কলকাতায় দ্রুত বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, গোষ্ঠী সংক্রমণ মানতে নারাজ রাজ্য

40

ওয়েব ডেস্ক : ভারতে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে করোনার গোষ্ঠী সংক্রমণ। শনিবার একথাই জানিয়েছেন চিকিৎসক সংগঠন আইএমএ৷ একই কথা জানিয়েছিল কেরল সরকারও। কিন্তু সে কথা মানতে নারাজ কেন্দ্র৷ একইভাবে পশ্চিমবঙ্গেও যে গোষ্ঠী সংক্রমণ ছড়িয়ে গিয়েছে সে কথা কোনোভাবেই মানতে চাইছে না পশ্চিমবঙ্গ সরকার। শনিবার রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, কলকাতায় এখনো গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়নি।

এদিকে শনিবার পশ্চিমবঙ্গে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ২,২০০ জন মানুষ। সে অনুযায়ী রাজ্যে এখনো পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৪০ হাজার ছাড়িয়েছে। গত একদিনে কলকাতায় আক্রন্ত ৬০০ পার করেছে। তবুও গোষ্ঠী সংক্রমণের তত্ত্ব মানতে নারাজ রাজ্য সরকার। এবিষয়ে আলাপন বন্দোপাধ্যায়ের দাবি, এ পর্যন্ত কলকাতায় যতজন সংক্রমিত হয়েছেন তাদের বেশিরভাগটাই ধরা পড়ছে আবাসনে। সে তুলনায় বসতি এলাকায় সংক্রমণের হার একেবারেই কম। ফলে কলকাতায় আক্রান্তের সংখ্যা এখনও গোষ্ঠী সংক্রমণে পৌঁছায়নি।

এদিন পরিসংখ্যান হিসেবে তিনি জানান, গত ২৮ জুন থেকে ১৭ ই জুলাই পর্যন্ত কলকাতায় আবাসন গুলিতে প্রায় ১,৪০০ জন আক্রান্ত হয়েছেন, পাকাবাড়িতে আক্রান্ত প্রায় ১,২০০ জন। কিন্তু সে তুলনায় বসতিতে অনেক কম। সংখ্যাটা মাত্র ১৭৪৷ তাঁর দাবি, বসতিগুলিতে যাতে সংক্রমণ না ছড়ায় তার জন্য গোটা বিষয়টিই নিয়ন্ত্রণ করছে কলকাতা পুরসভা। কিন্তু আবাসনগুলির ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই পুরসভার কর্মীদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। ফলে সেখানে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। ফলে যেহেতু আক্রান্তরা আবাসন ও পাকা বাড়ি গুলির মধ্যেই সীমাবদ্ধ, সেহেতু কোনোভাবেই তা এখনও গোষ্ঠী সংক্রমণে পৌঁছায়নি বলেই দাবি রাজ্য সরকারের।

আরও পড়ুন -  নাগালের বাইরে সংক্রমণ, তড়িঘড়ি কলকাতার ৩টি বাজার বন্ধ করলো কলকাতা পুরসভা

এদিকে গত কয়েক সপ্তাহে এরাজ্যে প্রতিদিন লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। তার মধ্যে প্রথম সারিতে রয়েছে কলকাতা ও উত্তর ২৪ পরগনার। তারওপর শনিবার কলকাতায় কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা একদিনেই ২৪ থেকে বেড়ে হয়েছে ৩২। উত্তর ২৪ পরগনায় মোট কনটেনমেন্ট জোনের সংখ্যা ১১৩।

কলকাতায় দ্রুত বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, গোষ্ঠী সংক্রমণ মানতে নারাজ রাজ্য 1