দলের গোপন তথ্য ফাঁস করেছে শঙ্কর; বিস্ফোরক অভিযোগ বাম নেতা অশোকের

263
দলের গোপন তথ্য ফাঁস করেছে শঙ্কর; বিস্ফোরক অভিযোগ বাম নেতা অশোকের 1

অশ্লেষা চৌধুরী: “দলে থেকে দলের গোপন তথ্য ফাঁস করেছে শঙ্কর, পদ্ম শিবিরে শঙ্করের যোগদানের পরের দিনই বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন শিলিগুড়ি বাম মনোনীত প্রার্থী তথা বর্ষীয়ান বাম নেতা অশোক ভট্টাচার্য। “গুরুজন বলছেন, গুরুজনকে বলতে দিন”, প্রতিক্রিয়া সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া শঙ্কর

দলের গোপন তথ্য ফাঁস করেছে শঙ্কর; বিস্ফোরক অভিযোগ বাম নেতা অশোকের 2

এদিন পুরসভার ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে প্রচারে বের হন সংযুক্ত মোর্চার বাম মনোনীত শিলিগুড়ি বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী অশোক ভট্টাচার্য। এদিন প্রচারে বেরিয়ে এলাকার সাধারন মানুষের উষ্ণ সম্বর্ধনায় আপ্লুত হন অশোক ভট্টাচার্য। শাঁখ বাজিয়ে, ফুল ছিটিয়ে, প্রদীপ দিয়ে এলাকাবাসীরা তাঁকে বরণ করে নেন। দীর্ঘসময় তাদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি, শোনেন তাদের নানান সুবিধা-অসুবিধার কথা। পরিশেষে সদ্য বিজেপিতে যুক্ত হওয়া সিপিএম নেতা শঙ্কর ঘোষকে নিয়ে সুর চড়ান অশোক। তাকে বিশ্বাসঘাতক আখ্যা দেন তিনি। তিনি জানান, ‘দলে থেকে দলের বিরুদ্ধে কাজ করছিল শঙ্কর ঘোষ। শুধু তাই নয়, দলে থেকে দলের গোপন তথ্য বাইরে ফাঁস করতেন শঙ্কর, বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

দলের গোপন তথ্য ফাঁস করেছে শঙ্কর; বিস্ফোরক অভিযোগ বাম নেতা অশোকের 3

প্রসঙ্গত, বাম ছাত্র রাজনীতি থেকে রাজনীতিতে প্রবেশ সিপিএম নেতা শঙ্কর ঘোষের। ৩০ বছর ধরে তাঁকে কট্টর বামপন্থী বলেই জানত শিলিগুড়িবাসীরা। পাশাপাশি বাম নেতা অশোক ভট্টাচার্য অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত ছিলেন শঙ্কর। কিন্তু দীর্ঘ ৩০বছর ধরে চলা বাম নীতিকে বিদায় জানিয়ে শেষে শনিবার কৈলাসের হাত ধরে গেরুয়া শিবিরে পা রাখেন শিলিগুড়ির দাপুটে ও অশোক ঘনিষ্ট বাম নেতা শঙ্কর ঘোষ। শিলিগুড়ির একটি বেসরকারি হোটেলে বিজেপির রাজ্য পর্যবেক্ষক তথা কৈলাস বিজয়বর্গীয় হাত থেকে গেরুয়া শিবিরের পতাকা হাতে তুলে নেন তিনি।

যোগদান করে শঙ্কর বলেন, ‘পদ নয় নিজেকে মানুষের কাজে বিলিয়ে দিতেই তার এই যোগদান। ৩০ বছর ধরে বিদায়ী দলের হয়ে মানুষের জন্য যে ভাবে কাজ করে এসেছেন, আগেও একই ভাবে কাজ করে যাবেন। এরপরেই সদ্য প্রাক্তন দল সম্পর্কে একের পর এক অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘যেদিন আমি সাংবাদিক সম্মেলন করেছিলাম সেদিন আবেগে ভেসে গিয়েছিলাম। কিন্তু আজ বলছি আমি যা করেছি বেশ করেছি, ঠিক করেছি। কারণ যে দলটা আমি ৩০বছর ধরে করতাম তারা যুব সমাজকে কোনওভাবেই উঠতে দিতে চায় না। একটি আসনে যে জিতে চলছে সেই প্রার্থী, আরেকটি আসনে যে হেরে চলছে সেই প্রার্থী। কোনওরকম পরিবর্তনের কিছু নেই। সবারই একটা প্রত্যাশা থাকে তা এই দলে থেকে পুরণ হবে না। অনেক যন্ত্রণা নিয়েই আমি শেষ কয়েকমাস ধরে দল করছিলাম। আজ অনেকটা হালকা মনে হচ্ছে। ৩০বছর আমি আমার প্রাক্তন দলের বিরুদ্ধে কোনও কথা বলিনি। নতুন দলেও আমাকে যে দায়িত্ব দেওয়া হবে আমি তা পালন করব।“‘

অপরদিকে এই যোগদান প্রসঙ্গে এদিন বামফ্রন্ট প্রার্থী অশোক ভট্টাচার্য বলেন, শঙ্করকে নিয়ে কিছু বলার নেই। ও এখন আমাদের কাছে ক্লোজড চাপটার। আমাদের আগেই বোঝা উচিৎ ছিল, কিন্তু আমরা বুঝতে পারিনি যে ও এরকম করবে। তবে এই এরকম ব্যক্তিদের প্রসঙ্গে যত কম বলা যায়, তত ভালো। আমাদের দল তাকে বহিষ্কৃত করেছে তাই তার বিষয়ে কোন কথা বলতে চান না বলেই জানান অশোক বাবু।

তবে শনিবার সকালে প্রচারে বেরিয়েই দলত্যাগী শঙ্করকে বিশ্বাসঘাতক আখ্যা দিয়ে বসেন তিনি এবং দলে থেকে শঙ্কর দলের তথ্য অন্যত্র পাচার করত বলেও অভিযোগ করেন অশোক বাবু। অশোকের এমন মনব্যে পাল্টা প্রতিক্রিয়া দিয়ে দলত্যাগী শঙ্কর ঘোষ বলেন, “গুরুজন বলেছেন গুরুজনকে বলতে দিন। ৩০ বছর রাজনীতি করেছি, অনেককিছু শিখেছি ওনার থেকে, তা ভবিষ্যতে কাজে লাগবে।“

Previous articleসাতসকালে শহরের বুকে দুটি পৃথক ও মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, এক মহিলা সহ ২ জনের মৃত্যু
Next articleমাত্র ১কিলোমিটারের কর্মসূচি নিয়ে রবিবার খড়গপুরে অমিত শাহ! গুরুত্ব ঝাড়গ্রামেই, খড়গপুর নিয়ে ‘রিল্যাক্স’ মুডেই বিজেপি