আকাশ ছোঁয়া ইলিশের দাম! সস্তায় বাজার কাঁপাতে আসছে মনিপুরী ইলিশ

250

ওয়েব ডেস্ক : ইলিশের মরসুম অথচ বাজারে গিয়ে ইলিশের দাম শুনলেই চক্ষু চড়কগাছ। এদিকে সাইজেও একেবারেই ছোটো। ফলে ফের কবে মধ্যবিত্তের নাগালে মিলবে ইলিশ, তা নিয়ে অপেক্ষায় দিন গুনছেন ইলিশপ্রেমীরা। তবে খুব শীঘ্রই অপেক্ষার অবসান হতে চলেছে। এবার থেকে আর সমুদ্র থেকে ইলিশ আনার দিন গোনার দরকার নেই। বদলে এবার গ্রামের পুকুরগুলিতেই করা হবে ইলিশের চাষ। ইতিমধ্যেই পূর্ব বর্ধমানের ভাতারে শুরু হয়ে গিয়েছে ইলিশ উৎপাদনের কাজ। তবে যে সে ইলিশ নয়, এই ইলিশের নাম মনিপুরী ইলিশ। অনেকে আবার একে পেংবা বলেও জানেন। তবে পুকুরে চাষ হলেও স্বাদে এবং গন্ধ দুটিতেই সমুদ্রের ইলিশের থেকে কোনও অংশে কম নয়। ফলে যদি এ রাজ্যের গ্রামের পুকুর গুলিতে মনিপুরী ইলিশের চাষ প্রচুর পরিমাণে করা যায়, তবে আশা করা যাচ্ছে এবার থেকে প্রতিবছর নিঃসন্দেহে সকলের পাতেই পড়বে ইলিশ।

আরও পড়ুন -  না পসন্দ মেয়ের প্রেমিক, বেধড়ক মারের পর প্রেমিককে বিষ খাইয়ে খুনের চেষ্টা

প্রতিবছরই এ রাজ্যে ইলিশের আকাল লাগে। ফলন ভালো হলেও আদতে দেখা যায় তা ভীন রাজ্যে বেশি দামে বিক্রি করছে মৎসজীবিরা। ফলে বাজারে একেই ইলিশের দেখা মেলেনা, যাও পাওয়া যায় তার দাম শুনেই চক্ষু কপালে ওঠার জোগার! সেকারণেই এ রাজ্যে ইলিশের অভাব ঘোচাতেই এবার কৃষি তথ্য ও উপদেষ্টা কেন্দ্র এবং কৃষি দফতরের তরফে গ্রামের পুকুরগুলিতে পেংবা অর্থাৎ মণিপুরী ইলিশ মাছ চাষের উপর জোর দেওয়া হচ্ছে। সে অনুযায়ী মঙ্গলবারই পূর্ব বর্ধমানের ভাতারে মৎস্যজীবীদের মাছের চারা ও অন্যান্য উপকরণ বিতরণ করা হয়। আপাতত ভাতার ব্লকের মোট ১৮ জন মৎসজীবিকে এই মনিপুরী ইলিশের চারা দেওয়া হয়েছে। একইসাথে এদিনই বর্ধমান ১ নং ব্লকেও ২০ জন মৎস্যজীবীকে এই মাছের চারা দেওয়া হয়েছে। দিন কয়েকের মধ্যেই শুরু হবে মাছের চাষ।

তবে কেমন দেখতে এই মনিপুরী ইলিশ? এবিষয়ে কৃষি দফতরের আধিকারিকরা জানিয়েছেন, এই মনিপুরী ইলিশ দেখতে অনেকটা দেশি পুঁটি মাছের মতো। তবে পুঁটি মাছের থেকে এটি আকারে অনেকটাই বড়। তবে নাম মনিপুরী হলেও স্বাদ কিন্তু একেবারেই ইলিশের মতো। ইতিমধ্যেই মৎস দফতরের সহায়তায় পূর্ব বর্ধমানের মঙ্গলকোট, ভাতার, মেমারি ২ সহ একাধিক ব্লকে মণিপুরী ইলিশের চাষ শুরু হয়ে গিয়েছে। মৎস বিশেষজ্ঞদের মতে অন্যান্য মাছে যতটা পরিমাণ খাবার দিতে হয়, তাতে লাভের তুলনায় খরচ অনেকটাই বেশী হয়। তবে এই মাছে সেভাবে খাবার দেওয়ার প্রয়োজন হয়না। সাধারণত উদ্ভিদের কণা খেয়েই এরা বেঁচে থাকে৷ ফলে এই মাছ চাষে খরচ নেই বললেই চলে। সুতরাং ইলিশের বদলে মনিপুরী ইলিশ সকলের মন জয় করে নিতে পারবে বলেই মনে করছেন মৎস্য বিশেষজ্ঞরা।

আকাশ ছোঁয়া ইলিশের দাম! সস্তায় বাজার কাঁপাতে আসছে মনিপুরী ইলিশ 1