গোশালায় বসে পড়াশোনা করেও দুর্দান্ত রেজাল্ট, বিচারপতি হয়ে তাক লাগালেন দুধওয়ালার মেয়ে সোনাল

159
গোশালায় বসে পড়াশোনা করেও দুর্দান্ত রেজাল্ট, বিচারপতি হয়ে তাক লাগালেন দুধওয়ালার মেয়ে সোনাল 1

নিউজ ডেস্ক: গোয়ালঘরের এক কোণে চলত পড়াশোনা, ছিল না টিউশন পড়ার মতো নূন্যতম ক্ষমতা, তারপরেও বিচারপতির আসন পেয়ে সকলকে তাক লাগালেন দুধওয়ালার মেয়ে সোনাল শর্মা।

জানা গিয়েছে, ২০১৮ সালে রাজস্থান জুডিশিয়াল সার্ভিস (আরজেএস) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পরে উদয়পুরের দুধওয়ালার মেয়ে সোনাল শর্মা এখন বিচারক হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ২৬ বছরের সোনাল আজীবন গোয়ালঘরে বসেই পড়াশোনা করেছেন। তবে তাঁর পড়াশোনা বা মনঃসংযোগে কোনও ভাটা পড়েনি, সোনালের রেজাল্টই সেই প্রমাণ বহন করছে। বিএ, এলএলবি, এলএলএম – সব পরীক্ষায় প্রথম হয়েছেন তিনি। তারপর এক বছর প্রশিক্ষণও নিয়েছেন। খবরে প্রকাশ, তাঁকে রাজস্থানের সেশন কোর্টে ফার্স্ট ক্লাস ম্যাজিস্ট্রেটের পদে নিয়োগ করা হচ্ছে।

গোশালায় বসে পড়াশোনা করেও দুর্দান্ত রেজাল্ট, বিচারপতি হয়ে তাক লাগালেন দুধওয়ালার মেয়ে সোনাল 2

সোনাল খুবই দরিদ্র পরিবারের মেয়ে। প্রাইভেট টিউশন নেওয়ার বা বইপত্র কেনার সামর্থ্যও সব সময় হয়নি তাঁর। তিনি সাইকেলে দীর্ঘ পথ পেরিয়ে ক্লাস শুরুর আগে কলেজে পৌঁছে যেতেন। যাতেন কলেজের লাইব্রেরিতে তিনি পড়াশুনা করতে পারেন। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ, গোয়ালঘরের এক কোণে খালি তেলের ক্যান দিয়ে তৈরি একটি অস্থায়ী টেবিল পেতে তিনি পড়াশোনা করতেন। সেই সঙ্গে সময় পেলেই গরুদের দেখাশোনাও করেছেন।

নিজের সাফল্যে সোনাল খুব খুশি। তিনি বলছেন, “বেশিরভাগ সময় আমার চটিতে গোবর লেগে থাকত। স্কুলে পড়ার সময় সহপাঠীদের বলতে গিয়ে আমি লজ্জা পেতাম যে, আমি একজন দুধওয়ালার পরিবার থেকে এসেছি। তবে এখন আর কোনও লজ্জা বা ইতস্তত বোধ হয় না। এখন আমি আমার বাবা-মাকে নিয়ে গর্ব বোধ করি।”

জানা গিয়েছে, গত বছরের ডিসেম্বর মাসে পরীক্ষার ফল বেরিয়েছিল। তবে সোনাল ওয়েটিং লিস্টে ছিলেন। জেনারেলদের জন্য যে কাট অফ মার্ক নির্ধারিত রয়েছে, তার চেয়ে মাত্র এক নম্বর কম ছিল তাঁর। তবে ভাগ্য সোনালের সঙ্গ ছাড়েনি। মূল তালিকা থেকে কয়েকজন চাকরিতে যোগ না দেওয়ায় ওয়েটিং লিস্ট থেকে সোনালকে নির্বাচিত করে প্রশাসন। তাঁকে কাজে যোগ দিতে বলা হয়। সোনালের মেন্টর সত্যেন্দ্র সিংহ সাঙ্খলা জানিয়েছেন, সেই প্রস্তাবে রাজি হয়ে গিয়েছেন তাঁর ছাত্রী।

প্রসঙ্গত, তেলের কয়েকটা ফাঁকা ড্রাম দিয়ে টেবিল বানিয়ে গোয়ালঘরের এক কোণে সেই ড্রামের টেবিল পেতে পড়াশোনা করে এবং জীবনের পথে আসা সমস্ত প্রতিকূলতাকে তুরি মেরে উড়িয়ে দিয়ে রাজস্থানে দুধওয়ালার মেয়ে সোনাল শর্মা যে কৃতিত্বের পরিচয় দিয়েছেন, তা সত্যিই প্রশংসনীয় এবং তাঁর এই কাজ আগামী দিনেও অনেক শিক্ষার্থীকে অনুপ্রেরণা যোগাবে, সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না।

Previous articleবাৎসরিক রাশিফল-২০২১।। কুম্ভ ও মীন রাশি
Next articleবাৎসরিক রাশিফল-২০২১।। সিংহ ও কন্যা রাশি