করোনায় আক্রান্ত হয়ে ফের চিকিৎসক মৃত্যু

355

ওয়েব ডেস্ক : মারণ ভাইরাসে পরাজিত হয়ে প্রাণ হারাচ্ছেন রাজ্যের একের পর এক চিকিৎসক। মঙ্গলবার করোনাযুদ্ধে প্রাণ হারালেন কলকাতার আরও এক চিকিৎসক৷ জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরেই করোনায় আক্রান্ত হয়ে মেডিকা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন বছর ৬৫-র সঞ্জয় সেন। ১৪ ই আগষ্ট তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে ইকমো সাপোর্টে রাখা হয়েছিল। এরপর মঙ্গলবার হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়৷ জানা গিয়েছে, স্ত্রী রোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার সঞ্জয় সেন সল্টলেক আমরি হাসপাতালের চিকিৎসক ছিলেন। একই সাথে তিনি আলিপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালের সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন

আরও পড়ুন -  বাবার হাতে ছুরি বিদ্ধ যুবক নিজেই ছুটল হাসপাতালে যাওয়ার গাড়ির সন্ধানে! শেষ রক্ষা হলনা, ঝাড়গ্রামেই মৃত্যু ছেলের

এর আগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাজ্যে একাধিক চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। গত মাসে একদিনেই মৃত্যু হয়েছে ৩ জন চিকিৎসকের। তাদের মধ্যে রয়েছেন কোঠারি হাসপাতালের চিকিৎসক তাপস সিংহের,ব্যারাকপুরের চক্ষু চিকিৎসক বিশ্বজিৎ মন্ডল, শ্যামনগরের চিকিৎসক প্রদীপ ভট্টাচার্য৷ তবে এদের মধ্যে ডঃ প্রদীপ ভট্টাচার্য হাসপাতালের চিকিৎসক না হলেও এলাকার বহু মানুষের রোগ থেকে সেরে ওঠার একমাত্র ভরসা ছিলেন তিনি। করোনা আবহে রোগী দেখাকালীন করোনায় আক্রান্ত হন তিনি। এরপর তার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসলে তাকে মেডিকা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়৷ সেখানেই তার মৃত্যু হয়৷

এর কিছুদিন আগে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩৬ বছরের তরুণ কার্ডিওলজিস্ট নীতিশ কুমারের৷ তিনি কলকাতার আরএন টেগোর হাসপাতালের চিকিৎসক ছিলেন। করোনায় আক্রান্ত হলে চিকিৎসকদের তরফে তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করা হলেও শেষ পর্যন্ত তার মৃত্যু হয়। বিহারের বাসিন্দা নীতিশের স্ত্রী ও ২ বছরের বাচ্চা রয়েছে।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে ফের চিকিৎসক মৃত্যু 1