কাজ করছে মোদী আর ছবি তুলছে দিদি! খড়গপুর গ্রামীনের বাড়-গোকুলপুরে তৃণমূলকে কটাক্ষ স্মৃতি ইরানির

384
কাজ করছে মোদী আর ছবি তুলছে দিদি! খড়গপুর গ্রামীনের বাড়-গোকুলপুরে তৃণমূলকে কটাক্ষ স্মৃতি ইরানির 1

কাজ করছে মোদী আর ছবি তুলছে দিদি! খড়গপুর গ্রামীনের বাড়-গোকুলপুরে তৃণমূলকে কটাক্ষ স্মৃতি ইরানির 2নিজস্ব সংবাদদাতা: কেন্দ্রের সমস্ত প্রকল্প রাজ্য নিজের নামে চালাচ্ছে এমন অভিযোগ বিজেপির বরাবরই। বিধানসভা ভোটের আগে সেই খোঁচাটাই আরেকবার দিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপি নেত্রী স্মৃতি ইরানী। সোমবার খড়গপুর গ্রামীন থানার অন্তর্গত বাড় গোকুলপুর গ্রামে বিজেপি প্রার্থীর সমর্থনে একটি নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে তৃনমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এমনই বাক্যবানে বিঁধলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

কাজ করছে মোদী আর ছবি তুলছে দিদি! খড়গপুর গ্রামীনের বাড়-গোকুলপুরে তৃণমূলকে কটাক্ষ স্মৃতি ইরানির 3

উল্লেখ্য এই এলাকাটি খড়গপুর গ্রামীন থানার অন্তর্গত হলেও এটি পিংলা বিধানসভা কেন্দ্রের আওতায় পড়ে। এখানে প্রার্থী হয়েছেন বিজেপির ঘাটাল সাংগঠনিক জেলার সভানেত্রী অন্তরা ভট্টাচার্য্য। তাঁরই সমর্থনে এদিন হেলিকপ্টার যোগে বাড় গোকুলপুরে এসে পৌঁছান একদা হিন্দি জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘কিঁউ কী শাস ভি কভি বহু থি’ র নায়িকা।

কাজ করছে মোদী আর ছবি তুলছে দিদি! খড়গপুর গ্রামীনের বাড়-গোকুলপুরে তৃণমূলকে কটাক্ষ স্মৃতি ইরানির 4

এদিন সভামঞ্চ থেকে একাধিক প্রতিশ্রুতি সহ তৃণমূল সরকারের উপর নিশানা করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি, তিনি বলেন কেন্দ্রের যা কিছু প্রকল্প বাংলায় এসেছে তার নাম পরিবর্তন করে চালানো হচ্ছে, কাজ করছে মোদী ছবি তুলছে দিদি,পাশাপাশি আগামী নির্বাচনে পরিবর্তনের পরিবর্তন বার্তা দিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি, পাশাপাশি এলাকার কৃষক কৃষকদের কেন্দ্রের কৃষি দুজনার সম্পর্কে তিনি বলেন এখানের কৃষকরা কেন্দ্রীয় কৃষক প্রকল্পের সুবিধা পাচ্ছেন না দিদির কারণে, আমরা যদি ক্ষমতায় আছি কেন্দ্রীয় সমস্ত প্রকল্পের সুবিধা পাবে সাধারণ মানুষ পাশাপাশি সোনার বাংলা গড়ার বার্তা দিলেন স্মৃতি ইরানী।

এদিন সোনার বাংলা নির্মাণের প্রসঙ্গ তুলে স্মৃতি ইরানী ফের ২০১৪ নরেন্দ্র মোদির কায়দাতেই প্রত্যেক কৃষকের ব্যংক আ্যকাউন্টে নানা রকমের প্রকল্পের টাকা ঢুকে যাওয়ার কথা বলেছেন যেমনটা মোদি বলেছিলেন দেশে বিজেপির সরকার প্রতিষ্ঠিত হলে সবার আ্যকাউন্টে ১৫লাখ করে টাকা ঢুকে যাবে। ইরানী বলেছেন বাংলায় বিজেপি সরকার হলে প্রতিটি গরিব পরিবারে কেন্দ্র আর রাজ্যের মোট ১০ হাজার করে টাকা ঢুকবে, মধ্যবিত্তের আ্যকাউন্টে ৬হাজার করে ঢুকবে, ছাত্রীদের তহবিলে ২লাখ করে ঢুকবে। সেই ২০১৪ সালের মোদির কায়দাতেই ফের প্রতিবারে একজনের চাকরির স্বপ্ন দেখিয়ে গেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

নিজেদের শাসিত উত্তর প্রদেশ মহিলা নির্যাতনের শীর্ষে থাকলেও বাংলায় নারী নির্যাতন বন্ধ করা হবে প্রতিশ্রুতি দিয়ে গেছেন মন্ত্রী। মমতা ব্যানার্জী রাজত্বে কাটমানি আর সিন্ডিকেট রাজ চলছে বলে তিনি অভিযোগ করে গেছেন যে, দিদি বলছেন তিনি নাকি বাংলার মেয়ে। আপনারা আমাকে বলুন কোনও মেয়ে তার ঘরের চাল চুরি করে নাকি ত্রিপল চুরি করে? কোনো মেয়ে কী তার ঘরের কাজ করার জন্য কাটমানি খায়?

পিংলা বিধানসভা ক্ষেত্রের দলীয় প্রার্থী অন্তরা ভট্টাচার্যকে জেতানোর আহবান জানিয়ে স্মৃতি ইরানী বলেন, ওই দিদি নয় আপনারা আপনাদের ঘরের দিদি অন্তরা ভট্টাচার্যকে পদ্মফুলে বোতাম টিপে জেতান। উল্লেখ্য এই বিধানসভায় তৃনমূলের হয়ে দলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতি এবং সংযুক্ত মোর্চার পক্ষে জেলার কংগ্রেস সভাপতি সমীর রায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

Previous articleমহানগরে ভয়াবহ হত্যাকাণ্ড! মদ খাইয়ে বেহুঁশ করে রাতের অন্ধকারে গায়ে কেরোসিন ঢেলে বাবাকেই জ্বালিয়ে দিল মেয়ে, বাবার অত্যাচারের প্রতিশোধ নাকি পেছনে অন্য রহস্য তদন্তে পুলিশ
Next articleগেরুয়া শিবিরে যোগদানের পরের দিনই বিজেপি প্রার্থীর হয়ে ঝাঁপালেন শিশির অধিকারী