রেললাইন থেকে উদ্ধার সাংবাদিকের ক্ষত-বিক্ষত দেহ, ফের প্রশ্নের মুখে যোগীর পুলিশ

215
রেললাইন থেকে উদ্ধার সাংবাদিকের ক্ষত-বিক্ষত দেহ, ফের প্রশ্নের মুখে যোগীর পুলিশ 1
রেললাইন থেকে উদ্ধার সাংবাদিকের ক্ষত-বিক্ষত দেহ, ফের প্রশ্নের মুখে যোগীর পুলিশ 2

নিউজ ডেস্ক: যোগী রাজ্যে ফের আক্রান্ত গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ। রেল লাইনের পাশ থেকে উদ্ধার সাংবাদিকের মৃতদেহ। মৃত সাংবাদিকের নাম সুরজ পান্ডে। একের পর এক ঘটনাকে কেন্দ্র করে বারবার খবের শিরোনামে উঠে আসছে উত্তরপ্রদেশ। কিছুদিন আগেই হাথ্রাস কান্ডের ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়, প্রশ্নের মুখে পরে যায় যোগীর পুলিশ, আর আবারও সাংবাদিকের মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে খবরের শিরোনামে যোগীর পুলিশ।

নিহতের পরিবারের অভিযোগ, একজন নারী পুলিশকর্মীসহ মোট দু’জন হুমকি দিয়েছিল তাদের ছেলেকে। তারাই প্ররোচনা দিয়ে ছেলেকে মৃত্যুর পথে ঠেলে দিয়েছে বলে দাবী করেন নিহত সাংবাদিকের মা।

রেললাইন থেকে উদ্ধার সাংবাদিকের ক্ষত-বিক্ষত দেহ, ফের প্রশ্নের মুখে যোগীর পুলিশ 3

জানা গিয়েছে, অন্য দিনের মতোই বৃহস্পতিবার বাড়ী থেকে বের হন সাংবাদিক সুরজ পাণ্ডে। তবে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কেটে গেলেও বাড়ী ফেরেননি তিনি। পরে রাতের দিকে উন্নাওয়ের কাছে রেললাইনের উপর থেকেই উদ্ধার করা হয় সুরজের ক্ষতবিক্ষত দেহ।

সিও (সিটি) গৌরব ত্রিপাঠি এ ব্যাপারে জানিয়েছেন, সদর কোতোয়ালিতে রেললাইনের উপর পড়েছিল সুরজের দেহ। তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। তবে সবকিছু খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সুরজের মা লক্ষ্মী দেবী পুরো ঘটনাকে নিছক আত্মহত্যা হিসেবে মেনে নিতে নারাজ। তার দাবী, ছেলে সুরজকে নারী পুলিশ কনস্টেবল সুনীতা চৌরাশিয়া এবং অমর সিং হুমকি দিয়েছিল। তাদের প্ররোচনায় সুরজের এমন মর্মান্তিক পরিণতি। তবে কেন পুলিশকর্মীরা সুরজকে হুমকি দিয়েছিল সে বিষয়ে পরিষ্কার করে কিছুই জানাননি মৃত সাংবাদিকের মা।

তবে, সুরজের পরিবারের আনা অভিযোগ প্রমাণিত হলে পুলিশকর্মীদেরও ছাড় দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট তদন্তকারীরা।