৭দিন ধরে হাসপাতালের বাইরে পড়ে রয়েছে অসুস্থ শিশু, ভর্তি না নেওয়ায় টিউমার ফেটে মৃত শিশু, কাঠগড়ায় SSKM

261
৭দিন ধরে হাসপাতালের বাইরে পড়ে রয়েছে অসুস্থ শিশু, ভর্তি না নেওয়ায় টিউমার ফেটে মৃত শিশু, কাঠগড়ায় SSKM 1

ওয়েব ডেস্ক : মাত্র দেড় বছরের একরত্তি শিশু। জন্ম থেকেই পিঠের ডানপাশে একটি টিউমার থাকায় অসুখে ভুগছে। এত ছোটো শিশুর অপারেশ না করায় বাড়িতেই ছিল সে। কিন্তু দিন কয়েক আগে আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়ায় NRS হাসপাতালে নিয়ে এসেছিল শিশুটির মা-বাবা। আশা ছিল কলকাতার কোনো না কোনো সরকারি হাসপাতালে বেড মিলবে। কিন্তু NRS থেকে SSKM গত ৭ দিন যাবৎ একাধিক হাসপাতালে ঘুরলেও কোথাও বেড মিলল না। এদিকে ৭দিন SSKM হাসপাতালের জরুরী বিভাগের সামনে শিশুটিকে ভর্তি করার আশায় বসেছিলেন বাবা-মা। শেষমেষ ৭দিন পর বিনা চিকিৎসায় টিউমার ফেটে পুঁজ রক্ত বেরিয়ে মৃত্যু হল কালনার দেড় বছরের শিশুর। করোনা পরিস্থিতিতে কলকাতার বিভিন্ন হাসপাতালগুলির তরফে বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই অন্যান্য অসুখের রোগীদের ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে, তাদের পরিষেবা দেওয়া হচ্ছে না। এবিষয়ে একাধিকবার স্বাস্থ্য দফতরের তরফে রোগী না ফেরানোর নির্দেশ দিলেও কোনো তোয়াক্কাই নেই সরকারি হাসপাতালগুলির।

আরও পড়ুন -  খড়গপুরের হিজলী স্টেশনে রাজধানী এক্সপ্ৰেসে আসা দুই পরিবারের কাছ থেকে আটক নগদ ১১ লক্ষ টাকা ও ৪০ লক্ষ টাকা মূল্যের গহনা

সূত্রের খবর, শিশুটি জন্মানোর পরেই তাঁর পিঠের ডানদিকে একটা টিউমার ছিল। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, যেহেতু শিশুটির বয়স মাত্র দেড় বছর, সেক্ষেত্রে এই বয়সে টিউমারটি অপারেশন করলে সেক্ষেত্রে তার প্রাণের ঝুঁকি থাকতে পারে। একথা মাথায় চিকিৎসকরা জানিয়েছিল আড়াই বছরের আগে কোনোভাবেই অপারেশন করা সম্ভব নয়। তবে এতদিন শরীর ভালো থাকলেও লকডাউনের পর থেকেই তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। বিপদ বুঝে তড়িঘড়ি শিশুকে কালনার অম্বিকা হাসপাতালে নিয়ে যায় তার বাবা-মা। কিন্তু অবস্থা এতটাই গুরুতর যে সেখান থেকে তাঁকে NRS হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। এদিকে কোনোভাবে NRS-এ এসে পৌঁছালে সেখান থেকে পাঠানো হয় SSKM-এ। সেখানেও একই অবস্থা। বেড না থাকায় ভর্তি নিতে পারবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেয় SSKM কর্তৃপক্ষ। সেই সময় আচমকা শিশুর পিঠের টিউমার ফেটে পুঁজ রক্ত বেরোতে শুরু করে। এদিকে হাসপাতালে বেড পাওয়ার আশায় গত ৭ দিন SSKM-এর জরুরি বিভাগের সামনেই শিশুটিকে নিয়ে অপেক্ষা করেন তার বাবা-মা।

কিন্তু গত ৭ দিনে বারংবার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করলেও তাতেও কোনো লাভ হয়নি। সোমবার বিনা চিকিৎসাতেই মৃত্যু হয় শিশুটির। এই ঘটনায় শিশুটির পরিবারের অভিযোগ,চিকিৎসকদের গাফিলতিতেই মৃত্যু হয়েছে খুদের। এদিকে শিশুটি বেঁচে থাকাকালীন তার পরিবারকে হাসপাতালে ঢুকতে না দিলেও মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসতেই শিশুর বাবা-মাকে হাসপাতালের ভিতরে নিয়ে গিয়ে হাসপাতালের পিছনের দরজা দিয়ে শিশুর দেহ এবং পরিবারকে বর্ধমানে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। যদিও এই গোটা ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোনও মন্তব্য করেনি SSKM হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

৭দিন ধরে হাসপাতালের বাইরে পড়ে রয়েছে অসুস্থ শিশু, ভর্তি না নেওয়ায় টিউমার ফেটে মৃত শিশু, কাঠগড়ায় SSKM 2