকায় টুইন শক অবজারভার সাসপেনশন ব্যবহার করা হয়েছে। বাইকের পিছনে একটি স্প্রিট গ্রাব রেল বানানো হয়েছে যা দেখতে বেশ আকর্ষণীয়। বাইকের সামনে গোলাকার হেডলাইট ও সিঙ্গেল পিস সিট ব্যবহার করা হয়েছে যাতে বাইকটিকে প্রিমিয়াম ক্লাসিক বাইকের মতো দেখতে লাগে। এই বাইকটির ব্রেকিং শক্তিশালী করার জন্য দুটো চাকাতে ডিস্ক ব্যবহার করা হয়েছে এবং হয়তো এই বাইকে ডুয়েল চ্যানেল এবিএস ব্যবহার করা হবে।

বাইকটি লঞ্চ করলে এটি যে ক্লাসিক বাইক প্রেমীদের জন্য একটি উপযুক্ত অপশন হতে চলেছে, তা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই। অপেক্ষা শুধু বাইকটি লঞ্চ করার।