বড়দিনে শালবীথির উদ্যোগে সমাজসেবা মূলক কর্মসূচি

176
বড়দিনে শালবীথির উদ্যোগে সমাজসেবা মূলক কর্মসূচি 1

নিজস্ব সংবাদদাতা, মেদিনীপুর: আবারো মানবিক মুখ নিয়ে এগিয়ে এলো কেবলমাত্র মহিলাদের দ্বারা পরিচালিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন শালবীথি।বড়দিন উপলক্ষ্যে শালবীথি সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হলো সমাজ সেবা মূলক কর্মসূচি। শুক্রবার বড়দিনের দিনে বেশকিছু অসহায় বৃদ্ধ-বৃদ্ধা ও আর্থিক দিক থেকে পিছিয়ে থাকা শিশুদের সাথে বড়দিনের আনন্দ ভাগ করে নিলেন শালবীথির সদস্যারা এবং তাঁদের শুভানুধ্যায়ী অতিথিরা।

এদিন সকালে শালবীথির সদস্যারা এবং তাঁদের অতিথিরা মেদিনীপুর সেন্ট্রাল বাসস্ট্যান্ডে অবস্থিত মেদিনীপুর পুরসভা জনকল্যাণ ভবনে উপস্থিত হন। সেখানার বৃদ্ধাবাসে থাকা অবস্থায় বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের হাতে সকালের প্রাতঃরাশ তুলে দেওয় হয় শালবীথির পক্ষ থেকে। পাশাপাশি বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের আনন্দ দিতে আবৃত্তি ও সঙ্গীত পরিবেশন করেন শালবীথির সদস্যারা।

বড়দিনে শালবীথির উদ্যোগে সমাজসেবা মূলক কর্মসূচি 2

এইকাজে শালবীথিকে সহযোগিতা করেন জনকল্যাণ ভবন দেখভালের দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিবর্গ।এরপর শালবীথির সদস্যারা ও শুভানুধ্যায়ীরা পৌঁছে যান পাথর কুমকুমির কাছে অবস্থিত বাঘমারি গ্রামে। সেখানে বিশিষ্ট সমাজসেবী, চুনি কোটাল চ্যারিটিবল ট্রাস্টের চেয়ারম্যান,কবি মৃণাল কোটালের সহযোগিতায় ও উপস্থিতিতে শালবীথির পক্ষ থেকে আর্থিক দিক থেকে কিছুটা পিছিয়ে থাকা ৮০ জন শিশুর হাতে বড়দিনের নানা উপহার তুলে দেওয়া হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান তপন নায়েক।এখানে শালবীথির শুভানুধ্যায়ী দুই শিক্ষক মনিকাঞ্চন রায় ও নরসিংহ দাস সান্তাক্লজ সেজে আনন্দ দেওয়ার পাশাপাশি চকলেট, পেন,পেন্সিল ইত্যাদি তাদের সান্তার ঝোলা থেকে বের করে বাচ্চাদের হাতে উপহার স্বরূপ তুলে দেন।বাচ্চারা আনন্দে মেতে ওঠে ।

এখানেও বাচ্চাদের হাতে শালবীথির পক্ষ থেকে সকালের প্রাতঃরাশ তুলে দেওয়া হয় । এদিনের কর্মসূচিতে শালবীথির শুভানুধ্যায়ী অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রবীন্দ্র স্মৃতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক, শিক্ষক লক্ষণ চন্দ্র ওঝা, জঙ্গলমহল উদ্যোগের জেলা সম্পাদক,শিক্ষক সুব্রত মহাপাত্র,ডিসিসিআই-এর মহিলা সেলের সভানেত্রী কান্তা বসু,সমাজকর্মী শিক্ষক সুদীপ কুমার খাঁড়া,পরিবেশ প্রেমী শিক্ষক মণিকাঞ্চন রায়, শিল্পী শিক্ষক নরসিংহ দাস প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন শালবীথি সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন সভাপতি পাঞ্চালী চক্রবর্তী , সম্পাদিকা রীতা বেরা,সদস্যা মনোয়ারা বেগম, মৃদুলা ভূঁইয়া ঝুমঝুমি চক্রবর্তী ,সোনালী সিনহা, কৃষ্ণা রায়, মৌসুমী ভট্টাচার্য্য প্রমুখ।

এদিন উপস্থিত না থেকেও সহযোগিতা করেন রাজশ্রী মন্ডল , দীপান্বিতা খান,সুদীপ্তা দে,রুমা কর প্রমুখ। এদিন বাসস্ট্যান্ডে জনকল্যাণ ভবনের অনুষ্ঠানে সবাইকে স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি পাঞ্চালি চক্রবর্তী এবং বাঘমারির অনুষ্ঠানে সবাইকে স্বাগত জানিয়ে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সম্পাদিকা রীতা বেরা। কর্মসূচি সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন হওয়ায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে শালবীথির পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে। উল্লেখ্য করোনা আবহে কয়েক মাস আগে সমাজসেবার লক্ষ্য নিয়ে কেবলমাত্র মহিলাদের নিয়ে এই শালবীথি সংগঠনটি গড়ে উঠেছে।