এবার সবংয়ে আ্যন্টিজেনে পজিটিভ হয়েও নেগেটিভ, কোভিড সার্টিফিকেট সম্পর্কিত নির্দেশিকা বদল জেলার

1680
এবার সবংয়ে আ্যন্টিজেনে পজিটিভ হয়েও নেগেটিভ, কোভিড সার্টিফিকেট সম্পর্কিত নির্দেশিকা বদল জেলার 1

নিজস্ব সংবাদদাতা: ফের আ্যন্টিজেন বিভ্রাট ঘটল জেলায়। দাঁতনের পর এবার সবংয়ে দেখা গেল আ্যন্টিজেন পরীক্ষায় পজিটিভ হয়েও আরটি/পিসিআর পরীক্ষায় নেগেটিভ। যদি অন্য কোথাও সমস্যা না হয়ে থাকে তবে এই ঘটনা আ্যন্টিজেন পরীক্ষার স্বার্থকতা নিয়েই প্রশ্ন তুলে দেবে। বলা হয়ে থাকে আ্যন্টিজেন পরীক্ষায় কারও পজিটিভ আসা মানেই ওই ব্যক্তি পজিটিভ। অর্থাৎ আ্যন্টিজেন পরীক্ষায় কারও পজিটিভ আসলে আরটি/পিসিআর পরীক্ষায় তিনি পজেটিভই হবেন। আরটি/পিসিআর গোল্ডেন স্ট্যান্ডার্ড পরীক্ষা এবং চূড়ান্ত পর্যায়ের পরীক্ষা। আ্যন্টিজেন পরীক্ষায় কেউ নেগেটিভ হলে আরটি/পিসিআর পরীক্ষায় সে পজিটিভ হতে পারে কিন্তু পজিটিভ হলে পজিটিভই।কিন্তু দাঁতনের পর ফের সবংয়ে দেখা গেল আ্যন্টিজেন পরীক্ষায় পজিটিভ হওয়ার পর আরটি/পিসিআর পরীক্ষায় নেগেটিভ!

ঘটনা সবংয়ের লুটুনিয়া গ্রামের। সামান্য জ্বর থাকায় ১১ আগষ্ট এই গ্রামের এক ১২বছর বয়সী কিশোরের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। আরটি/পিসিআর অর্থাৎ মুখ এবং নাকের লালা রস সংগ্ৰহ করে সেই নমুনা পাঠানো হয় মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজে। সেখানকার আইসিএমআর অনুমোদিত ভাইরোলজি ল্যাবে সেই নমুনা পরীক্ষা হয়।ওই বালকের সঙ্গে ওই দিনই বলপাইয়ের ৫৩ বছর বয়সী আরও একজনের নমুনা পাঠানো হয়। দুজনেরই পজিটিভ আসে। ১৪তারিখ দুই পরিবারের সমস্ত সদস্যেরই আ্যন্টিজেন পরীক্ষা হয় সবং গ্রামীন হাসপাতালে। দেখা যায় বালকের পরিবারের ৫জন পজিটিভ। এরপরই তাঁদের লালা রস সংগ্ৰহ করে মেদিনীপুর পাঠানো হয়। ১৬ তারিখ রাতের ফলে দেখা যায় ৫ জনের ৪ জন পজিটিভ কিন্তু ৪০বছরের এক মহিলা আ্যন্টিজেন পরীক্ষায় পজিটিভ হয়েও আরটি/পিসিআরে নেগেটিভ।

আরটি/পিসিআর পরীক্ষাকে এই কারনে গোল্ডেন স্ট্যান্ডার্ড পরীক্ষা বলা হয় যেন জীবাণুর অতি ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র অস্তিত্ব এখানে ধরা পড়ে এমনকি ধ্বংস হয়ে যাওয়া জীবাণুর অস্তিত্বও এখানে ধরা পড়ে। ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা অপরাধের কিনারা করতে এই পরীক্ষা ব্যবহার করেন। পুড়ে ছাই হয়ে যাওয়া কোনও জায়গায় যদি প্রাণীদের দেহাবশেষ সেই ছাইয়ের সঙ্গে ছাই হয়েও মিশে থাকে আরটি/পিসিআরে তা ধরা পড়বেই। খুনের পর দেহ পুড়িয়ে দেওয়া বা গলিয়ে দেওয়ার পরও অপরাধি ধরা পড়েছে এই পরীক্ষার ফলেই। তাই আরটি/পিসিআর পজিটিভ বা নেগেটিভ মানেই তা পজিটিভ বা নেগেটিভ। যদি আ্যন্টিজেন পরীক্ষায় পরীক্ষায় পজেটিভ হয়েও যদি আরটি/পিসিআর নেগেটিভ হয়, যদি অন্য কোথাও ভুল না থাকে তবে এই ফলাফলকে নেগেটিভ ধরতেই হবে কিন্তু তাহলে প্রশ্ন উঠবে আ্যন্টিজেন পজিটিভ মানেই পজিটিভ এই তত্ত্বটার কি হবে?

আরও পড়ুন -  ডেবরায় আক্রান্ত টোল প্লাজার কর্মী, বিপাকে কর্তৃপক্ষ! বন্ধ হওয়ার মুখে প্লাজা

দাঁতনের এক চিকিৎসকের একই ভাবে আ্যন্টিজেন পরীক্ষায় পজিটিভ হওয়ার পর আরটি/পিসিআরে নেগেটিভ ফল আসে। বিষয়টি নিয়ে শোরগোল পড়ে যায় পরে স্বাস্থ্যদপ্তরের পক্ষে জানানো হয় আরটি/পিসিআর রিপোর্টে ভুল করে নেগেটিভ লেখা হয়েছে ওটা পজিটিভই হবে। সবংয়ের ব্যাপারে এখনো তেমন কিছু জানানো হয়নি। বলা হয়েছে, খতিয়ে দেখা হচ্ছে বিষয়টা। এক্ষেত্রে ঠিক কোথায় সমস্যা হয়েছে তা খতিয়ে দেখার পরই বলা যাবে সঠিক বিষয়টি কি?

আরও পড়ুন -  কেন্দ্রীয় বোর্ডের পথেই রাজ্য, বাতিল উচ্চমাধ্যমিকের বকেয়া পরীক্ষা, নির্ধারিত মূল্যায়ন বিধি মেনেই জুলাইয়ে ফল প্রকাশ

এদিকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কয়েকদিন আগে একটি বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছিল যে, ব্লক স্তর থেকে জেলা স্তর অবধি কোনও আধিকারিকের সঙ্গে দেখা করতে গেলে সঙ্গে করোনা মুক্ত বা কোভিড নেগেটিভ সার্টিফিকেট রাখতে হবে। পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল সবাই যেন আ্যন্টিজেন পরীক্ষা করান। ১৬তারিখ সেই বিজ্ঞপ্তি প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। বিতর্কের মুখে এই বিজ্ঞপ্তি প্রত্যাহার করা হয়েছে বলেই জানা গেছে। নতুন বিজ্ঞপ্তিতে জনসাধারনকে আ্যন্টিজেন পরীক্ষার জন্য আহবান জানানো হলেও আধিকারিকদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে করোনামুক্ত সার্টিফিকেট সঙ্গে রাখতে হবে এই বিষয়টি তুলে দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ ওই সার্টিফিকেট আর বাধ্যতামূলক রইলনা।

এবার সবংয়ে আ্যন্টিজেনে পজিটিভ হয়েও নেগেটিভ, কোভিড সার্টিফিকেট সম্পর্কিত নির্দেশিকা বদল জেলার 2