সবংয়ে মাতাল ছেলের লাগিয়ে দেওয়া আগুনে সর্বস্ব খোয়াল পরিবার

2413

নিজস্ব সংবাদদাতা: এক মাতাল ছেলের বেয়াদপির প্রতিবাদ করেছিলেন বাবা তারই পরিনতি নিদারুন হল শেষ অবধি, বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দিয়ে সর্বস্ব পুড়িয়ে দিল মাতাল সন্তান। ঘটনায় গনরোষ তৈরি হয়েছে এলাকায়। পুলিশের ভয়ে পলাতক গুনধর। শনিবার রাতে চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর সবং ব্লকের জুলকাপুর এলাকায়।সবংয়ে মাতাল ছেলের লাগিয়ে দেওয়া আগুনে সর্বস্ব খোয়াল পরিবার 1 স্থানীয় বাসিন্দা ও সর্বস্ব হারানো পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে জানা গেছে, দেভোগ গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত জুলকাপুর গ্রামের গৃহস্থ বিজয় মানার দুই ছেলে। বড় ছেলে ও বৌমা বিকাশের সঙ্গেই থাকে। বছর আটান্নর বিজয় মানা ও তার পরিবার নিম্ন মধ্যবিত্ত, কোনও রকমে সংসার চলে। বিজয়ের ছোট ছেলে বিকাশ বাবা-মার কাছ থেকে কয়েক বছর ধরে আলাদা রয়েছে। বাবার বাড়ি থেকে বেশ কিছুটা দূরে নিজের স্ত্রী পুত্রকে নিয়ে থাকে। সবংয়ে মাতাল ছেলের লাগিয়ে দেওয়া আগুনে সর্বস্ব খোয়াল পরিবার 2বিকাশ পেশায় লরির হেলপার। সময়ে ছোট খাটো গাড়ি চালায়। অভিযোগ প্রায়শই মদ খায় এবং মদের নেশায় নিজের বউ ছেলেকে মারধর গালাগালি করে থাকে। নিত্য দিনের এই অশান্তি লেগেই থাকে। বিজয় এলাকার স্থানীয় বিজেপি নেতা। ছেলের বউ এসে প্রায় ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানায়। বিজয় কিছু বলতে গেলে মাতাল বিকাশ বাবাকেও ছেড়ে কথা বলেনা। গালাগালি করে।

আরও পড়ুন -  মদের ঠেকের জন্যই মৃত্যু ব্যক্তির, কোলাঘাটে মহিলারাই ভাঙচুর চালালো মহিলারা

গত শুক্রবার মদ্যপ অবস্থায় বিকাশ বউকে বেধড়ক মারধর করে। বাবাকে আটকাতে গিয়ে বেধড়ক মার খায় কিশোর ছেলেও। পুত্রবধূ আর নাতির এই পরিণতি মানতে পারেননি বিজয়। তিনি পুত্রবধূকে পরামর্শ দেন বাপের বাড়ি চলে যাওয়ার জন্য। শ্বশুরের কথায় বউমা বাপের বাড়ি চলে যায়। এরপরই বিকাশ হুমকি দিয়েছিল বাবাকে দেখে নেওয়ার। শনিবার মধ্যরাতে বিজয় মানার পুরো পরিবার যখন ঘুমিয়ে ছিল তখুনি সম্ভবত বিজয়ের বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয় বিকাশ। সম্ভবত বলা এই কারনেই যে স্বচক্ষে ঘটনাটি কেউ দেখেনি তবে বিজয়ের অভিযোগ তাই।

বিজয় জানান, গতকাল আমার ছেলে বিকেলে এসে আমাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়ে যায় এবং অকথ্য গালিগালাজ করে। তারপরই গতকাল রাতে আমরা ঘুমিয়ে যাওয়ার পর ছেলে বাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয় কিছু দুষ্কৃতী কে নিয়ে এসে।”
আগুন লাগতে দেখেই রাতেই প্রতিবেশীরা ঝাঁপিয়ে পড়েন আগুন নেভাতে। এলাকাবাসীদের তৎপরতায় আগুন নেভানো সম্ভব হয়। তবে প্রায় সব কিছুই পুড়ে গিয়েছে বিজয় এবং তার পরিবারের। এই ঘটনার সময় থানায় অভিযোগ করে ছেলের বাবা। মধ্যরাতেই ঘটনাস্থলে আসে সবং থানার পুলিশ। পুরো ঘটনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। অভিযুক্ত ছেলে পলাতক। গোটা ঘটনায় বিকাশের ওপর ক্ষেপে রয়েছেন এলাকাবাসী। এদিকে বিজয় রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় বিষয়টিকে নিয়ে প্রাথমিক ভাবে রাজনীতির চেষ্টা করা হয়েছিল প্রথম দিকে কিন্তু স্থানীয় বাসিন্দাদের কঠোর মনোভাবে পিছিয়ে যায় তারা।

সবংয়ে মাতাল ছেলের লাগিয়ে দেওয়া আগুনে সর্বস্ব খোয়াল পরিবার 3