চিত্তরঞ্জনে গাড়ির ভেতর থেকে উদ্ধার রেল কর্মীর গুলিবিদ্ধ রক্তাক্ত দেহ

124
Advertisement

নিউজ ডেস্ক: গাড়ির ভেতর রেল কর্মীর গুলি বিদ্ধ রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার। ঘটনা ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোলের চিত্তরঞ্জনে। মৃত ব্যক্তির নাম আনন্দ কুমার ভাট, বয়স ৪৭ বছর। শনিবার আসানসোল চিত্তরঞ্জনের কর্নেল সিং পার্কের কাছে গাড়ির ভিতর থেকে তাঁর দেহ উদ্ধার হয়। চিত্তরঞ্জনের ৫৩ নম্বর রোডের বাসিন্দা ছিলেন তিনি। রেল কারখানায় কাজ করার পাশাপাশি প্রাইভেট টিউশনও পড়াতেন তিনি।

Advertisement

জানা যায়, শুক্রবার সন্ধ্যাবেলা বাড়ি থেকে নিজের মারুতি গাড়ি করে বেরিয়েছিলেন কিন্তু ফিরে আসেননি। এরপর শনিবার সকালে তাঁর গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার হয়। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বিভিন্ন ছোট ছোট চিটফান্ডেও আর্থিক লেনদেনের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তিনি। ব্যবসার লেনদেন সংক্রান্ত গোলমালের জেরে এই খুন বলে প্রাথমিক অনুমান।

Advertisement
Advertisement

মৃতদেহ উদ্ধার করে আসানসোল জেলা হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। তবে কি কারণে খুন তা এখন জানতে পারেনি পুলিশ। তবে পুলিশেরও প্রাথমিক অনুমান, রাতে গাড়ি চালিয়ে ফেরার সময়েই দুষ্কৃতীরা তাঁর গাড়ি লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি চালায়। আনন্দের শরীর ৬,৭ টি গুলি পাওয়া গিয়েছে। সাদা রঙের যে দামি গাড়িতে তাঁর দেহটি পাওয়া যায়, সেই গাড়ির মালিক আনন্দ নিজেই। জানা গিয়েছে, ওই গাড়িটি রেলের অফিসে ভাড়া খাটে।

ঝাড়খণ্ড লাগোয়া রেল শহর চিত্তরঞ্জন সর্বদা আরপিএফের নিরাপত্তা বেষ্টনীতে থাকে। রাজ্যজুড়ে এমনিও আংশিক লকডাউন, তারউপর কড়া নিরাপত্তার কারণে বাইরের লোকের আনাগোনা একেবারেই নেই এখানে। তারপরেও কীভাবে এই খুনের ঘটনা ঘটল, সে নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। পুলিশ, আরপিএফ যৌথ ভাবে ঘটনার তদন্তে নেমেছে। তবে এখনও কেউ গ্রেপ্তার হয়নি বলেই খবর।

এদিকে এই চিত্তরঞ্জন এলাকাতে এক বছরের মধ্যে বেশ কয়েকটি খুন হওয়ায় যথেষ্ট আতঙ্ক ছড়িয়েছে স্থানীয়দের মাঝে। তারা দ্রুত অপরাধীকে গ্রেফতারের দাবী তুলেছেন।