পাথরপ্রতিমায় ভোট গ্রহণ কেন্দ্র থেকেই উদ্ধার কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানের ঝুলন্ত দেহ!

428
পাথরপ্রতিমায় ভোট গ্রহণ কেন্দ্র থেকেই উদ্ধার কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানের ঝুলন্ত দেহ! 1

নিউজ ডেস্ক: ভোটগ্রহণ কেন্দ্র থেকেই উদ্ধার কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানের ঝুলন্ত দেহ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা এলাকায়। জানা গিয়েছে, ওই জওয়ানের নাম কমল গঙ্গোপাধ্যায়ের। উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁর বাসিন্দা তিনি। ভোটে পাথরপ্রতিমা বিধানসভা এলাকার গুরুদাসপুর ৫৪ নং বুথে ডিউটি পড়েছিল তাঁর।

মৃত জওয়ানের সহকর্মীরা জানান, বুধবার সন্ধ্যে থেকেই খবর মিলছিল না কমলের। রাতেও তাঁকে বুথে দেখতে পাননি কেউ। পরে বৃহস্পতিবার সকালে ঐ ভোটগ্রহণ কেন্দ্রের একটি ঘর থেকে তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। তড়িঘড়ি বিষয়টি জানানো হয় কমিশনে। জানা যাচ্ছে, ইতিমধ্যেই ওই জওয়ানের দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

পাথরপ্রতিমায় ভোট গ্রহণ কেন্দ্র থেকেই উদ্ধার কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানের ঝুলন্ত দেহ! 2

পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইতিমধ্যেই এই ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। ওই জওয়ানের পারিবারিক কোনও সমস্যা ছিল, না কর্মক্ষেত্রে কোনও সমস্যা হয়েছিল, তা জানার চেষ্টা করা হয়েছে। খোঁজ নেওয়া হচ্ছে, বুধবার রাতে কোথায় ছিলেন তিনি। তদন্তকারীরা আধিকারিকরা জানিয়েছেন, এবিষয়ে মৃতের পরিবারের সঙ্গে কথা বলবেন তাঁরা।

উল্লেখ্য, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় বিক্ষিপ্ত কয়েকটি অশান্তির খবর সামনে এসেছে। ভোটের আগের রাতে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল দক্ষিণ ২৪ পরগনার গোসাবা বিধানসভার পুঁইজালি গ্রাম। পদ্ম শিবিরের অভিযোগ, বুধবার রাতে বিজেপি কর্মীদের বাড়ি গিয়ে ভোট না দেওয়ার হুমকি দেন তৃণমূল কর্মীরা। বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মীকে মারধরও করা হয় বলেও অভিযোগ। পাল্টা বিজেপির বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ তুলেছে শাসকশিবির। শেষপর্যন্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়।

অন্যদিকে, গোসাবা বিধানসভার আমতলিতে টাকা বিলি করে ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ ওঠে বিজেপির বিরুদ্ধে। প্রতিবাদ করায় দুই তৃণমূল কর্মীকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। হামলার কথা অস্বীকার করেছে বিজেপি। এরই মধ্যে পাথরপ্রতিমায় জওয়ানের দেহ উদ্ধার হল, যা ঘিরে সাময়িক ভাবে উত্তেজনা ছড়ায়। তবে এই ঘটনার খুব একটা প্রভাব ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে ঘটেনি। ভোট গ্রহণ পর্ব স্বাভাবিক ভাবেই চলছে।