আগামী শিক্ষাবর্ষে সিলেবাসের বোঝা কমাতে উদ্যোগী কেন্দ্র সরকার

63
Image Credit ‘sangbadpratidin.in’

ওয়েব ডেস্ক: করোনা পরিস্থিতিতে অভূতপূর্ব পরিস্থিতি, চেনা জগৎ বদলে যাচ্ছে দ্রুত। কর্মক্ষেত্র থেকে শিক্ষাক্ষেত্র সবটাই এখন নতুন পদ্ধতিতে, নতুন ভাবনায় ভাবতে হচ্ছে। সরকার ইতিমধ্যেই মূল ক্লাশের ২৫% অনলাইন করার পরামর্শ দিয়েছেন। অন্যদিকে নতুন পদ্ধতিতে যাওয়ার আগে পুরোনো পদ্ধতিরও একটা সামঞ্জস্যপূর্ন ছেদ দরকার। ফলে শুরু হয়েছে নতুন চিন্তাভাবনা। ১৬ ই মার্চ থেকে বন্ধ স্কুল কলেজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। একেই করোনা আতঙ্কে ঘরবন্দী সকলে। তার ওপর কবে স্কুল খুলবে, সিলেবাস আদৌ শেষ হবে কিনা এই নিয়ে চিন্তাভাবনায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়ছে শিক্ষার্থীরা। একই চিন্তা শিক্ষক-অভিভাবকদেরও। এরই মধ্যে পড়ুয়াদের কিছুটা স্বস্তি দিতে আগামী শিক্ষাবর্ষে সিলেবাস কমানোর পরিকল্পনা করছে কেন্দ্র সরকার। মঙ্গলবার একথা নিজেই টুইট করে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল।

আরও পড়ুন -  কম খরচে করোনা পরীক্ষার কিট তৈরি করলো আইআইটি দিল্লি

কয়েকদিন আগেই কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশঙ্ক ১৫ই আগষ্টের পর স্কুল-কলেজগুলি খোলার কথা বললেও দেশে দিন দিন যে পরিমাণ সংক্রমণ বাড়ছে তাতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলি আদৌ কবে খোলা হবে তা নিয়ে যথেষ্ট দ্বন্দে রয়েছে শিক্ষক-শিক্ষার্থী-অবিভাবকরা। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন স্কুল-কলেজ ইউনিভার্সিটিতে শুরু হয়ে গিয়েছে অনলাইন ক্লাস। কিন্তু দেখা যাচ্ছে নানা জায়গায় ইন্টারনেট পরিষেবার সমস্যার ও পাশাপাশি নানান অসুবিধার কারণে সেখানেও ছাত্রছাত্রীদের একটা বড় অংশ যোগ দিতে পারছে না। ফলে স্বাভাবিকভাবেই অল্প সময়ে কিভাবে সিলেবাস শেষ হবে তা নিয়ে আতঙ্ক বাড়ছে পড়ুয়াদের মনে৷

ফলে বর্তমান পরিস্থিতি ও নানা অসুবিধের কথা মাথায় রেখেই আগামী শিক্ষাবর্ষে সিলেবাস কমানোর পরিকল্পনা করেছেন কেন্দ্র। এবিষয়ে মঙ্গলবার টুইট করে মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশঙ্ক বলেন, “বর্তমান পরিস্থিতি এবং শিক্ষক ও অভিভাবকদের অনুরোধের কথা মাথায় রেখে আগামী শিক্ষাবর্ষে সিলেবাস ও স্কুল পরিচালনার সময় কমানোর কথা চিন্তা-ভাবনা করছি।”

আরও পড়ুন -  সংক্রমন শঙ্কায় সবং হাসপাতাল! আক্রান্ত সাফাইকর্মী কাম চায়ের দোকানি সহ আরেক স্বাস্থ্যকর্মী, হাসপাতাল পাড়ায় একাধিক ঘরে করোনার উপসর্গ

সিলেবাস কমানোর বিষয়ে দেশের শিক্ষক, শিক্ষাবিদ এবং শিক্ষানুরাগীদের থেকে মতামত, পরামর্শ চেয়েছেন মন্ত্রী। তিনি জানিয়েছেন, তাঁর ফেসবুক পেজ, টুইটারে #সিলেবাস ফর স্টুডেন্টস ২০২০-তে সিলেবাস বিষয়ে মতামত শেয়ার করার কথা বলেছেন৷ ওই মতামতগুলি সিলেবাস সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে অনেকটাই উপযোগী হবে বলে মনে করছেন রমেশ পোখরিয়াল।

আগামী শিক্ষাবর্ষে সিলেবাসের বোঝা কমাতে উদ্যোগী কেন্দ্র সরকার 1