চলতি বছরের শেষ সূর্য গ্রহণ, জেনে নিন কোন কোন রাশির ওপর পড়বে প্রভাব

452
চলতি বছরের শেষ সূর্য গ্রহণ, জেনে নিন কোন কোন রাশির ওপর পড়বে প্রভাব 1

নিউজ ডেস্ক: চলতি বছরের শেষ সূর্যগ্রহণ হতে চলেছে ১৪ই ডিসেম্বর। এই সূর্যগ্রহণ সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত হবে। এটি বৃশ্চিক রাশিতে হতে চলেছে। এর প্রভাব বিশ্বের সব জায়গায় সমস্ত রাশিগুলির ওপর দৃশ্যমান হবে। এই গ্রহণটিকে খন্ডগ্রাস সূর্যগ্রহণ হিসাবে বিবেচনা করা হয়। ভারতীয় সময় অনুসারে, এই সূর্যগ্রহণের সময় সন্ধ্যা ৭টা ০৩মি. এবং এর সমাপ্তি হবে মধ্যরাত অর্থাৎ ১৫ই ডিসেম্বর ১২টা ২৩ এ। গ্ৰহণের সময়সীমা মোট ৫ ঘন্টা।।

১৪ ডিসেম্বর যে সূর্য গ্রহণ হবে, তা ভারতে দৃশ্যমান হবে না, কারণ এই সূর্য গ্রহণের সময় ভারতে রাত থাকবে। এটি দক্ষিণ আফ্রিকা,প্রশান্ত মহাসাগর সহিত দক্ষিণ আমেরিকা, মেক্সিকো সৌদি আরব, কাতার, সুমাত্রা, মালয়েশিয়া, ওমান, সিঙ্গাপুর, নর্থ মারিনা আইল্যান্ড এবং শ্রীলঙ্কাতেও এটি দেখা যাবে।

চলতি বছরের শেষ সূর্য গ্রহণ, জেনে নিন কোন কোন রাশির ওপর পড়বে প্রভাব 2

উল্লেখ্য, আমাদের দেশে না দেখা যাওয়ার কারণে এই সূর্যগ্রহণকে খন্ডগ্রাস বলা হচ্ছে। খন্ডগ্রাস সূর্যগ্রহণের সময় মন্দিরের দরজা বন্ধ করা হয় না।

সূর্য গ্রহণের সময় বৃশ্চিক রাশির জাতকদের বিশেষ ভাবে সতর্ক থাকতে হবে, কারণ এই বার গ্রহণ বৃশ্চিক রাশিতেই লাগতে চলেছে। সূর্য গ্রহণের সময় ভ্রমণ এড়িয়ে চলুন। এর সাথে, বৃষ, কর্কট, তুলা এবং মকর রাশির জাতকদেরও সজাগ থাকতে হবে। খন্ডগ্রাস হলেও সূর্য গ্রহণের প্রভাব সব রাশিতেই দেখা যাবে। সূর্য গ্রহণের সময় চন্দ্র, বুধ, শুক্র, সূর্য ও কেতু একই সাথে অবস্থা করবে।                                                          উল্লেখ্য, ২১ জুন বছরের প্রথম সূর্যগ্রহণ হয়। এই সূর্য গ্রহণ সকাল ৯ট ১৫ মিনিট থেকে শুরু হয়। ৩টা ০৪ মিনিটে এই গ্রহণ শেষ হয়।

এছাড়া ২০২০ সালের প্রথম গ্রহণটি সম্পন্ন হয় ১০ জানুয়ারি। এটি ছিল চন্দ্র গ্রহণ, যা ৪ ঘন্টা ধরে চলে। সেদিন রাত ১০টা ৩৯ মিনিট থেকে ১২টা ৩৯ মিনিট পর্যন্ত চলে গ্রহণ। ৫ই জুন দ্বিতীয়বার চন্দ্র গ্রহণ সংগঠিত হয়। সেদিন রাত ১১ টা ১৫ মিনিটে এই গ্রহণ শুরু হয়। শেষ হয় ৬ জুন ২টা ৩৪ মিনিটে। এরপর ৩০ নভেম্বর চন্দ্রগ্রহণ সম্পন্ন হয়। সেদিনও ভারতীয় সময় দুপুর ১টা ০২ মিনিট থেকে গ্রহণ শুরু হয়। এরপর বিকেল ৫টা ২৩ মিনিট পর্যন্ত চলে এই গ্রহণ। আর এবার ১৪ই ডিসেম্বর বছরের শেষ সূর্য গ্রহণ হতে চলেছে। যদিও ভারতে এই গ্রহণ দৃশ্যমান হবে না।