করোনায় আক্রান্ত সবং ও.সি, আক্রান্ত এক সিভিকও, ডজন ছুঁয়ে ফেলল থানা

1851

নিজস্ব সংবাদদাতা: করোনা বিপদ যেন চেপে ধরেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের সবংকে। ঘন ঘন সংক্রমনের খবর আসছে সবং থেকে। কয়েকদিন আগেই এক সঙ্গে ১০ জন পুলিশ কর্মী আক্রান্ত হওয়ার পরই আক্রান্ত হলেন স্বয়ং সবং থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক সুব্রত বিশ্বাস।

মাত্র কয়েকদিন আগেই তিনি আ্যন্টিজেন পরীক্ষা করিয়েছিলেন কিন্ত নেগেটিভ হয়েছিলেন মাত্র দিন পাঁচ দিনের মাথায় মঙ্গলবার ফের পরীক্ষা করাতে গিয়েই জানা যায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় তিনিই একমাত্র ওসি বা থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক যিনি করোনা আক্রান্ত হলেন। এর আগে জেলায় ৩ জন বিডিও আক্রান্ত হয়েছেন কিন্তু কোনও ওসি আক্রান্ত হননি।

সবং গ্রামীন হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে গতকাল অর্থাৎ সোমবার সামান্য অস্বস্তি অনুভব করেছিলেন ওসি সুব্রত বিশ্বাস। সামান্য গা ম্যাজ ম্যাজ ও মাথা ধরার অনুভূতি হয় তাঁর। ফলে কোনো ঝুঁকি নিতে চাননি। প্রায় একই অনুভূতি নিয়ে ওসি সহ চারজন মঙ্গলবার সবং গ্রামীন হাসপাতালে আ্যন্টিজেন পরীক্ষা করান যাঁর মধ্যে ওসি ছাড়াও আরও এক সিভিক ভলান্টিয়ারের পজিটিভ আসে।

আরও পড়ুন -  ভাই ফোঁটা দিতে হেলমেট বিহীন সফরে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, জাতীয় সড়কে দুই শিশুকে নিয়ে মৃত্যু মহিলার, আশংকায় স্বামীও

গত ২৮ আগষ্ট ওসি সহ মোট ৪৫ জন পুলিশ কর্মী করোনা পরীক্ষার জন্য আ্যন্টিজেন পরীক্ষা করান যেখানে ১০জন পজিটিভ হন যার মধ্যে কয়েকজন সাব ইন্সপেক্টর ও সহকারি সাব ইন্সপেক্টর ছিলেন। ছিলেন কয়েকজন সিভিক ও এনভিএফ কর্মীও। সৌভাগ্যক্রমে সেই সময় ওসি নেগেটিভ হয়েছিলেন কিন্তু এবার শেষরক্ষা হলনা।

আরও পড়ুন -  বাপ কি বেটি! ১২০০কিমি সাইকেলে চাপিয়ে বাড়িতে আনল মেয়ে, বিস্মিত সারা দেশ, স্যালুট জানালেন ট্রাম্প কন্যা ইভাঙ্কা

আক্রান্ত জানার পরই নিজেকে নিজের আবাসনেই আইসোলেশনে সরিয়ে নিয়েছেন বিশ্বাস। আপাতত সেখানেই থাকছেন তিনি যদিও স্বাস্থ্যদপ্তরই এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে তাঁর শরীরের অবস্থা পর্যবেক্ষণ করার পর। আগে যে ১০জন পুলিশ কর্মী আক্রান্ত হয়েছিলেন তাঁরা থানার মধ্যেই একটি পৃথক সেফ হোম বানিয়ে রয়েছেন।

আরও পড়ুন -  বীর শহীদ ভগৎ সিংয়ের অনুকরনে ফাঁসির অভিনয় করতে গিয়ে মৃত্যু বালকের

এক স্বাস্থ্য আধিকারিক জানিয়েছেন, “শীর্ষস্তরীয় করোনা যোদ্ধাদের জন্য জেলার করোনা হাসপাতালে বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে। তিনি চাইলে সেখানে আসতেই পারেন। যেমন চন্দ্রকোনা ও কেশিয়াড়ির বিডিওকে আনা হয়েছিল। আবার নারায়নগড়ের বিডিওর মত তিনি নিজের আবাসনে থাকতেও পারেন। আমরা ওনার অন্য কোনও সমস্যা আছে কিনা জেনে নিয়ে সিদ্ধান্ত নেব। তবে আপাতত উনি নিজের আবাসনেই থাকার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন।”

করোনায় আক্রান্ত সবং ও.সি, আক্রান্ত এক সিভিকও, ডজন ছুঁয়ে ফেলল থানা 1