করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনায় ফের রাজ্যে আসছে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল

40

ওয়েব ডেস্ক : রাজ্যে প্রতিদিন বহু মানুষ মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন। এ রাজ্যে যে গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়ে গিয়েছে তা কিছু দিন আগেই স্বীকার করে নিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গ সরকার৷ ফলে এই মূহুর্তে রাজ্যে পরিস্থিতি কেমন, সংক্রমণ রোখা কতটা সম্ভব হয়েছে এধরনের নানা বিষয়ে বিশদে তথ্য জোগাড় করতে ফের রাজ্যে আসছে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল। পশ্চিমবঙ্গের এগারোটির বেশি জেলায় গোষ্ঠী সংক্রমণের শুরু হয়ে গিয়েছে। আবার কয়েকটি জেলায় সংক্রমণের মাত্রা খুবই সামান্য। এই দুই এলাকার অবস্থা যাচাই করতে তৃতীয় দফায় রাজ্যে আসছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের প্রতিনিধি দল। এবিষয়ে আইসিএমআর এর সঙ্গে স্বাস্থ্য কর্তাদের কথা হয়েছে।

আরও পড়ুন -  খড়গপুরের পুকুরে নিম্নাঙ্গে পোশাক বিহীন তরুনীর লাশ, ধর্ষন করেই খুন কিনা জানতে তদন্ত পুলিশের

এর আগে দুদফায় কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের প্রতিনিধি দল রাজ্যে এসেছিলেন। এবার দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্স, চণ্ডীগড়ের পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ইনস্টিটিউট ও পুনের ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজির গবেষকদের নিয়ে গঠিত তৃতীয় দলটি আগামী মাসের শুরুতেই রাজ্যে আসবে বলে জানা গিয়েছে। এবিষয়ে স্বাস্থ্য অধিকর্তা ডা: অজয় চক্রবর্তী বলেন,“শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয়, দিল্লি, মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব-সহ করোনা অধ্যুষিত এলাকায় ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে কী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আর কী কী ব্যবস্থা নেওয়া উচিত সেই সম্পর্কে পরামর্শ দেওয়ার জন্য এই পদক্ষেপ।”

তবে এবার শুধুমাত্র সরকারি হাসপাতাল নয় একই সাথে কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতালেও পরিদর্শন করতে পারে
কেন্দ্রীয় বিশেষজ্ঞ দল। জানা গিয়েছে, আইসিএমআরের প্রতিনিধি দল মূলত কলকাতা ও উত্তরবঙ্গের কয়েকটি হাসপাতাল ও কোয়ারেন্টাইন সেন্টার পরিদর্শন করতে পারে। পাশাপাশি, যেই যেই অঞ্চলগুলিতে সংক্রমণ দ্রুত মাত্রায় বেড়ে চলেছে, সেই জায়গাগুলিতে মূলতঃ কি কারণে এত পরিমাণ সংক্রমণ ছড়াচ্ছে তা খতিয়ে দেখতে সংক্রমিত এলাকাগুলি ঘুরে দেখতে পারেন কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল।

আরও পড়ুন -  এবার থেকে 'করোনা নেগেটিভ' সার্টিফিকেট থাকলেই সাক্ষাৎ মিলবে আধিকারিকদের! জানিয়ে দিল পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা প্রশাসন

স্বাস্থ্যভবনের তরফে জানানো হয়েছে, রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে কোভিড রোগীদের সম্পর্কে বিশদে সরাসরি তথ্য জোগাড় করতে মোবাইল অ্যাপ তৈরির পরামর্শ দিয়েছে আইসিএমআর। এই অ্যাপের বিষয়ে ইতিমধ্যেই সরকারি সংস্থা ওয়েবেলে সঙ্গে স্বাস্থ্য কর্তাদের একপ্রস্থ আলোচনাও হয়েছে। আগামী মাসেই এই নতুন অ্যাপটি চালু হবে বলেই আশাবাদী স্বাস্থ্য অধিকর্তারা। এতদিন স্বাস্থ্য দফতরে উপসর্গহীন ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন করোনা রোগীদের যাবতীয় তথ্য কম্পিউটারে নথিভুক্ত করা হত৷ সেই নথি প্রতিদিন নিয়ম করে মেল করে জানানো হত স্বাস্থ্য দফতরে এর ফলে স্বাভাবিকভাবেই নিয়মিত নথি পাঠানোর ক্ষেত্রে অসুবিধার সৃষ্টি হচ্ছিল। ফলে কেন্দ্রীয়ভাবে মোবাইল অ্যাপ তৈরি হলে স্বাস্থ্যভবনে করোনা সম্পর্কিত কোনো তথ্য এলেই সঙ্গে সঙ্গে তা আইসিএমআরকে জানানো যাবে।

করোনা পরিস্থিতি পর্যালোচনায় ফের রাজ্যে আসছে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল 1