ট্যাবের টাকা অ্যাকাউন্টে ঢুকতেই ডিজে বাজিয়ে তৃণমূলের নির্বাচনী সঙ্গীতের সাথে আনন্দ নাচ পড়ুয়াদের

662
ট্যাবের টাকা অ্যাকাউন্টে ঢুকতেই ডিজে বাজিয়ে তৃণমূলের নির্বাচনী সঙ্গীতের সাথে আনন্দ নাচ পড়ুয়াদের 1
ট্যাবের টাকা অ্যাকাউন্টে ঢুকতেই ডিজে বাজিয়ে তৃণমূলের নির্বাচনী সঙ্গীতের সাথে আনন্দ নাচ পড়ুয়াদের 2

অশ্লেষা চৌধুরী: “এই রাজ্যে দিদির রাজ, পিঁপড়ের ডিম অতীত আজ, মাওবাদীরা ছারাখার, মমতাদি আর এক বার।“ লাইনগুলো খুবই চেনা চেনা লাগছে নিশ্চয়ই। হ্যাঁ অনেকবার বিভিন্ন অনলাইন ভিডিওতে এই লাইনগুলো শুনে থাকবেন অনেকেই। তবে এবার আর অনলাইন ভিডিও নয়, বাস্তবেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আবারও বাংলার মসনদে দেখতে চেয়ে প্রতিধ্বনি উঠল ‘রাজ্যে দিদি আর একবার।‘ এই দৃশ্য দেখা গেল উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া ব্লকের রামগঞ্জে।

করোনা ভাইরাসের কারণে স্তব্ধ হয়ে যাওয়া জনজীবনে স্কুল কলেজও বন্ধ রয়েছে অনেকটা সময়, পড়াশোনা চলছে অনলাইনেই। তবে অনলাইনে পড়ার জন্য একটা ভালো স্মার্ট ফোন বা ট্যাব কেনার সামর্থ্য অনেক শিক্ষারথীদেরই নেই। এমতাবস্থায় অনলাইনে লেখাপড়ার সুবিধার জন্য ট্যাব কিনতে পড়ুয়াদের টাকা দিচ্ছে রাজ্য সরকার। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় নিজেই এই ঘোষণা করেছেন। আর ট্যাব কেনার জন্য টাকা অ্যাকাউন্টে ঢুকতেই আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠল ছাত্রছাত্রীরা। আর তৃনমূল নির্বাচনের আগে যে শ্লোগান তুলে ফের একবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রী করার জন্য আবেদন জানায় সেই শ্লোগানকেই গান বানিয়ে চলল উদ্দাম নাচ।

ট্যাবের টাকা অ্যাকাউন্টে ঢুকতেই ডিজে বাজিয়ে তৃণমূলের নির্বাচনী সঙ্গীতের সাথে আনন্দ নাচ পড়ুয়াদের 3

দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রছাত্রীরা রীতিমতো ডিজে বাজিয়ে নাচ-গান করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের জয়ধ্বনি দিল। রামগঞ্জ হাইস্কুলের দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়ারা আনন্দ উল্লাসের মধ্যেই আওয়াজ তুলল “রাজ্যে দিদি আর একবার।” চলতি বছর জুনে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। সেই পরীক্ষার প্রস্তুতি যাতে দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রছাত্রীরা নিতে পারে তাতে উদ্যোগী হয়েছে রাজ্য সরকার। ট্যাব কেনার জন্য ১০ হাজার টাকা করে পাঠানো হয়েছে পড়ুয়াদের অ্যাকাউন্টে। আর ট্যাব কেনার টাকা নিজেদের অ্যাকাউন্টে ঢুকতেই আনন্দ উল্লাসে ফেটে পড়েন উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া ব্লকের রামগঞ্জ হাইস্কুলের দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়ারা।

রীতিমতো ডিজে বাজিয়ে নেচে গেয়ে আনন্দ উৎসবে মেতে ওঠে তাঁরা। তাঁদের সেই উল্লাসের মাঝেই ওঠে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের জয়ধ্বনি। সংশ্লিষ্ট পড়ুয়াদের দাবী, ট্যাব কেনার মতো সামর্থ তাদের ছিল না। ‘মানবিক’ মুখ্যমন্ত্রী তাদের ট্যাব কেনার টাকা দিয়ে ভীষণভাবে উপকৃত করেছেন তাই আজ তাদের এত আনন্দ। আনন্দ উল্লাসের মাঝেই পড়ুয়ারা আওয়াজ তোলে ” রাজ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যয় আরও একবার। ”

করোনা সংক্রমণের জেরে অনলাইনের মাধ্যমেই লেখাপড়া চালাতে হচ্ছে ছাত্রছাত্রীদের। কিন্তু রাজ্যের বহু ছাত্রছাত্রীর অ্যানড্রয়েড মোবাইল ফোন বা ট্যাব কিনে অনলাইনে লেখাপড়া করার সামর্থ্য নেই। পড়ুয়াদের এই সমস্যার কথা ভাবনা চিন্তা করে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ছাত্রছাত্রীদের অনলাইনে লেখাপড়া চালানোর জন্য ট্যাব কেনার অর্থ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন। আর শুক্রবার নবান্ন থেকে ভার্চুয়ালি সেই অর্থ প্রদানের শুভ সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী।