করোনা পরীক্ষার মাত্রা বাড়াতে তিন রাজ্যে উন্নত প্রযুক্তির ল্যাবের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

130
Advertisement

ওয়েব ডেস্ক: দেশে ইতিমধ্যেই মারণ ভাইরাসের থাবা ক্রমশ চওড়া হচ্ছে৷ এই পরিস্থিতিতে একমাত্র টেস্টের মাত্রা বাড়ালেই সংক্রমণ আয়ত্তে আনা সম্ভব। কিন্তু দেশের পরিকাঠামো অনুযায়ী দেখা যাচ্ছে টেস্টের মাত্রা কমে যাচ্ছে। এর জেরে ক্রমশ বেড়েই চলেছে সংক্রমণ। এবার কম সময়ের মধ্যে করোনা ভাইরাসের চিহ্নিত এবং দ্রুত চিকিৎসার জন্য দেশের তিন প্রান্তে তিনটি নতুন “উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন” ল্যাবের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সোমবার বিকেলে ভার্চুয়ালি কলকাতা, নয়ডা এবং মুম্বইয়ে সেই তিনটি ল্যাবের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী।

Advertisement

দেশে যেভাবে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে তাতে যেহেতু এই মূহুর্তে এই মারণ ভাইরাসের কোনোরকম প্রতিষেধক আমাদের হাতে নেই, সেহেতু বেশি সংখ্যক পরীক্ষাই আক্রান্তদের চিহ্নিত করার ক্ষেত্রে একমাত্র পথ। সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তরফে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, গোটা দেশের তিন জায়গায় এই উন্নত প্রযুক্তির ল্যাব চালু হবে৷ তার মধ্যে রয়েছে বেলেঘাটার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ কলেরা অ্যান্ড এন্টেরিক ডিজিজ (নাইসেড), মুম্বইয়ে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর রিসার্চ ইন রিপ্রোডাক্টিভ হেলথ এবং নয়ডায় ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ক্যানসার প্রিভেনশন অ্যান্ড রিসার্চ, এই তিনটি উন্নত ক্ষমতা সম্পন্ন ল্যাব তৈরি করা হয়েছে। এই ল্যাবে প্রতিদিন অন্তত ১০,০০০-এর বেশি নমুনা পরীক্ষা করা যাবে। কেন্দ্রের দাবি, নয়া ল্যাবের ফলে সংক্রমণের মাত্রা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে।

Advertisement
Advertisement

তবে শুধুমাত্র করোনা সংক্রমণের নমুনাই নয় সেই ল্যাবগুলিতে করোনাভাইরাস ছাড়াও এইচআইভি, টিবি, ডেঙ্গি, হেপাটাইটিস বি এবং সি-সহ বিভিন্ন পরীক্ষার পরিকাঠামোও রয়েছে।
এবিষয়ে আধিকারিকদের দাবি, নতুন ল্যাবে পরিকাঠামো এতটাই উন্নত যে অতি দ্রুত ফল মিলবে। এমনকি নয়া পরিকাঠামোয় বিভিন্ন সংক্রমক সরঞ্জামের সংস্পর্শে অনেক কম আসতে হবে ল্যাবকর্মীদের। এর জেরে ল্যাব কর্মীদের সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা কম থাকবে। এদিন প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি ল্যাবগুলির উদ্বোধনে ভার্চুয়ালভাবে উপস্থিত থাকবেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে এবং উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।